যুক্তরাষ্ট্রের ক্যাপিটলে ফের হামলার আশঙ্কা
jugantor
যুক্তরাষ্ট্রের ক্যাপিটলে ফের হামলার আশঙ্কা

  যুগান্তর ডেস্ক  

০৫ মার্চ ২০২১, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

যুক্তরাষ্ট্রের ক্যাপিটলে ফের সন্ত্রাসী হামলার আশঙ্কায় অধিবেশন স্থগিত করেছে মার্কিন প্রতিনিধি পরিষদ। পাশাপাশি সেখানকার নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে। এর আগে ৬ জানুয়ারি মার্কিন কংগ্রেসের এই ভবনটিতে সাবেক প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের উগ্রপন্থি সমর্থকরা হামলা চালিয়েছিল, তখন একজন পুলিশসহ পাঁচজন নিহত হয়েছিলেন।

বুধবার ক্যাপিটল পুলিশ জানায়, একটি চরমপন্থি গোষ্ঠী নিরাপত্তা ব্যবস্থা ভেঙে ভবনটিতে ঢুকে পড়ার চক্রান্ত করছে। পুলিশের কাছ থেকে এই সতর্ক বার্তা পাওয়ার পর যুক্তরাষ্ট্র কংগ্রেসের নিুকক্ষ প্রতিনিধি পরিষদ তাদের বৃহস্পতিবারের অধিবেশন বাতিল করে। পরিষদের ওই অধিবেশনে পুলিশের সংস্কার নিয়ে আলোচনা ও ভোট হওয়ার কথা ছিল।

যুক্তরাষ্ট্রের কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থা এফবিআই ও ডিপার্টমেন্ট অব হোমল্যান্ড সিকিউরিটি সম্প্রতি এক বিবৃতিতে বলেছে, অজ্ঞাত সশস্ত্র চরমপন্থি গোষ্ঠী ৪ মার্চ অথবা ওই সময়ের পরে মার্কিন ক্যাপিটলের নিয়ন্ত্রণ নেয়া এবং ডেমোক্র্যাট আইনপ্রণেতাদের সরিয়ে দেওয়ার পরিকল্পনা নিয়ে ফেব্রুয়ারির শেষদিকে আলোচনা করছিল। এতে অংশগ্রহণের জন্য হাজার হাজার মানুষকে ওয়াশিংটন ডিসি যেতে অনুপ্রাণিত করার উচ্চাভিলাষী পরিকল্পনা নিয়েও কথা বলছিল তারা।

গোয়েন্দাদের এ হুঁশিয়ারির পরিপ্রেক্ষিতে ক্যাপিটল পুলিশ এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, ক্যাপিটল ভবনে নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে। কংগ্রেস, জনসাধারণ ও পুলিশ কর্মকর্তাদের সুরক্ষা নিশ্চিত করতে আমরা ইতোমধ্যে অবকাঠামো নির্মাণ এবং উল্লেখযোগ্যভাবে জনবল বৃদ্ধি করেছি। স্পর্শকাতর হওয়ায় এ বিষয়ে বেশি কিছু জানানো যাচ্ছে না বলেও বিবৃতিতে উল্লেখ করা হয়।

এর আগে ক্যাপিটল ভবনে হামলায় জড়িত থাকার জন্য যুক্তরাষ্ট্রের বিচার বিভাগ তিন শতাধিক ব্যক্তির বিরুদ্ধে অভিযোগ এনেছে।

যাদের গ্রেফতার করা হয়েছে তাদের মধ্যে ডানপন্থি গোষ্ঠী ওথ ক্রিপার্স, থ্রি পার্সেন্টার্স এবং প্রাউড বয়ের সদস্যরা রয়েছেন।

এদের মধ্যে ওথ ক্রিপার্স ও থ্রি পার্সেন্টার্স সশস্ত্র চরমপন্থি গোষ্ঠী। ওই ঘটনায় সারা বিশ্বে ব্যাপক সমালোচনা শুরু হয় এবং যুক্তরাষ্ট্রে গণতন্ত্রের ইতিহাসে কালিমা লেপনে দায়ী বলে অভিযুক্ত হন ডোনাল্ড ট্রাম্প।

যুক্তরাষ্ট্রের ক্যাপিটলে ফের হামলার আশঙ্কা

 যুগান্তর ডেস্ক 
০৫ মার্চ ২০২১, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

যুক্তরাষ্ট্রের ক্যাপিটলে ফের সন্ত্রাসী হামলার আশঙ্কায় অধিবেশন স্থগিত করেছে মার্কিন প্রতিনিধি পরিষদ। পাশাপাশি সেখানকার নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে। এর আগে ৬ জানুয়ারি মার্কিন কংগ্রেসের এই ভবনটিতে সাবেক প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের উগ্রপন্থি সমর্থকরা হামলা চালিয়েছিল, তখন একজন পুলিশসহ পাঁচজন নিহত হয়েছিলেন।

বুধবার ক্যাপিটল পুলিশ জানায়, একটি চরমপন্থি গোষ্ঠী নিরাপত্তা ব্যবস্থা ভেঙে ভবনটিতে ঢুকে পড়ার চক্রান্ত করছে। পুলিশের কাছ থেকে এই সতর্ক বার্তা পাওয়ার পর যুক্তরাষ্ট্র কংগ্রেসের নিুকক্ষ প্রতিনিধি পরিষদ তাদের বৃহস্পতিবারের অধিবেশন বাতিল করে। পরিষদের ওই অধিবেশনে পুলিশের সংস্কার নিয়ে আলোচনা ও ভোট হওয়ার কথা ছিল।

যুক্তরাষ্ট্রের কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থা এফবিআই ও ডিপার্টমেন্ট অব হোমল্যান্ড সিকিউরিটি সম্প্রতি এক বিবৃতিতে বলেছে, অজ্ঞাত সশস্ত্র চরমপন্থি গোষ্ঠী ৪ মার্চ অথবা ওই সময়ের পরে মার্কিন ক্যাপিটলের নিয়ন্ত্রণ নেয়া এবং ডেমোক্র্যাট আইনপ্রণেতাদের সরিয়ে দেওয়ার পরিকল্পনা নিয়ে ফেব্রুয়ারির শেষদিকে আলোচনা করছিল। এতে অংশগ্রহণের জন্য হাজার হাজার মানুষকে ওয়াশিংটন ডিসি যেতে অনুপ্রাণিত করার উচ্চাভিলাষী পরিকল্পনা নিয়েও কথা বলছিল তারা।

গোয়েন্দাদের এ হুঁশিয়ারির পরিপ্রেক্ষিতে ক্যাপিটল পুলিশ এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, ক্যাপিটল ভবনে নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে। কংগ্রেস, জনসাধারণ ও পুলিশ কর্মকর্তাদের সুরক্ষা নিশ্চিত করতে আমরা ইতোমধ্যে অবকাঠামো নির্মাণ এবং উল্লেখযোগ্যভাবে জনবল বৃদ্ধি করেছি। স্পর্শকাতর হওয়ায় এ বিষয়ে বেশি কিছু জানানো যাচ্ছে না বলেও বিবৃতিতে উল্লেখ করা হয়।

এর আগে ক্যাপিটল ভবনে হামলায় জড়িত থাকার জন্য যুক্তরাষ্ট্রের বিচার বিভাগ তিন শতাধিক ব্যক্তির বিরুদ্ধে অভিযোগ এনেছে।

যাদের গ্রেফতার করা হয়েছে তাদের মধ্যে ডানপন্থি গোষ্ঠী ওথ ক্রিপার্স, থ্রি পার্সেন্টার্স এবং প্রাউড বয়ের সদস্যরা রয়েছেন।

এদের মধ্যে ওথ ক্রিপার্স ও থ্রি পার্সেন্টার্স সশস্ত্র চরমপন্থি গোষ্ঠী। ওই ঘটনায় সারা বিশ্বে ব্যাপক সমালোচনা শুরু হয় এবং যুক্তরাষ্ট্রে গণতন্ত্রের ইতিহাসে কালিমা লেপনে দায়ী বলে অভিযুক্ত হন ডোনাল্ড ট্রাম্প।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন