বিদেশগামীদের করোনা পরীক্ষার ফি সর্বোচ্চ ৩ হাজার টাকা
jugantor
বিদেশগামীদের করোনা পরীক্ষার ফি সর্বোচ্চ ৩ হাজার টাকা

  যুগান্তর রিপোর্ট  

২৯ অক্টোবর ২০২০, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

বেসরকারি হাসপাতালে বিদেশগামী যাত্রীদের কোভিড-১৯ পরীক্ষার ফি সর্বোচ্চ ৩ হাজার টাকা নির্ধারণ করেছে স্বাস্থ্য অধিদফতর। বুধবার অধিদফতরের পরিচালক (হাসপাতাল ও ক্লিনিকসমূহ) ডা. মো. ফরিদ হোসেন মিঞা স্বাক্ষরিত স্মারকে এই নির্দেশনাসহ ৯টি শর্ত দেয়া হয়েছে।

বলা হয়েছে, বিদেশগমনেচ্ছু যাত্রীদের কোভিড-১৯ মুক্ত সনদ প্রদানের ক্ষেত্রে দশটি প্রতিষ্ঠান নির্ধারণ করা হয়েছে। ওই দশটি প্রতিষ্ঠানের মালিক পক্ষের সঙ্গে এ পর্যন্ত দু’বার আলোচনা করা হয়েছে। ৯টি শর্তে তাদের কোভিড-১৯ মুক্ত সনদ প্রদানে অনুমতি দেয়া হয়েছে।

শর্তগুলো হল- ১. বিদেশগামী যাত্রীদের আরটিপিসিআর পরীক্ষা করতে সর্বোচ্চ ৩ হাজার টাকা নেয়া যাবে। ২. বিদেশে বাংলাদেশিদের সুনাম অক্ষুণ্ন রাখার স্বার্থে কোভিড-১৯ নমুনা সংগ্রহ, পরীক্ষা এবং সঠিক রিপোর্ট দিতে হবে। ৩. রিপোর্ট যেন ইমিগ্রেশন কর্তৃপক্ষ ওয়েবসাইটে দেখতে পায় সে জন্য সঠিক সময়ে তথ্য অভিজ্ঞ ড্যাটাএন্ট্রি অপারেটরদের মাধ্যমে স্বাস্থ্য অধিদফতরের ডিএইচআইএস২ সফটওয়্যারে এন্ট্রি দিতে হবে। ৪. যাত্রীদের পাসপোর্ট ও টিকিটের ফটোকপি যাচাই করে বিমান ছাড়ার ৭২ ঘণ্টার মধ্যে নমুনা সংগ্রহ করতে হবে। বিমান ছাড়ার কমপক্ষে ২৪ ঘণ্টা পূর্বে রিপোর্ট দিতে হবে। কোনোক্রমেই ৭২ ঘণ্টার আগে নমুনা নেয়া ও পরীক্ষা করা যাবে না। ৫. নমুনা সংগ্রহের জন্য যথাযথ স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণ করে ল্যাব প্রাঙ্গণে আলাদা নমুনা সংগ্রহ বুথ স্থাপন করতে হবে। ৬. অনুমতিপ্রাপ্ত ল্যাবগুলোকে আইইডিসিআরের কোয়ালিটি কন্ট্রোল যাচাইয়ের নিয়ম অনুসরণ করতে হবে এবং স্বাস্থ্য অধিদফতরের পরিদর্শন দল মানোত্তীর্ণ হতে হবে। ৭. যাত্রীদের সহায়তা করতে একটি হট লাইন নম্বর চালু করতে হবে, যা ২৪ ঘণ্টা খোলা রাখতে হবে। ৮. আরটিপিসিআর পরীক্ষার রিপোর্টে কোনো ভুল হলে তার জন্য সংশ্লিষ্ট ল্যাব কর্তৃপক্ষ দায়ী থাকবে। ৯. এসব শর্তের কোনো ব্যত্যয় হলে স্বাস্থ্য অধিদফতর ল্যাবসমূহের কোভিড-১৯ পরীক্ষার অনুমোদন বাতিল করতে পারবে।

এর আগে গত ২০ অক্টোবর বিদেশগামী যাত্রীদের কোভিড-১৯ মুক্ত সনদ প্রদানে আরও ১০ বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের আরটিপিসিআর ল্যাবকে মনোনয়ন দেয় স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের স্বাস্থ্য সেবা বিভাগ।

প্রতিষ্ঠানগুলো হল- আন্তর্জাতিক উদরাময় গবেষণা কেন্দ্র (আইসিডিডিআরবি), মহাখালী; ডিএমএফআর মলিকিউলার ল্যাব অ্যান্ড ডায়াগনস্টিকস, সোবহানবাগ; ল্যাব এইড লিঃ, ধানমণ্ডি; ইউনিভার্সেল মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল, মহাখালী; আইদেশী, মহাখালী; পপুলার ডায়াগনস্টিক সেন্টার, ধানমণ্ডি, ঢাকা; স্কয়ার হাসপাতাল, পান্থপথ; এভার কেয়ার হাসপাতাল, বসুন্ধরা, ঢাকা; প্রাভা ডায়াগনস্টিক, বনানী ও ইউনাইটেড হাসপাতাল, গুলশান।

বিদেশগামীদের করোনা পরীক্ষার ফি সর্বোচ্চ ৩ হাজার টাকা

 যুগান্তর রিপোর্ট 
২৯ অক্টোবর ২০২০, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

বেসরকারি হাসপাতালে বিদেশগামী যাত্রীদের কোভিড-১৯ পরীক্ষার ফি সর্বোচ্চ ৩ হাজার টাকা নির্ধারণ করেছে স্বাস্থ্য অধিদফতর। বুধবার অধিদফতরের পরিচালক (হাসপাতাল ও ক্লিনিকসমূহ) ডা. মো. ফরিদ হোসেন মিঞা স্বাক্ষরিত স্মারকে এই নির্দেশনাসহ ৯টি শর্ত দেয়া হয়েছে।

বলা হয়েছে, বিদেশগমনেচ্ছু যাত্রীদের কোভিড-১৯ মুক্ত সনদ প্রদানের ক্ষেত্রে দশটি প্রতিষ্ঠান নির্ধারণ করা হয়েছে। ওই দশটি প্রতিষ্ঠানের মালিক পক্ষের সঙ্গে এ পর্যন্ত দু’বার আলোচনা করা হয়েছে। ৯টি শর্তে তাদের কোভিড-১৯ মুক্ত সনদ প্রদানে অনুমতি দেয়া হয়েছে।

শর্তগুলো হল- ১. বিদেশগামী যাত্রীদের আরটিপিসিআর পরীক্ষা করতে সর্বোচ্চ ৩ হাজার টাকা নেয়া যাবে। ২. বিদেশে বাংলাদেশিদের সুনাম অক্ষুণ্ন রাখার স্বার্থে কোভিড-১৯ নমুনা সংগ্রহ, পরীক্ষা এবং সঠিক রিপোর্ট দিতে হবে। ৩. রিপোর্ট যেন ইমিগ্রেশন কর্তৃপক্ষ ওয়েবসাইটে দেখতে পায় সে জন্য সঠিক সময়ে তথ্য অভিজ্ঞ ড্যাটাএন্ট্রি অপারেটরদের মাধ্যমে স্বাস্থ্য অধিদফতরের ডিএইচআইএস২ সফটওয়্যারে এন্ট্রি দিতে হবে। ৪. যাত্রীদের পাসপোর্ট ও টিকিটের ফটোকপি যাচাই করে বিমান ছাড়ার ৭২ ঘণ্টার মধ্যে নমুনা সংগ্রহ করতে হবে। বিমান ছাড়ার কমপক্ষে ২৪ ঘণ্টা পূর্বে রিপোর্ট দিতে হবে। কোনোক্রমেই ৭২ ঘণ্টার আগে নমুনা নেয়া ও পরীক্ষা করা যাবে না। ৫. নমুনা সংগ্রহের জন্য যথাযথ স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণ করে ল্যাব প্রাঙ্গণে আলাদা নমুনা সংগ্রহ বুথ স্থাপন করতে হবে। ৬. অনুমতিপ্রাপ্ত ল্যাবগুলোকে আইইডিসিআরের কোয়ালিটি কন্ট্রোল যাচাইয়ের নিয়ম অনুসরণ করতে হবে এবং স্বাস্থ্য অধিদফতরের পরিদর্শন দল মানোত্তীর্ণ হতে হবে। ৭. যাত্রীদের সহায়তা করতে একটি হট লাইন নম্বর চালু করতে হবে, যা ২৪ ঘণ্টা খোলা রাখতে হবে। ৮. আরটিপিসিআর পরীক্ষার রিপোর্টে কোনো ভুল হলে তার জন্য সংশ্লিষ্ট ল্যাব কর্তৃপক্ষ দায়ী থাকবে। ৯. এসব শর্তের কোনো ব্যত্যয় হলে স্বাস্থ্য অধিদফতর ল্যাবসমূহের কোভিড-১৯ পরীক্ষার অনুমোদন বাতিল করতে পারবে।

এর আগে গত ২০ অক্টোবর বিদেশগামী যাত্রীদের কোভিড-১৯ মুক্ত সনদ প্রদানে আরও ১০ বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের আরটিপিসিআর ল্যাবকে মনোনয়ন দেয় স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের স্বাস্থ্য সেবা বিভাগ।

প্রতিষ্ঠানগুলো হল- আন্তর্জাতিক উদরাময় গবেষণা কেন্দ্র (আইসিডিডিআরবি), মহাখালী; ডিএমএফআর মলিকিউলার ল্যাব অ্যান্ড ডায়াগনস্টিকস, সোবহানবাগ; ল্যাব এইড লিঃ, ধানমণ্ডি; ইউনিভার্সেল মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল, মহাখালী; আইদেশী, মহাখালী; পপুলার ডায়াগনস্টিক সেন্টার, ধানমণ্ডি, ঢাকা; স্কয়ার হাসপাতাল, পান্থপথ; এভার কেয়ার হাসপাতাল, বসুন্ধরা, ঢাকা; প্রাভা ডায়াগনস্টিক, বনানী ও ইউনাইটেড হাসপাতাল, গুলশান।

 

ঘটনাপ্রবাহ : ছড়িয়ে পড়ছে করোনাভাইরাস