হারের বৃত্ত ভাঙার চ্যালেঞ্জ মুমিনুলদের
jugantor
হারের বৃত্ত ভাঙার চ্যালেঞ্জ মুমিনুলদের
বাংলাদেশ-শ্রীলংকা প্রথম টেস্ট পাল্লেকেলেতে আজ শুরু

  ক্রীড়া ডেস্ক  

২১ এপ্রিল ২০২১, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ঘরের মাঠে দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজে ২-০তে হারার পর নিউজিল্যান্ডে সাদা বলের সফরে বাংলাদেশের ফলাফল ধবধবে সাদা। ওয়ানডে ও টি ২০-দুই সিরিজে টানা ছয় ম্যাচে হার।

অর্থাৎ, তিন ফরম্যাটে শেষ আটটি আন্তর্জাতিক ম্যাচেই হেরেছে বাংলাদেশ। এই পটভূমিতে পাল্লেকেলেতে আজ স্বাগতিক শ্রীলংকার বিপক্ষে দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজ শুরু মুমিনুল, মুশফিকদের। প্রশ্ন-ফরম্যাট বদলের পর সাদা বল থেকে লাল বলে ফিরে ভাগ্য কি বদলাবে বাংলাদেশের? বিশেষ করে দেশের বাইরে সাদা পোশাকের ক্রিকেটে বাংলাদেশের পারফরম্যান্স যখন মোটেও আশাপ্রদ নয়।

শুধু দেশের বাইরে কেন, নিজেদের আঙিনায়ও খর্বশক্তির ক্যারিবীয়দের কাছে নাকাল হতে হয়েছে তামিম ইকবালদের। সব মিলিয়ে শেষ নয় টেস্টের আটটিতেই হেরেছে বাংলাদেশ, যার পাঁচটি ইনিংস ব্যবধানে।

এই না-পারাটা ভীষণ এক চাপ হয়ে জগদ্দল পাথরের মতো বুকে চেপে বসার কথা। তবুও টেস্ট অধিনায়ক মুমিনুল হক তা মানতে রাজি নন। চাপটাপ ওসব কিছু নয়। না তার নিজের জন্য, না দলের জন্য। অধিনায়ক হলে এসব কথা বলতে হয়। দলকে চাঙা রাখার জন্য। এটা এক ধরনের মনস্তত্ত্ব। কিন্তু বাস্তবতা হলো, সাকিব আল হাসান ও মোস্তাফিজুর রহমানের অনুপস্থিতিতে অদৃশ্য একটা চাপ অনুভব করবেন মুমিনুল। সাকিব ও মোস্তাফিজ দুজনই খেলছেন আইপিএলে।

তার মানে, ব্যাটিংয়ে অতিমাত্রায় নির্ভর করতে হবে তামিম ইকবাল, মুশফিকুর রহিম ও মুমিনুলের ওপর। বোলিংয়ে মেহেদী হাসান মিরাজ ও আবু জায়েদ রাহি। ২১ জনের প্রাথমিক দল কাল ছোট করে ১৫ জনে কমিয়ে আনা হয়েছে। তাতে টিকে গেছেন তরুণ বাঁ-হাতি পেসার শরিফুল ইসলাম। চূড়ান্ত দলে নেই সাকিবের জায়গায় সুযোগ পাওয়া অলরাউন্ডার শুভাগত হোম। মূল দলে জায়গা হয়নি নাঈম হাসান, সৈয়দ খালেদ আহমেদ, মুকিদুল ইসলাম, শহিদুল ইসলাম ও নুরুল হাসান সোহানেরও। সবশেষ ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে হোম সিরিজেও সোহান ও খালেদ প্রাথমিক দলে থেকে জায়গা পাননি মূল স্কোয়াডে।

অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপজয়ী দলের সদস্য শরিফুল সম্প্রতি নিউজিল্যান্ড সফরে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের স্বাদ পান টি ২০ দিয়ে। অভিষেক ম্যাচে ভালো না করলেও পরে দুই ম্যাচে তার বোলিং হয়েছে নজরকাড়া। ১৯ বছর বয়সি এই পেসার প্রথমবার সুযোগ পেলেন অভিজাত সংস্করণের দলেও।

সৌম্য সরকার না থাকায় তামিমের উদ্বোধনী জুটি হতে পারেন সাদমান ইসলাম। তিনে সাইফ হাসান, যিনি দুদিনের অনুশীলন ম্যাচে ভালো ব্যাটিং করেছেন। বাংলাদেশের জন্য অনুপ্রেরণা হতে পারে দুটি।

এক. ২০১৭ সালের ১৯ মার্চ দ্বীপদেশে নিজেদের শততম টেস্টে প্রথম জয়, যা শ্রীলংকার বিপক্ষে বাংলাদেশের প্রথম টেস্ট জয়। দুই. পাল্লেকেলেতে শেষ দুই ম্যাচে শ্রীলংকা হেরেছে ভারত ও ইংল্যান্ডের কাছে। বাংলাদেশ এই প্রথম সেখানে টেস্ট খেলছে। তার ওপর শেষবার ঘরের মাঠে ইংল্যান্ড ও দক্ষিণ আফ্রিকা সফরে টেস্ট সিরিজে হেরেছে লংকানরা। তবে এসবই তাত্ত্বিক কথা। মাঠে প্রতিটি সেশনে প্রয়োগ ক্ষমতায় যারা এগিয়ে থাকবে, পাঁচদিনের টেস্টে তারাই সফলতার মুখ দেখবে।

হারের বৃত্ত ভাঙার চ্যালেঞ্জ মুমিনুলদের

বাংলাদেশ-শ্রীলংকা প্রথম টেস্ট পাল্লেকেলেতে আজ শুরু
 ক্রীড়া ডেস্ক 
২১ এপ্রিল ২০২১, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ঘরের মাঠে দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজে ২-০তে হারার পর নিউজিল্যান্ডে সাদা বলের সফরে বাংলাদেশের ফলাফল ধবধবে সাদা। ওয়ানডে ও টি ২০-দুই সিরিজে টানা ছয় ম্যাচে হার।

অর্থাৎ, তিন ফরম্যাটে শেষ আটটি আন্তর্জাতিক ম্যাচেই হেরেছে বাংলাদেশ। এই পটভূমিতে পাল্লেকেলেতে আজ স্বাগতিক শ্রীলংকার বিপক্ষে দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজ শুরু মুমিনুল, মুশফিকদের। প্রশ্ন-ফরম্যাট বদলের পর সাদা বল থেকে লাল বলে ফিরে ভাগ্য কি বদলাবে বাংলাদেশের? বিশেষ করে দেশের বাইরে সাদা পোশাকের ক্রিকেটে বাংলাদেশের পারফরম্যান্স যখন মোটেও আশাপ্রদ নয়।

শুধু দেশের বাইরে কেন, নিজেদের আঙিনায়ও খর্বশক্তির ক্যারিবীয়দের কাছে নাকাল হতে হয়েছে তামিম ইকবালদের। সব মিলিয়ে শেষ নয় টেস্টের আটটিতেই হেরেছে বাংলাদেশ, যার পাঁচটি ইনিংস ব্যবধানে।

এই না-পারাটা ভীষণ এক চাপ হয়ে জগদ্দল পাথরের মতো বুকে চেপে বসার কথা। তবুও টেস্ট অধিনায়ক মুমিনুল হক তা মানতে রাজি নন। চাপটাপ ওসব কিছু নয়। না তার নিজের জন্য, না দলের জন্য। অধিনায়ক হলে এসব কথা বলতে হয়। দলকে চাঙা রাখার জন্য। এটা এক ধরনের মনস্তত্ত্ব। কিন্তু বাস্তবতা হলো, সাকিব আল হাসান ও মোস্তাফিজুর রহমানের অনুপস্থিতিতে অদৃশ্য একটা চাপ অনুভব করবেন মুমিনুল। সাকিব ও মোস্তাফিজ দুজনই খেলছেন আইপিএলে।

তার মানে, ব্যাটিংয়ে অতিমাত্রায় নির্ভর করতে হবে তামিম ইকবাল, মুশফিকুর রহিম ও মুমিনুলের ওপর। বোলিংয়ে মেহেদী হাসান মিরাজ ও আবু জায়েদ রাহি। ২১ জনের প্রাথমিক দল কাল ছোট করে ১৫ জনে কমিয়ে আনা হয়েছে। তাতে টিকে গেছেন তরুণ বাঁ-হাতি পেসার শরিফুল ইসলাম। চূড়ান্ত দলে নেই সাকিবের জায়গায় সুযোগ পাওয়া অলরাউন্ডার শুভাগত হোম। মূল দলে জায়গা হয়নি নাঈম হাসান, সৈয়দ খালেদ আহমেদ, মুকিদুল ইসলাম, শহিদুল ইসলাম ও নুরুল হাসান সোহানেরও। সবশেষ ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে হোম সিরিজেও সোহান ও খালেদ প্রাথমিক দলে থেকে জায়গা পাননি মূল স্কোয়াডে।

অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপজয়ী দলের সদস্য শরিফুল সম্প্রতি নিউজিল্যান্ড সফরে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের স্বাদ পান টি ২০ দিয়ে। অভিষেক ম্যাচে ভালো না করলেও পরে দুই ম্যাচে তার বোলিং হয়েছে নজরকাড়া। ১৯ বছর বয়সি এই পেসার প্রথমবার সুযোগ পেলেন অভিজাত সংস্করণের দলেও।

সৌম্য সরকার না থাকায় তামিমের উদ্বোধনী জুটি হতে পারেন সাদমান ইসলাম। তিনে সাইফ হাসান, যিনি দুদিনের অনুশীলন ম্যাচে ভালো ব্যাটিং করেছেন। বাংলাদেশের জন্য অনুপ্রেরণা হতে পারে দুটি।

এক. ২০১৭ সালের ১৯ মার্চ দ্বীপদেশে নিজেদের শততম টেস্টে প্রথম জয়, যা শ্রীলংকার বিপক্ষে বাংলাদেশের প্রথম টেস্ট জয়। দুই. পাল্লেকেলেতে শেষ দুই ম্যাচে শ্রীলংকা হেরেছে ভারত ও ইংল্যান্ডের কাছে। বাংলাদেশ এই প্রথম সেখানে টেস্ট খেলছে। তার ওপর শেষবার ঘরের মাঠে ইংল্যান্ড ও দক্ষিণ আফ্রিকা সফরে টেস্ট সিরিজে হেরেছে লংকানরা। তবে এসবই তাত্ত্বিক কথা। মাঠে প্রতিটি সেশনে প্রয়োগ ক্ষমতায় যারা এগিয়ে থাকবে, পাঁচদিনের টেস্টে তারাই সফলতার মুখ দেখবে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন