স্বেচ্ছাসেবকের বিরুদ্ধে পাল্টা মামলা সেরামের
jugantor
অক্সফোর্ডের টিকা নিয়ে অসুস্থ দাবি
স্বেচ্ছাসেবকের বিরুদ্ধে পাল্টা মামলা সেরামের
বিশ্বে আক্রান্ত ৬ কোটি ৩১ লাখ ছাড়াল

  যুগান্তর ডেস্ক  

০১ ডিসেম্বর ২০২০, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

ভারতে অক্সফোর্ডের করোনা টিকার ট্রায়ালে পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া দেখা দিয়েছে জানিয়ে ৫ কোটি রুপি দাবি করেছিলেন এক স্বেচ্ছাসেবক। এবার ৪০ বছর বয়সী সেই স্বেচ্ছাসেবকের দাবিকে উড়িয়ে দিয়ে তার বিরুদ্ধে পাল্টা ১শ’ কোটি রুপির মানহানি মামলা করল সেরাম ইন্সটিটিউট অব ইন্ডিয়া। সংস্থাটি ভারতে অক্সফোর্ডের টিকার উৎপাদন ও ট্রায়ালের দায়িত্ব পালন করছে। এদিকে বিশ্বে গেল ২৪ ঘণ্টায় আরও পাঁচ লাখ মানুষ করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। এতে মোট রোগীর সংখ্যা ৬ কোটি ৩১ লাখ ছাড়িয়ে গেছে। খবর জিনিউজ, বিবিসি ও এএফপিসহ বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমের।

জানা যায়, ২১ নভেম্বর সেরাম ইন্সটিটিউটকে আইনি নোটিশ পাঠিয়ে ওই ব্যক্তি দাবি করেন, সেরামের উৎপাদিত অক্সফোর্ডের করোনার সম্ভাব্য টিকা ‘কোভিশিল্ড’ নেয়ার পর তার স্নায়ুতন্ত্র প্রায় সম্পূর্ণ অকেজো হয়ে পড়ে। আচরণগত নানা পরিবর্তন আসে। এ কারণে ক্ষতিপূরণ হিসেবে তিনি পাঁচ কোটি রুপি দাবি করেন। এ ছাড়া অবিলম্বে টিকার ট্রায়াল বন্ধ রাখারও আবেদন জানান চেন্নাইয়ের এ বাসিন্দা।

তবে সেরাম ইন্সটিটিউট বলছে, ওই ব্যক্তির অভিযোগগুলো বিপজ্জনক ও ভ্রান্ত ধারণার ভিত্তিতে করা। স্বেচ্ছাসেবকের স্বাস্থ্যজনিত পরিস্থিতির প্রতি পূর্ণ সমবেদনা রয়েছে সেরামের। কিন্তু ভ্যাকসিন ট্রায়ালের সঙ্গে তার স্বাস্থ্য সমস্যার কোনো সম্পর্ক নেই। ওই স্বেচ্ছাসেবক তার স্বাস্থ্য সংকটের জন্য কোভিডের টিকার ট্রায়ালের বিরুদ্ধে মিথ্যা দোষারোপ করেছেন। তাই ১শ’ কোটি টাকার মানহানি মামলা করে ওই ব্যক্তিকে পাল্টা চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দিয়েছে সেরাম।

এদিকে বাংলাদেশ সময় সোমবার সন্ধ্যা সাড়ে ৬টা পর্যন্ত ওয়ার্ল্ডওমিটারসের তথ্য অনুযায়ী, বিশ্বে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ৬ কোটি ৩১ লাখ ৭২ হাজার ২৩ জন। মারা গেছেন ১৪ লাখ ৬৭ হাজার ১০১ জন। অবস্থা আশঙ্কাজনক ১ লাখ ৫ হাজার ১৯৪ জনের। সুস্থ হয়েছেন ৪ কোটি ৩৬ লাখ ৮২ হাজার ৭৯৯ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় বিশ্বে নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন ৫ লাখ ২ হাজার ২৫০ জন। একই সময়ে বিশ্বে ৭ হাজার ৩০৫ জনের মৃত্যু হয়েছে।

বিশ্বে করোনায় সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত যুক্তরাষ্ট্র। দেশটিতে রোগীর সংখ্যা ১ কোটি ৩৭ লাখ ৫১ হাজার ৩৩৭। দেশটিতে করোনায় মারা গেছেন ২ লাখ ৭৩ হাজার ১০১ জন। ক্ষতিগ্রস্ত দেশের তালিকায় ভারতের অবস্থান দ্বিতীয়। দেশটিতে রোগীর সংখ্যা ৯৪ লাখ ৩২ হাজার ৭৫। সেখানে করোনায় মারা গেছেন ১ লাখ ৩৭ হাজার ১৭৭ জন। ব্রাজিল আছে তৃতীয় অবস্থানে। সেখানে করোনা রোগীর সংখ্যা ৬৩ লাখ ১৪ হাজার ৭৪৫। দেশটিতে করোনায় মারা গেছেন ১ লাখ ৭২ হাজার ৮৪৮ জন।

চতুর্থ স্থানে রাশিয়ায় করোনা রোগীর সংখ্যা ২২ লাখ ৯৫ হাজার ৬৫৪ জন। দেশটিতে মারা গেছেন ৩৯ হাজার ৮৯৫ জন। পঞ্চম স্থানে ফ্রান্সে করোনা রোগীর সংখ্যা ২২ লাখ ১৮ হাজার ৪৮৩ জন। দেশটিতে মারা গেছেন ৫২ হাজার ৩২৫ জন।

অক্সফোর্ডের টিকা নিয়ে অসুস্থ দাবি

স্বেচ্ছাসেবকের বিরুদ্ধে পাল্টা মামলা সেরামের

বিশ্বে আক্রান্ত ৬ কোটি ৩১ লাখ ছাড়াল
 যুগান্তর ডেস্ক 
০১ ডিসেম্বর ২০২০, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

ভারতে অক্সফোর্ডের করোনা টিকার ট্রায়ালে পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া দেখা দিয়েছে জানিয়ে ৫ কোটি রুপি দাবি করেছিলেন এক স্বেচ্ছাসেবক। এবার ৪০ বছর বয়সী সেই স্বেচ্ছাসেবকের দাবিকে উড়িয়ে দিয়ে তার বিরুদ্ধে পাল্টা ১শ’ কোটি রুপির মানহানি মামলা করল সেরাম ইন্সটিটিউট অব ইন্ডিয়া। সংস্থাটি ভারতে অক্সফোর্ডের টিকার উৎপাদন ও ট্রায়ালের দায়িত্ব পালন করছে। এদিকে বিশ্বে গেল ২৪ ঘণ্টায় আরও পাঁচ লাখ মানুষ করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। এতে মোট রোগীর সংখ্যা ৬ কোটি ৩১ লাখ ছাড়িয়ে গেছে। খবর জিনিউজ, বিবিসি ও এএফপিসহ বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমের।

জানা যায়, ২১ নভেম্বর সেরাম ইন্সটিটিউটকে আইনি নোটিশ পাঠিয়ে ওই ব্যক্তি দাবি করেন, সেরামের উৎপাদিত অক্সফোর্ডের করোনার সম্ভাব্য টিকা ‘কোভিশিল্ড’ নেয়ার পর তার স্নায়ুতন্ত্র প্রায় সম্পূর্ণ অকেজো হয়ে পড়ে। আচরণগত নানা পরিবর্তন আসে। এ কারণে ক্ষতিপূরণ হিসেবে তিনি পাঁচ কোটি রুপি দাবি করেন। এ ছাড়া অবিলম্বে টিকার ট্রায়াল বন্ধ রাখারও আবেদন জানান চেন্নাইয়ের এ বাসিন্দা।

তবে সেরাম ইন্সটিটিউট বলছে, ওই ব্যক্তির অভিযোগগুলো বিপজ্জনক ও ভ্রান্ত ধারণার ভিত্তিতে করা। স্বেচ্ছাসেবকের স্বাস্থ্যজনিত পরিস্থিতির প্রতি পূর্ণ সমবেদনা রয়েছে সেরামের। কিন্তু ভ্যাকসিন ট্রায়ালের সঙ্গে তার স্বাস্থ্য সমস্যার কোনো সম্পর্ক নেই। ওই স্বেচ্ছাসেবক তার স্বাস্থ্য সংকটের জন্য কোভিডের টিকার ট্রায়ালের বিরুদ্ধে মিথ্যা দোষারোপ করেছেন। তাই ১শ’ কোটি টাকার মানহানি মামলা করে ওই ব্যক্তিকে পাল্টা চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দিয়েছে সেরাম।

এদিকে বাংলাদেশ সময় সোমবার সন্ধ্যা সাড়ে ৬টা পর্যন্ত ওয়ার্ল্ডওমিটারসের তথ্য অনুযায়ী, বিশ্বে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ৬ কোটি ৩১ লাখ ৭২ হাজার ২৩ জন। মারা গেছেন ১৪ লাখ ৬৭ হাজার ১০১ জন। অবস্থা আশঙ্কাজনক ১ লাখ ৫ হাজার ১৯৪ জনের। সুস্থ হয়েছেন ৪ কোটি ৩৬ লাখ ৮২ হাজার ৭৯৯ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় বিশ্বে নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন ৫ লাখ ২ হাজার ২৫০ জন। একই সময়ে বিশ্বে ৭ হাজার ৩০৫ জনের মৃত্যু হয়েছে।

বিশ্বে করোনায় সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত যুক্তরাষ্ট্র। দেশটিতে রোগীর সংখ্যা ১ কোটি ৩৭ লাখ ৫১ হাজার ৩৩৭। দেশটিতে করোনায় মারা গেছেন ২ লাখ ৭৩ হাজার ১০১ জন। ক্ষতিগ্রস্ত দেশের তালিকায় ভারতের অবস্থান দ্বিতীয়। দেশটিতে রোগীর সংখ্যা ৯৪ লাখ ৩২ হাজার ৭৫। সেখানে করোনায় মারা গেছেন ১ লাখ ৩৭ হাজার ১৭৭ জন। ব্রাজিল আছে তৃতীয় অবস্থানে। সেখানে করোনা রোগীর সংখ্যা ৬৩ লাখ ১৪ হাজার ৭৪৫। দেশটিতে করোনায় মারা গেছেন ১ লাখ ৭২ হাজার ৮৪৮ জন।

চতুর্থ স্থানে রাশিয়ায় করোনা রোগীর সংখ্যা ২২ লাখ ৯৫ হাজার ৬৫৪ জন। দেশটিতে মারা গেছেন ৩৯ হাজার ৮৯৫ জন। পঞ্চম স্থানে ফ্রান্সে করোনা রোগীর সংখ্যা ২২ লাখ ১৮ হাজার ৪৮৩ জন। দেশটিতে মারা গেছেন ৫২ হাজার ৩২৫ জন।