টাইটানিকের প্রথম মেন্যু নিলামে

  যুগান্তর ডেস্ক ২৩ এপ্রিল ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

টাইটানিকের প্রথম মেন্যু নিলামে

টাইটানিক জাহাজে সরবরাহ করা প্রথম খাবারের মেন্যু কার্ড নিলামে ১ লাখ ইউরোতে বিক্রি হয়েছে। ১৯১২ সালের ২ এপ্রিল প্রথম মধ্যাহ্নভোজ অনুষ্ঠিত হয়। এখানেই ওই মেন্যু কার্ডটি দেয়া হয়।

জাহাজটি সাগরে ভাসার প্রথম দিনে কর্মকর্তা ও ক্রুদের ওই মধ্যাহ্নভোজে মিষ্টি রুটি ও ভেড়ার গোশত সরবরাহ করা হয়েছিল। টাইটানিক দুর্ঘটনায় আকস্মিকভাবে বেঁচে যাওয়া এক কর্মকর্তা চার্লস লাইটোলার তার স্ত্রীকে এটি দেন। ১০ এপ্রিল সাউদাম্পটন থেকে টাইটানিক যাত্রা শুরুর আগে স্ত্রীর কাছে মেন্যুটি দেন তিনি।

নিলামের আয়োজক অ্যালেন অলড্রিজ বলেন, সংরক্ষণে থাকা কয়েকটি বিরল জিনিসের মধ্যে এটি একটি। ইংল্যান্ডের উইল্টশায়ারের ডেভিজে অনলাইন নিলাম সংস্থা হেনরি অলড্রিজ অ্যান্ড সন শনিবার একজন ব্রিটিশ সংগ্রাহকের কাছে এটি বিক্রি করে।

এছাড়া জাহাজের চার্ট রুমের একটি চাবি টেক্সাসের এক সংগ্রাহকের কাছে ৭৮ হাজার ইউরো এবং একটি ব্যাজ ৫৭ হাজার ইউরোতে বিক্রি করা হয়েছে। ওই ব্যাজের মালিক ছিলেন থমাস মুলেন, তার শরীরে এটি পাওয়া যায়। অলড্রিজ জানান, বিখ্যাত এই মেন্যু কার্ডটির বয়স শত বছরের বেশি। শতাব্দী পেরোনো ঐতিহাসিক হলুদরঙা কার্ডটির যথাযথ মূল্য পাওয়ায় আমরা খুশি।

১৯১২ সালের ২ এপ্রিল জাহাজের কর্মকর্তা, ক্রুরা প্রথম মধ্যাহ্নভোজ করেন। ১৫ এপ্রিল আটলান্টিকের অতলে ডুবে যায় সে সময়কার বিলাসবহুল টাইটানিক। হিমশৈলে ধাক্কা খেয়ে মর্মান্তিক পরিণতি হয় জাহাজটির।

প্রথম যাত্রায় টাইটানিক তখন ইংল্যান্ডের সাউথহ্যামটন থেকে নিউইয়র্ক যাচ্ছিল। মর্মান্তিক ওই দুর্ঘটনায় মৃত্যু হয় প্রায় দেড় হাজার মানুষের। বেঁচে গিয়েছিলেন প্রথম শ্রেণীর যাত্রীদের অনেকেই। সৌভাগ্যবানদের একজন চার্লস লাইটোলার।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter