৯৯৯-এ ফোন করে ধর্ষণ থেকে রক্ষা কলেজছাত্রীর
jugantor
৯৯৯-এ ফোন করে ধর্ষণ থেকে রক্ষা কলেজছাত্রীর
কমলগঞ্জে কিশোরী ও আজমিরীগঞ্জে গৃহবধূকে তুলে নিয়ে ধর্ষণ * খুলনা, আগৈলঝাড়া, ভাঙ্গা ও টঙ্গীবাড়ীতে মাদ্রাসাছাত্রী শিশুসহ ধর্ষণের শিকার পাঁচ নারী * মুলাদীর ভিডিপি কর্মকর্তার বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ দলনেত্রীর

  যুগান্তর ডেস্ক  

২৮ অক্টোবর ২০২০, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

পিরোজপুরের ভাণ্ডরিয়ায় ৯৯৯-এ ফোন করে ধর্ষণ থেকে রক্ষা পেয়েছেন এক কলেজছাত্রী। মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জে কিশোরী ও হবিগঞ্জের আজমিরীগঞ্জে গৃহবধূকে ধরে নিয়ে ধর্ষণ করা হয়েছে। খুলনা, বরিশালের আগৈলঝাড়া, ফরিদপুরের ভাঙ্গা ও মুন্সীগঞ্জের টঙ্গীবাড়ীতে শিশু, মাদ্রাসাছাত্রীসহ ধর্ষণের শিকার হয়েছেন পাঁচ নারী। এ ছাড়া বরিশারের মুলাদী উপজেলা ভিডিপি কর্মকর্তার বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ করেছেন দলনেত্রী। যুগান্তর ব্যুরো ও প্রতিনিধিদের পাঠানো খবর-

ভাণ্ডারিয়া (পিরোজপুর) : পিরোজপুরের ভাণ্ডারিয়া উপজেলার লক্ষ্মীপুরায় বেড়াতে এসেছিলেন কলেজছাত্রী। মঙ্গলবার ভোর ৫টার দিকে প্রতিবেশী যুবক মেয়েটির ঘরে ঢুকে ধর্ষণের চেষ্টা করে। এ সময় ওই ছাত্রী ৯৯৯ নম্বরে ফোন করে সহায়তা চাইলে পুলিশ তাৎক্ষণিক এসে অভিযুক্ত সোহেল মুন্সি ও ধর্ষণচেষ্টায় সহায়তার অভিযোগে ফিরোজা বেগমকে গ্রেফতার করে। অভিযুক্ত সোহেল শহরের লক্ষ্মীপুরা মহল্লার মফিজুর রহমান ফিরোজ মুন্সীর ছেলে ও ফিরোজা বেগম দক্ষিণ শিয়ালকাঠীর লিয়াকত মার্কেট এলাকার রফিকুল ইসলামের স্ত্রী। ভাণ্ডারিয়া থানার ওসি এসএম মাকসুদুর রহমান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, ৯৯৯ নম্বরে কল পেয়ে পুলিশ তাৎক্ষণিক মেয়েটিকে উদ্ধার করে দু’জনকে গ্রেফতার করেছে। এ ঘটনায় কলেজছাত্রী বাদী হয়ে ভাণ্ডারিয়া থানায় মামলা করেছেন।

কমলগঞ্জ (মৌলভীবাজার) : কমলগঞ্জ উপজেলার ইসলামপুর ইউনিয়নের রাজকান্দি বন এলাকায় এক কিশোরী ধর্ষণের শিকার হয়েছে। পুলিশ জানায়, কমলগঞ্জ উপজেলার দক্ষিণ কানাইদাসী গ্রামের ওই কিশোরীকে মঙ্গলবার সকালে একই গ্রামের শাকিল মিয়া হাত-পা বেঁধে ধরে নিয়ে গিয়ে পাশের টিলায় ধর্ষণ করে। দুপুরে এলাকাবাসী টিলা এলাকায় গেলে সেখানে মেয়েটিকে হাত-পা বাঁধা অবস্থায় দেখতে পেয়ে পুলিশে খবর দেন। থানার ওসি সুধীন চন্দ্র দাস, এএসআই আনিসুর রহমানসহ পুলিশের একটি দল ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। পুলিশ মেয়েটিকে উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য মৌলভীবাজার ২৫০ শয্যা হাসপাতালে পঠিয়েছে। অভিযোগ করলে তদন্ত করে আইনি পদক্ষেপ নেয়া হবে।

খুলনা : খুলনায় খাবারের লোভ দেখিয়ে একই বাড়ির দুই শিশু?কে ধর্ষণের অভিযোগে হিরু মিয়া নামে এক মাহেন্দ্র চালককে সোমবার গ্রেফতার করা হয়েছে। মঙ্গলবার মামলার পর হিরুকে আদালতে পাঠানো হয়েছে। শিশু দুটিকে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

হবিগঞ্জ : আজমিরীগঞ্জে তিন সন্তানের জননীকে রাতভর আটকে রেখে ধর্ষণের অভিযোগে তাজুল ইসলামকে আটক করা হয়েছে। সোমবার গভীর রাতে পুলিশ তাকে আটক করে নিয়ে আসে। আটক তাজুল জলসুখা ইউনিয়নের শঙ্খমহল গ্রামের আলী হোসেনের ছেলে। পুলিশ জানায়, শুক্রবার গভীর রাতে ওই নারীকে বাড়ি থেকে মুখে গামছা বেঁধে তুলে নিয়ে যায় তাজুল। স্থানীয় বিদ্যালয়ের কক্ষে আটকে রেখে রাতভর তাকে ধর্ষণ করে। পরদিন ঘটনাটি জানাজানি হলে অভিযুক্ত তাজুল পঞ্চাশ হাজার টাকা দিয়ে বিষয়টি রফাদফার চেষ্টা চালায়। কিন্তু ধর্ষণের শিকার নারী এতে রাজি না হয়ে সোমবার রাতে থানায় অভিযোগ করেন। আজমিরীগঞ্জ থানার ওসি তদন্ত আবু হানিফ জানান, ওই নারীকে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য সদর আধুনিক হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

আগৈলঝাড়া (বরিশাল) : আগৈলঝাড়ায় এক কলেজছাত্রীকে ধর্ষণ করা হয়েছে। ধর্ষিতা ও ধর্ষককে আটকে রেখে পুনরায় ধর্ষণের চেষ্টা চালায় স্থানীয় চার যুবক। এ ঘটনায় ওই ছাত্রী বাদী হয়ে থানায় মামলা করলে তাকে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য বরিশাল পাঠানো হয়েছে। মামলা সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার বাগধা ইউনিয়নের জোবারপাড় গ্রামের ওই ছাত্রীর সঙ্গে পরিচয়ের সূত্র ধরে বাকাল গ্রামের অসীম মণ্ডলের ছেলে নয়ন মণ্ডল ২৪ অক্টোবর অষ্টমী পূজার দিন ওই ছাত্রীকে নিয়ে ঘুরতে যায়। পরে জাবারপাড় ইটভাটা এলাকায় তাকে ধর্ষণ করে। এ ঘটনা দেখে ফেলে বাকাল গ্রামের ইমু ফকির, সুজন পাইক, সুমন মিয়া। তারা ওই ছাত্রী ও নয়নকে তুলে নিয়ে বাকালহাট একটি বিদ্যালয়ে আলাদা দুটি কক্ষে আটকে রাখে। পরে যুবকরা ওই কলেজছাত্রীকে পুনরায় ধর্ষণের চেষ্টা চালায়। তার চিৎকারে এলাকাবাসী এলে ধর্ষণে ব্যর্থ হয় যুবকরা। এ ঘটনায় ওই ছাত্রী বাদী হয়ে মঙ্গলবার সকালে নয়ন মণ্ডলের বিরুদ্ধে ধর্ষণ ও অন্য যুবকদের বিরুদ্ধে ধর্ষণচেষ্টার অভিযোগে থানায় মামলা করেন।

ফরিদপুর ও ভাঙ্গা : ভাঙ্গায় তরুণীকে ধর্ষণের অভিযোগে বাচ্চু হাওলাদার নামে এক যুবককে সোমবার রাতে ফুকুরহাটি গ্রাম থেকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। মঙ্গলবার বাচ্চুকে আদালতে পাঠানো হয়। বাচ্চু উপজেলার নুরুল্লাগঞ্জ ইউনিয়নের ফুকুরহাটি গ্রামের ওমর উদ্দিন হাওলাদারের ছেলে।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা উপপরিদর্শক মো. আমিনুল ইসলাম জানান, ২৪ অক্টোবর রাতে টিউবওয়েলেরপাড় যায় ওই কিশোরী। এ সময় বাচ্চু জোর করে কিশোরীকে ঘরে নিয়ে ধর্ষণ করে। পরে বিষয়টি সালিশের মাধ্যমে মীমাংসা করা হবে জানিয়ে ওই কিশোরীর পরিবারকে আশ্বস্ত করেন স্থানীয়রা। কিন্তু ঘটনার কয়েকদিন পার হয়ে গেলেও কোনো সমাধান না পেয়ে ভুক্তভোগীর পরিবার সোমবার সন্ধ্যায় থানায় মামলা করে।

টঙ্গীবাড়ী (মুন্সীগঞ্জ) : টঙ্গীবাড়ীতে এক মাদ্রাসাছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে মো. আহমুতউল্লাহ নামে একজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। সোমবার রাতে ছাত্রীর মা টঙ্গীবাড়ী থানায় লিখিত অভিযোগ করলে তাকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

চরফ্যাশন (দক্ষিণ) : চরফ্যাশন উপজেলার তৎকালীন কর্মরত বর্তমানে বরিশালের মুলাদী উপজেলা আনসার ভিডিপি কর্মকর্তা মিজানুর রহমানের বিরুদ্ধে এক ইউনিয়ন দলনেত্রী ধর্ষণের অভিযোগ করেছেন। মঙ্গলবার তিনি উপপরিচালক বরিশাল রেঞ্জ আনসার ভিডিপি বরাবর বিচার দাবি করে লিখিত অভিযোগ করেছেন। অনুলিপিও বিভিন্ন দফতরে দিয়েছেন। এ ব্যাপারে মুলাদী উপজেলা আনসার-ভিডিপি কর্মকর্তা মিজানুর রহমানের মোবাইল ফোনে একাধিকবার কল দিলেও তিনি রিসিভ করেননি।

৯৯৯-এ ফোন করে ধর্ষণ থেকে রক্ষা কলেজছাত্রীর

কমলগঞ্জে কিশোরী ও আজমিরীগঞ্জে গৃহবধূকে তুলে নিয়ে ধর্ষণ * খুলনা, আগৈলঝাড়া, ভাঙ্গা ও টঙ্গীবাড়ীতে মাদ্রাসাছাত্রী শিশুসহ ধর্ষণের শিকার পাঁচ নারী * মুলাদীর ভিডিপি কর্মকর্তার বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ দলনেত্রীর
 যুগান্তর ডেস্ক 
২৮ অক্টোবর ২০২০, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

পিরোজপুরের ভাণ্ডরিয়ায় ৯৯৯-এ ফোন করে ধর্ষণ থেকে রক্ষা পেয়েছেন এক কলেজছাত্রী। মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জে কিশোরী ও হবিগঞ্জের আজমিরীগঞ্জে গৃহবধূকে ধরে নিয়ে ধর্ষণ করা হয়েছে। খুলনা, বরিশালের আগৈলঝাড়া, ফরিদপুরের ভাঙ্গা ও মুন্সীগঞ্জের টঙ্গীবাড়ীতে শিশু, মাদ্রাসাছাত্রীসহ ধর্ষণের শিকার হয়েছেন পাঁচ নারী। এ ছাড়া বরিশারের মুলাদী উপজেলা ভিডিপি কর্মকর্তার বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ করেছেন দলনেত্রী। যুগান্তর ব্যুরো ও প্রতিনিধিদের পাঠানো খবর-

ভাণ্ডারিয়া (পিরোজপুর) : পিরোজপুরের ভাণ্ডারিয়া উপজেলার লক্ষ্মীপুরায় বেড়াতে এসেছিলেন কলেজছাত্রী। মঙ্গলবার ভোর ৫টার দিকে প্রতিবেশী যুবক মেয়েটির ঘরে ঢুকে ধর্ষণের চেষ্টা করে। এ সময় ওই ছাত্রী ৯৯৯ নম্বরে ফোন করে সহায়তা চাইলে পুলিশ তাৎক্ষণিক এসে অভিযুক্ত সোহেল মুন্সি ও ধর্ষণচেষ্টায় সহায়তার অভিযোগে ফিরোজা বেগমকে গ্রেফতার করে। অভিযুক্ত সোহেল শহরের লক্ষ্মীপুরা মহল্লার মফিজুর রহমান ফিরোজ মুন্সীর ছেলে ও ফিরোজা বেগম দক্ষিণ শিয়ালকাঠীর লিয়াকত মার্কেট এলাকার রফিকুল ইসলামের স্ত্রী। ভাণ্ডারিয়া থানার ওসি এসএম মাকসুদুর রহমান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, ৯৯৯ নম্বরে কল পেয়ে পুলিশ তাৎক্ষণিক মেয়েটিকে উদ্ধার করে দু’জনকে গ্রেফতার করেছে। এ ঘটনায় কলেজছাত্রী বাদী হয়ে ভাণ্ডারিয়া থানায় মামলা করেছেন।

কমলগঞ্জ (মৌলভীবাজার) : কমলগঞ্জ উপজেলার ইসলামপুর ইউনিয়নের রাজকান্দি বন এলাকায় এক কিশোরী ধর্ষণের শিকার হয়েছে। পুলিশ জানায়, কমলগঞ্জ উপজেলার দক্ষিণ কানাইদাসী গ্রামের ওই কিশোরীকে মঙ্গলবার সকালে একই গ্রামের শাকিল মিয়া হাত-পা বেঁধে ধরে নিয়ে গিয়ে পাশের টিলায় ধর্ষণ করে। দুপুরে এলাকাবাসী টিলা এলাকায় গেলে সেখানে মেয়েটিকে হাত-পা বাঁধা অবস্থায় দেখতে পেয়ে পুলিশে খবর দেন। থানার ওসি সুধীন চন্দ্র দাস, এএসআই আনিসুর রহমানসহ পুলিশের একটি দল ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। পুলিশ মেয়েটিকে উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য মৌলভীবাজার ২৫০ শয্যা হাসপাতালে পঠিয়েছে। অভিযোগ করলে তদন্ত করে আইনি পদক্ষেপ নেয়া হবে।

খুলনা : খুলনায় খাবারের লোভ দেখিয়ে একই বাড়ির দুই শিশু?কে ধর্ষণের অভিযোগে হিরু মিয়া নামে এক মাহেন্দ্র চালককে সোমবার গ্রেফতার করা হয়েছে। মঙ্গলবার মামলার পর হিরুকে আদালতে পাঠানো হয়েছে। শিশু দুটিকে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

হবিগঞ্জ : আজমিরীগঞ্জে তিন সন্তানের জননীকে রাতভর আটকে রেখে ধর্ষণের অভিযোগে তাজুল ইসলামকে আটক করা হয়েছে। সোমবার গভীর রাতে পুলিশ তাকে আটক করে নিয়ে আসে। আটক তাজুল জলসুখা ইউনিয়নের শঙ্খমহল গ্রামের আলী হোসেনের ছেলে। পুলিশ জানায়, শুক্রবার গভীর রাতে ওই নারীকে বাড়ি থেকে মুখে গামছা বেঁধে তুলে নিয়ে যায় তাজুল। স্থানীয় বিদ্যালয়ের কক্ষে আটকে রেখে রাতভর তাকে ধর্ষণ করে। পরদিন ঘটনাটি জানাজানি হলে অভিযুক্ত তাজুল পঞ্চাশ হাজার টাকা দিয়ে বিষয়টি রফাদফার চেষ্টা চালায়। কিন্তু ধর্ষণের শিকার নারী এতে রাজি না হয়ে সোমবার রাতে থানায় অভিযোগ করেন। আজমিরীগঞ্জ থানার ওসি তদন্ত আবু হানিফ জানান, ওই নারীকে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য সদর আধুনিক হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

আগৈলঝাড়া (বরিশাল) : আগৈলঝাড়ায় এক কলেজছাত্রীকে ধর্ষণ করা হয়েছে। ধর্ষিতা ও ধর্ষককে আটকে রেখে পুনরায় ধর্ষণের চেষ্টা চালায় স্থানীয় চার যুবক। এ ঘটনায় ওই ছাত্রী বাদী হয়ে থানায় মামলা করলে তাকে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য বরিশাল পাঠানো হয়েছে। মামলা সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার বাগধা ইউনিয়নের জোবারপাড় গ্রামের ওই ছাত্রীর সঙ্গে পরিচয়ের সূত্র ধরে বাকাল গ্রামের অসীম মণ্ডলের ছেলে নয়ন মণ্ডল ২৪ অক্টোবর অষ্টমী পূজার দিন ওই ছাত্রীকে নিয়ে ঘুরতে যায়। পরে জাবারপাড় ইটভাটা এলাকায় তাকে ধর্ষণ করে। এ ঘটনা দেখে ফেলে বাকাল গ্রামের ইমু ফকির, সুজন পাইক, সুমন মিয়া। তারা ওই ছাত্রী ও নয়নকে তুলে নিয়ে বাকালহাট একটি বিদ্যালয়ে আলাদা দুটি কক্ষে আটকে রাখে। পরে যুবকরা ওই কলেজছাত্রীকে পুনরায় ধর্ষণের চেষ্টা চালায়। তার চিৎকারে এলাকাবাসী এলে ধর্ষণে ব্যর্থ হয় যুবকরা। এ ঘটনায় ওই ছাত্রী বাদী হয়ে মঙ্গলবার সকালে নয়ন মণ্ডলের বিরুদ্ধে ধর্ষণ ও অন্য যুবকদের বিরুদ্ধে ধর্ষণচেষ্টার অভিযোগে থানায় মামলা করেন।

ফরিদপুর ও ভাঙ্গা : ভাঙ্গায় তরুণীকে ধর্ষণের অভিযোগে বাচ্চু হাওলাদার নামে এক যুবককে সোমবার রাতে ফুকুরহাটি গ্রাম থেকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। মঙ্গলবার বাচ্চুকে আদালতে পাঠানো হয়। বাচ্চু উপজেলার নুরুল্লাগঞ্জ ইউনিয়নের ফুকুরহাটি গ্রামের ওমর উদ্দিন হাওলাদারের ছেলে।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা উপপরিদর্শক মো. আমিনুল ইসলাম জানান, ২৪ অক্টোবর রাতে টিউবওয়েলেরপাড় যায় ওই কিশোরী। এ সময় বাচ্চু জোর করে কিশোরীকে ঘরে নিয়ে ধর্ষণ করে। পরে বিষয়টি সালিশের মাধ্যমে মীমাংসা করা হবে জানিয়ে ওই কিশোরীর পরিবারকে আশ্বস্ত করেন স্থানীয়রা। কিন্তু ঘটনার কয়েকদিন পার হয়ে গেলেও কোনো সমাধান না পেয়ে ভুক্তভোগীর পরিবার সোমবার সন্ধ্যায় থানায় মামলা করে।

টঙ্গীবাড়ী (মুন্সীগঞ্জ) : টঙ্গীবাড়ীতে এক মাদ্রাসাছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে মো. আহমুতউল্লাহ নামে একজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। সোমবার রাতে ছাত্রীর মা টঙ্গীবাড়ী থানায় লিখিত অভিযোগ করলে তাকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

চরফ্যাশন (দক্ষিণ) : চরফ্যাশন উপজেলার তৎকালীন কর্মরত বর্তমানে বরিশালের মুলাদী উপজেলা আনসার ভিডিপি কর্মকর্তা মিজানুর রহমানের বিরুদ্ধে এক ইউনিয়ন দলনেত্রী ধর্ষণের অভিযোগ করেছেন। মঙ্গলবার তিনি উপপরিচালক বরিশাল রেঞ্জ আনসার ভিডিপি বরাবর বিচার দাবি করে লিখিত অভিযোগ করেছেন। অনুলিপিও বিভিন্ন দফতরে দিয়েছেন। এ ব্যাপারে মুলাদী উপজেলা আনসার-ভিডিপি কর্মকর্তা মিজানুর রহমানের মোবাইল ফোনে একাধিকবার কল দিলেও তিনি রিসিভ করেননি।