বিশ্বে ৬ কোটি ছাড়াল করোনা আক্রান্ত
jugantor
বিশ্বে ৬ কোটি ছাড়াল করোনা আক্রান্ত
একদিনে ফের রেকর্ড মৃত্যু

  যুগান্তর ডেস্ক  

২৬ নভেম্বর ২০২০, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

বিশ্বে গেল ২৪ ঘণ্টায় আরও প্রায় সাড়ে ৫ লাখ মানুষ করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। এতে রোগীর সংখ্যা ৬ কোটির ‘মাইলফলক’ ছাড়িয়ে গেছে। অন্যদিকে একদিনে ফের রেকর্ড মৃত্যু হয়েছে বিশ্বে। ২৪ ঘণ্টায় মারা গেছেন আরও ১১ হাজার ৭শ’ জন। এর আগে ১৮ নভেম্বর ১১ হাজার ২৪৬ জনের মৃত্যু হয়েছিল। এ নিয়ে করোনায় মোট প্রাণহানি ১৪ লাখের বেশি। এদিকে রাশিয়া দাবি করেছে, তাদের তৈরি করোনা ভ্যাকসিন ‘স্পুটনিক-ভি’ ৯৫ শতাংশ কার্যকর। খবর বিবিসি ও এএফপিসহ বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমের। বাংলাদেশ সময় বুধবার সন্ধ্যা সাড়ে ৬টা পর্যন্ত ওয়ার্ল্ডওমিটারসের তথ্য অনুযায়ী- বিশ্বে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ৬ কোটি ২ লাখ ৪০ হাজার ৬২ জন। মারা গেছেন ১৪ লাখ ১৭ হাজার ৮৭৪ জন। অবস্থা আশঙ্কাজনক ১ লাখ ৩ হাজার ৫৭০ জনের। সুস্থ হয়েছেন ৪ কোটি ১৬ লাখ ৮৩ হাজার ৯৯৫ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় বিশ্বে নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন ৫ লাখ ৪৩ হাজার ৩৭৯ জন। একই সময়ে বিশ্বে রেকর্ড ১১ হাজার ৭১৯ জনের মৃত্যু হয়েছে। এর মধ্যে শুধু যুক্তরাষ্ট্রেই মারা গেছেন ২ হাজারের বেশি।

বিশ্ব তালিকায় করোনা আক্রান্ত ও মৃত্যুতে শীর্ষে থাকা মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে আক্রান্ত ১ কোটি ২৯ লাখ ৫৮ হাজার ৮২০ জন, মারা গেছেন ২ লাখ ৬৫ হাজার ৯১১ জন। তালিকায় দ্বিতীয় স্থানে থাকা ভারতে রোগী ৯২ লাখ ২২ হাজার ২৫৮, মৃত্যু হয়েছে ১ লাখ ৩৪ হাজার ৭৭৩ জনের। বিশ্বে তৃতীয় স্থানে থাকা ব্রাজিলে আক্রান্ত ৬১ লাখ ২১ হাজার ৪০১, মারা গেছেন ১ লাখ ৭০ হাজার ১৯৭ জন। চতুর্থ স্থানে রাশিয়ায় করোনা রোগীর সংখ্যা ২১ লাখ ৬২ হাজার ৫২৯ জন। দেশটিতে মারা গেছেন ৩৭ হাজার ৫৪০ জন। পঞ্চম স্থানে ফ্রান্সে করোনা রোগীর সংখ্যা ২১ লাখ ৫৩ হাজার ৮৫১ জন। দেশটিতে মারা গেছেন ৫০ হাজার ২৩২ জন। ষষ্ঠ স্থানে আছে স্পেন। যুক্তরাজ্য সপ্তম। ইতালি অষ্টম। আর্জেন্টিনা নবম। কলম্বিয়া দশম। তালিকায় বাংলাদেশের অবস্থান ২৫তম।

গত বছরের ডিসেম্বরে চীনের উহানে প্রথম করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়। দেশটিতে করোনায় প্রথম কোনো রোগীর মৃত্যু হয় চলতি বছরের ৯ জানুয়ারি। তবে তার ঘোষণা আসে ১১ জানুয়ারি। চলতি বছরের ১৩ জানুয়ারি চীনের বাইরে প্রথম করোনা রোগী শনাক্ত হয় থাইল্যান্ডে। পরে বিভিন্ন দেশে করোনা ছড়িয়ে পড়ে। করোনার প্রাদুর্ভাবের পরিপ্রেক্ষিতে ৩০ জানুয়ারি জরুরি অবস্থা ঘোষণা করে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা। ২ ফেব্রুয়ারি চীনের বাইরে করোনায় প্রথম কোনো রোগীর মৃত্যুর ঘটনা ঘটে ফিলিপাইনে। ১১ ফেব্রুয়ারি বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা করোনাভাইরাস থেকে সৃষ্ট রোগের নামকরণ করে ‘কোভিড-১৯’।

রাশিয়ার ভ্যাকসিনও ৯৫ শতাংশ কার্যকর দাবি : রাশিয়ার তৈরি করোনা ভ্যাকসিন ‘স্পুটনিক-ভি’ দ্বিতীয় দফায় ৯৫ শতাংশ কার্যকর বলে দাবি করেছে দেশটি। যদিও প্রথম দফায় ৯২ শতাংশ কার্যকরী বলে দাবি করেছিল তারা। একইসঙ্গে এটি বিশ্বের সবচেয়ে সস্তা ভ্যাকসিন হবে বলে দাবি রাশিয়ার। মঙ্গলবার রাশিয়ার গামালেয়া রিসার্চ ইন্সটিটিউট অব এপিডেমিওলজি অ্যান্ড মাইক্রোবায়োলজি ও রাশিয়ান ডিরেক্ট ইনভেস্টমেন্ট ফান্ডের (আরডিআইএফ) পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, দ্বিতীয় দফায় প্রথম দফার ২৮ দিন পরে করোনা সংক্রমণ রুখতে ৯১.৪ শতাংশ কার্যকর হয়েছে ‘স্পুটনিক-ভি’। ৩৯টি কেসের মাধ্যমে এটা মূল্যায়ন করা হয়েছে। ৪২ দিন পর ভ্যাকসিনের কার্যকারিতা বেড়ে হয়েছে ৯৫ শতাংশ।

এর আগে যুক্তরাষ্ট্রের কোম্পানি মডার্না ও ফাইজার দাবি করে তাদের ভ্যাকসিন ৯৫ শতাংশ কার্যকর। তবে অক্সফোর্ডের ভ্যাকসিন ৭০ শতাংশ কার্যকর হবে বলে দাবি করা হয়।

বিশ্বে ৬ কোটি ছাড়াল করোনা আক্রান্ত

একদিনে ফের রেকর্ড মৃত্যু
 যুগান্তর ডেস্ক 
২৬ নভেম্বর ২০২০, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

বিশ্বে গেল ২৪ ঘণ্টায় আরও প্রায় সাড়ে ৫ লাখ মানুষ করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। এতে রোগীর সংখ্যা ৬ কোটির ‘মাইলফলক’ ছাড়িয়ে গেছে। অন্যদিকে একদিনে ফের রেকর্ড মৃত্যু হয়েছে বিশ্বে। ২৪ ঘণ্টায় মারা গেছেন আরও ১১ হাজার ৭শ’ জন। এর আগে ১৮ নভেম্বর ১১ হাজার ২৪৬ জনের মৃত্যু হয়েছিল। এ নিয়ে করোনায় মোট প্রাণহানি ১৪ লাখের বেশি। এদিকে রাশিয়া দাবি করেছে, তাদের তৈরি করোনা ভ্যাকসিন ‘স্পুটনিক-ভি’ ৯৫ শতাংশ কার্যকর। খবর বিবিসি ও এএফপিসহ বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমের। বাংলাদেশ সময় বুধবার সন্ধ্যা সাড়ে ৬টা পর্যন্ত ওয়ার্ল্ডওমিটারসের তথ্য অনুযায়ী- বিশ্বে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ৬ কোটি ২ লাখ ৪০ হাজার ৬২ জন। মারা গেছেন ১৪ লাখ ১৭ হাজার ৮৭৪ জন। অবস্থা আশঙ্কাজনক ১ লাখ ৩ হাজার ৫৭০ জনের। সুস্থ হয়েছেন ৪ কোটি ১৬ লাখ ৮৩ হাজার ৯৯৫ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় বিশ্বে নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন ৫ লাখ ৪৩ হাজার ৩৭৯ জন। একই সময়ে বিশ্বে রেকর্ড ১১ হাজার ৭১৯ জনের মৃত্যু হয়েছে। এর মধ্যে শুধু যুক্তরাষ্ট্রেই মারা গেছেন ২ হাজারের বেশি।

বিশ্ব তালিকায় করোনা আক্রান্ত ও মৃত্যুতে শীর্ষে থাকা মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে আক্রান্ত ১ কোটি ২৯ লাখ ৫৮ হাজার ৮২০ জন, মারা গেছেন ২ লাখ ৬৫ হাজার ৯১১ জন। তালিকায় দ্বিতীয় স্থানে থাকা ভারতে রোগী ৯২ লাখ ২২ হাজার ২৫৮, মৃত্যু হয়েছে ১ লাখ ৩৪ হাজার ৭৭৩ জনের। বিশ্বে তৃতীয় স্থানে থাকা ব্রাজিলে আক্রান্ত ৬১ লাখ ২১ হাজার ৪০১, মারা গেছেন ১ লাখ ৭০ হাজার ১৯৭ জন। চতুর্থ স্থানে রাশিয়ায় করোনা রোগীর সংখ্যা ২১ লাখ ৬২ হাজার ৫২৯ জন। দেশটিতে মারা গেছেন ৩৭ হাজার ৫৪০ জন। পঞ্চম স্থানে ফ্রান্সে করোনা রোগীর সংখ্যা ২১ লাখ ৫৩ হাজার ৮৫১ জন। দেশটিতে মারা গেছেন ৫০ হাজার ২৩২ জন। ষষ্ঠ স্থানে আছে স্পেন। যুক্তরাজ্য সপ্তম। ইতালি অষ্টম। আর্জেন্টিনা নবম। কলম্বিয়া দশম। তালিকায় বাংলাদেশের অবস্থান ২৫তম।

গত বছরের ডিসেম্বরে চীনের উহানে প্রথম করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়। দেশটিতে করোনায় প্রথম কোনো রোগীর মৃত্যু হয় চলতি বছরের ৯ জানুয়ারি। তবে তার ঘোষণা আসে ১১ জানুয়ারি। চলতি বছরের ১৩ জানুয়ারি চীনের বাইরে প্রথম করোনা রোগী শনাক্ত হয় থাইল্যান্ডে। পরে বিভিন্ন দেশে করোনা ছড়িয়ে পড়ে। করোনার প্রাদুর্ভাবের পরিপ্রেক্ষিতে ৩০ জানুয়ারি জরুরি অবস্থা ঘোষণা করে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা। ২ ফেব্রুয়ারি চীনের বাইরে করোনায় প্রথম কোনো রোগীর মৃত্যুর ঘটনা ঘটে ফিলিপাইনে। ১১ ফেব্রুয়ারি বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা করোনাভাইরাস থেকে সৃষ্ট রোগের নামকরণ করে ‘কোভিড-১৯’।

রাশিয়ার ভ্যাকসিনও ৯৫ শতাংশ কার্যকর দাবি : রাশিয়ার তৈরি করোনা ভ্যাকসিন ‘স্পুটনিক-ভি’ দ্বিতীয় দফায় ৯৫ শতাংশ কার্যকর বলে দাবি করেছে দেশটি। যদিও প্রথম দফায় ৯২ শতাংশ কার্যকরী বলে দাবি করেছিল তারা। একইসঙ্গে এটি বিশ্বের সবচেয়ে সস্তা ভ্যাকসিন হবে বলে দাবি রাশিয়ার। মঙ্গলবার রাশিয়ার গামালেয়া রিসার্চ ইন্সটিটিউট অব এপিডেমিওলজি অ্যান্ড মাইক্রোবায়োলজি ও রাশিয়ান ডিরেক্ট ইনভেস্টমেন্ট ফান্ডের (আরডিআইএফ) পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, দ্বিতীয় দফায় প্রথম দফার ২৮ দিন পরে করোনা সংক্রমণ রুখতে ৯১.৪ শতাংশ কার্যকর হয়েছে ‘স্পুটনিক-ভি’। ৩৯টি কেসের মাধ্যমে এটা মূল্যায়ন করা হয়েছে। ৪২ দিন পর ভ্যাকসিনের কার্যকারিতা বেড়ে হয়েছে ৯৫ শতাংশ।

এর আগে যুক্তরাষ্ট্রের কোম্পানি মডার্না ও ফাইজার দাবি করে তাদের ভ্যাকসিন ৯৫ শতাংশ কার্যকর। তবে অক্সফোর্ডের ভ্যাকসিন ৭০ শতাংশ কার্যকর হবে বলে দাবি করা হয়।