খোলা আকাশের নিচে ব্রাহ্মণবাড়িয়া পৌরসভার বৈঠক
jugantor
হেফাজতের তাণ্ডবে ধ্বংসস্তূপ
খোলা আকাশের নিচে ব্রাহ্মণবাড়িয়া পৌরসভার বৈঠক

  যুগান্তর প্রতিবেদন, ব্রাহ্মণবাড়িয়া  

০৯ এপ্রিল ২০২১, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

হেফাজতে ইসলামের হরতাল চলাকালে ১৫৪ বছরের ঐতিহ্যবাহী ব্রাহ্মণবাড়িয়া পৌরসভা কার্যালয়ে হামলা চালিয়ে ভাঙচুর করা হয়েছে।

আসবাবপত্র ও গুরুত্বপূর্ণ নথিপত্র পুড়িয়ে দেওয়া হয়েছে। পৌরভবন এখন ধ্বংসস্তূপে পরিণত হয়েছে। এমন পরিস্থিতির মধ্যে বৃহস্পতিবার খোলা আকাশের নিচে নতুন মেয়রের দায়িত্বভার গ্রহণ অনুষ্ঠান এবং প্রথম বৈঠক হয়েছে।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া পৌরসভার প্রথম নির্বাচিত নারী মেয়র নায়ার কবির দ্বিতীয়বারের মতো মেয়াদের দায়িত্বভার গ্রহণ করেছেন। তিনি বলেন, ২৮ মার্চ হেফাজতের হরতাল চলাকালে তাণ্ডবের ঘটনায় ঐতিহ্যবাহী পৌরসভাটি এখন প্রাণহীন হয়ে পড়েছে।

সব নথিপত্র, রেকর্ডপত্র এবং দেড়শ’ বছরের ঐতিহ্যকে ধ্বংস করা হয়েছে। তাই বাধ্য হয়ে খোলা আকাশের নিচে রাস্তায় বসে মেয়রের দায়িত্বভার গ্রহণ করেছি।

এমন পরিস্থিতিতে সেবা থেকে পৌরসভার নাগরিকরা বঞ্চিত হওয়ায় তিনি দুঃখ প্রকাশ করেন। তিনি বলেন, নাগরিকসেবা অল্প সময়ের মধ্যে চালু করা হবে।

এজন্য তিনি সবার সহযোগিতা কামনা করেন। কার্যালয়ের সামনে তাঁবু টানিয়ে অস্থায়ী কার্যালয় ও তথ্যসেবা কেন্দ্র চালু করা হবে।

উল্লেখ্য, ২৮ মার্চ পুলিশ সুপার, সিভিল সার্জন, মৎস্য কর্মকর্তা, পৌরসভা, জেলা পরিষদ ও ভূমি কার্যালয়, আলাউদ্দিন সঙ্গীতাঙ্গন, আলাউদ্দিন খাঁ পৌর মিলনায়তন এবং খাঁটিহাতা হাইওয়ে থানা ভবনসহ বেশ কয়েকটি সরকারি-বেসরকারি স্থাপনায় হামলা চালিয়ে হেফাজতের কর্মী-সমর্থকরা ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগ করে। এতে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়।

আশুগঞ্জে পাঁচ শতাধিকজনকে আসামি করে মামলা : আশুগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগ নেতা আবু নাছের আহাম্মদের বাড়িতে হামলার ঘটনায় ৪৩ জনের নাম উল্লেখ করে ও অজ্ঞাত পাঁচ শতাধিকজনকে আসামি করে মামলা হয়েছে।

বুধবার আশুগঞ্জ থানায় করা মামলায় বিএনপি, জামায়াত ও ছাত্রদলের নেতাকর্মীর নাম রয়েছে। আবু নাছেরের ভাই আবু রেজভী বাদী হয়ে মামলাটি করেন।

মামলায় আশুগঞ্জ উপজেলা বিএনপির আহ্বায়ক হাজি শাহজাহান সিরাজ, সদস্য সচিব হাবিবুর রহমান, জামায়াত আমির তাজুল ইসলাম, হাজি মিজানুর রহমান খাঁ, কামাল হোসেন জয়, মাঈন উদ্দিন মোল্লা, জসিম উদ্দিনসহ ৪৩ জনের নাম উল্লেখ করা হয়।

হেফাজতের তাণ্ডবে ধ্বংসস্তূপ

খোলা আকাশের নিচে ব্রাহ্মণবাড়িয়া পৌরসভার বৈঠক

 যুগান্তর প্রতিবেদন, ব্রাহ্মণবাড়িয়া 
০৯ এপ্রিল ২০২১, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

হেফাজতে ইসলামের হরতাল চলাকালে ১৫৪ বছরের ঐতিহ্যবাহী ব্রাহ্মণবাড়িয়া পৌরসভা কার্যালয়ে হামলা চালিয়ে ভাঙচুর করা হয়েছে।

আসবাবপত্র ও গুরুত্বপূর্ণ নথিপত্র পুড়িয়ে দেওয়া হয়েছে। পৌরভবন এখন ধ্বংসস্তূপে পরিণত হয়েছে। এমন পরিস্থিতির মধ্যে বৃহস্পতিবার খোলা আকাশের নিচে নতুন মেয়রের দায়িত্বভার গ্রহণ অনুষ্ঠান এবং প্রথম বৈঠক হয়েছে।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া পৌরসভার প্রথম নির্বাচিত নারী মেয়র নায়ার কবির দ্বিতীয়বারের মতো মেয়াদের দায়িত্বভার গ্রহণ করেছেন। তিনি বলেন, ২৮ মার্চ হেফাজতের হরতাল চলাকালে তাণ্ডবের ঘটনায় ঐতিহ্যবাহী পৌরসভাটি এখন প্রাণহীন হয়ে পড়েছে।

সব নথিপত্র, রেকর্ডপত্র এবং দেড়শ’ বছরের ঐতিহ্যকে ধ্বংস করা হয়েছে। তাই বাধ্য হয়ে খোলা আকাশের নিচে রাস্তায় বসে মেয়রের দায়িত্বভার গ্রহণ করেছি।

এমন পরিস্থিতিতে সেবা থেকে পৌরসভার নাগরিকরা বঞ্চিত হওয়ায় তিনি দুঃখ প্রকাশ করেন। তিনি বলেন, নাগরিকসেবা অল্প সময়ের মধ্যে চালু করা হবে।

এজন্য তিনি সবার সহযোগিতা কামনা করেন। কার্যালয়ের সামনে তাঁবু টানিয়ে অস্থায়ী কার্যালয় ও তথ্যসেবা কেন্দ্র চালু করা হবে।

উল্লেখ্য, ২৮ মার্চ পুলিশ সুপার, সিভিল সার্জন, মৎস্য কর্মকর্তা, পৌরসভা, জেলা পরিষদ ও ভূমি কার্যালয়, আলাউদ্দিন সঙ্গীতাঙ্গন, আলাউদ্দিন খাঁ পৌর মিলনায়তন এবং খাঁটিহাতা হাইওয়ে থানা ভবনসহ বেশ কয়েকটি সরকারি-বেসরকারি স্থাপনায় হামলা চালিয়ে হেফাজতের কর্মী-সমর্থকরা ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগ করে। এতে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়।

আশুগঞ্জে পাঁচ শতাধিকজনকে আসামি করে মামলা : আশুগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগ নেতা আবু নাছের আহাম্মদের বাড়িতে হামলার ঘটনায় ৪৩ জনের নাম উল্লেখ করে ও অজ্ঞাত পাঁচ শতাধিকজনকে আসামি করে মামলা হয়েছে।

বুধবার আশুগঞ্জ থানায় করা মামলায় বিএনপি, জামায়াত ও ছাত্রদলের নেতাকর্মীর নাম রয়েছে। আবু নাছেরের ভাই আবু রেজভী বাদী হয়ে মামলাটি করেন।

মামলায় আশুগঞ্জ উপজেলা বিএনপির আহ্বায়ক হাজি শাহজাহান সিরাজ, সদস্য সচিব হাবিবুর রহমান, জামায়াত আমির তাজুল ইসলাম, হাজি মিজানুর রহমান খাঁ, কামাল হোসেন জয়, মাঈন উদ্দিন মোল্লা, জসিম উদ্দিনসহ ৪৩ জনের নাম উল্লেখ করা হয়।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন