কোয়েটায় পাকিস্তান সেনাবাহিনীর বিরুদ্ধে বিক্ষোভ
jugantor
কোয়েটায় পাকিস্তান সেনাবাহিনীর বিরুদ্ধে বিক্ষোভ

  যুগান্তর ডেস্ক  

০৩ ডিসেম্বর ২০২০, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

পশতুনদের ওপর পাকিস্তান নিরাপত্তা বাহিনীর গুলির ঘটনার প্রতিবাদে কোয়েটায় বেলুচিস্তান প্রাদেশিক পার্লামেন্টের সামনে বিক্ষোভ হয়েছে। পশতুন তাহাফুজ মুভমেন্ট (পিটিএম) সোমবার বিক্ষোভের আয়োজন করে। খবর এএনআই।

পিটিএম নেতা মহসিন দাওয়ার এক টুইট বার্তায় জানান, চামানে রাষ্ট্রীয় নৃশংসতার বিরুদ্ধে কোয়েটায় বিক্ষোভ করছে পিটিএম। পাকিস্তানের সেনাবাহিনী চামনে বেসামরিক নাগরিক হত্যার ঘটনা এটাই প্রথম নয়। আমরা হত্যাকারীদের গ্রেফতার ও বিচারের দাবি জানাচ্ছি।

পিটিএম নেতা দাওয়ার ছাড়াও গিলগিট-বালতিস্তানের একটিভিস্ট সেনে হাসানান সেরিংও এ ঘটনার নিন্দা জানিয়েছেন। তিনি বলেন, কাশ্মীর নিয়ে মায়াকান্না দেখানো পাকিস্তান শাসকরা বালুচ ও পশতুনদের গুলির নিশানা হিসেবে ব্যবহার করেছে।

পাকিস্তানি সেনারা বেলুচিস্তানের চামানে পাক-আফগান সীমান্তের কাছে দুই শিশুকে গুলি করে হত্যা করেছিল।

পশতুন ব্যবসায়ী ও কয়েকজন সীমান্ত কর্মকর্তাদের মধ্যে সংঘর্ষের পর রোববার সেনা সদস্যরা চামান-স্পিন বোলডাক (আফগানিস্তান-পাকিস্তান) সীমান্ত গেট এলাকায় নিরস্ত্র পশতুনদের ওপর গুলি চালায়।

এ ঘটনার নিন্দা জানিয়ে মহসিন দাওয়ার পাকিস্তান সরকার প্রধানকে প্রশ্ন করে বলেন, যারা বেসামরিক নাগরিকদের ওপর হামলা করেছে তাদের বিচার করা হবে কিনা? মহসিন দাওয়ার টুইট বার্তায় আরও বলেন, চামানে নিরস্ত্র বেসামরিক নাগরিকদের ওপর গুলি চালানোর তীব্র নিন্দা জানাচ্ছি। নিরাপত্তা বাহিনী নিষ্ঠুরভাবে আমাদের লোকদের ওপর হামলা চালিয়ে যাচ্ছে। কোন আইনে সেনাদের নিরস্ত্র বেসামরিক নাগরিকদের ওপর গুলি চালানোর অনুমতি দেয়া হচ্ছে।

কোয়েটায় পাকিস্তান সেনাবাহিনীর বিরুদ্ধে বিক্ষোভ

 যুগান্তর ডেস্ক 
০৩ ডিসেম্বর ২০২০, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

পশতুনদের ওপর পাকিস্তান নিরাপত্তা বাহিনীর গুলির ঘটনার প্রতিবাদে কোয়েটায় বেলুচিস্তান প্রাদেশিক পার্লামেন্টের সামনে বিক্ষোভ হয়েছে। পশতুন তাহাফুজ মুভমেন্ট (পিটিএম) সোমবার বিক্ষোভের আয়োজন করে। খবর এএনআই।

পিটিএম নেতা মহসিন দাওয়ার এক টুইট বার্তায় জানান, চামানে রাষ্ট্রীয় নৃশংসতার বিরুদ্ধে কোয়েটায় বিক্ষোভ করছে পিটিএম। পাকিস্তানের সেনাবাহিনী চামনে বেসামরিক নাগরিক হত্যার ঘটনা এটাই প্রথম নয়। আমরা হত্যাকারীদের গ্রেফতার ও বিচারের দাবি জানাচ্ছি।

পিটিএম নেতা দাওয়ার ছাড়াও গিলগিট-বালতিস্তানের একটিভিস্ট সেনে হাসানান সেরিংও এ ঘটনার নিন্দা জানিয়েছেন। তিনি বলেন, কাশ্মীর নিয়ে মায়াকান্না দেখানো পাকিস্তান শাসকরা বালুচ ও পশতুনদের গুলির নিশানা হিসেবে ব্যবহার করেছে।

পাকিস্তানি সেনারা বেলুচিস্তানের চামানে পাক-আফগান সীমান্তের কাছে দুই শিশুকে গুলি করে হত্যা করেছিল।

পশতুন ব্যবসায়ী ও কয়েকজন সীমান্ত কর্মকর্তাদের মধ্যে সংঘর্ষের পর রোববার সেনা সদস্যরা চামান-স্পিন বোলডাক (আফগানিস্তান-পাকিস্তান) সীমান্ত গেট এলাকায় নিরস্ত্র পশতুনদের ওপর গুলি চালায়।

এ ঘটনার নিন্দা জানিয়ে মহসিন দাওয়ার পাকিস্তান সরকার প্রধানকে প্রশ্ন করে বলেন, যারা বেসামরিক নাগরিকদের ওপর হামলা করেছে তাদের বিচার করা হবে কিনা? মহসিন দাওয়ার টুইট বার্তায় আরও বলেন, চামানে নিরস্ত্র বেসামরিক নাগরিকদের ওপর গুলি চালানোর তীব্র নিন্দা জানাচ্ছি। নিরাপত্তা বাহিনী নিষ্ঠুরভাবে আমাদের লোকদের ওপর হামলা চালিয়ে যাচ্ছে। কোন আইনে সেনাদের নিরস্ত্র বেসামরিক নাগরিকদের ওপর গুলি চালানোর অনুমতি দেয়া হচ্ছে।