মেহেরপুরে দোকান খোলার দাবিতে ব্যবসায়ীদের বিক্ষোভ
jugantor
মেহেরপুরে দোকান খোলার দাবিতে ব্যবসায়ীদের বিক্ষোভ

  মেহেরপুর প্রতিনিধি  

২১ এপ্রিল ২০২১, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

মেহেরপুর শহরে দুটি বাজারের ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেওয়ার দাবিতে বিক্ষোভ করেছেন ব্যবসায়ী ও কর্মচারীরা। বড়বাজারের ব্যবসায়ী সমিতি মঙ্গলবার সকালে ও দুপুরে হোটেল বাজার ব্যবসায়ী সমিতির সদস্যরা এ বিক্ষোভ করেন। এ সময় লকডাউন প্রত্যাহারের দাবিও জানান তারা।

বড়বাজার মোড়ে বিক্ষোভ শেষে সমাবেশে বড়বাজার ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি মনিরুজ্জামান দিপু বলেন, প্রধান সড়কের বাইরে শহরের প্রতিটি ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান খোলা আছে। অথচ প্রধান সড়কের কয়েকটি পাইকারি প্রতিষ্ঠান খুলতে দেওয়া হচ্ছে না। ছোট ছোট যানবাহন অতিরিক্ত যাত্রী নিয়ে দ্বিগুণ ভাড়ায় অবাধে যাতায়াত করছে। কাঁচাবাজার, পশুরহাট খোলা। শুধু শহরের প্রধান সড়ক লকডাউন দেখানো হচ্ছে। পক্ষপাত করা হচ্ছে প্রধান সড়কের ব্যবসাপ্রতিষ্ঠানের সঙ্গে। তিনি অবিলম্বে স্বাস্থ্যবিধি মেনে এসব প্রতিষ্ঠান খোলার অনুমতি দেওয়ার দাবি জানান।

এদিকে হোটেল বাজার ব্যবসায়ী সমিতির সাধারণ সম্পাদক জাহিদ ইকবাল সিমনের নেতৃত্বে বিক্ষোভ শেষে হোটেল বাজার মোড়ে সমাবেশ করেন সদস্যরা। সমাবেশে সিমন বলেন, আমাদের ব্যবসায়ীরা দোকান না খুললে কী খাবে? অনেক ব্যবসায়ী রমজানকে সামনে রেখে বাড়ি বন্ধক দিয়ে ব্যাংক ঋণ নিয়েছেন। ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান না খুললে সেই ঋণ কীভাবে পরিশোধ করবেন? প্রতিষ্ঠানের কর্মচারীদের বেতনইবা কোথায় থেকে দেবেন? এভাবে প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকলে সম্পত্তি হারিয়ে রাস্তায় ভিক্ষে করতে হবে ব্যবসায়ীদের। শিগগিরই স্বাস্থ্যবিধি মেনে ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান খোলার অনুমতি না দিলে ব্যবসায়ীরা আইন ভাঙতে বাধ্য হবেন। কারণ তাদের পিঠ দেয়ালে ঠেকে গেছে।

মেহেরপুরে দোকান খোলার দাবিতে ব্যবসায়ীদের বিক্ষোভ

 মেহেরপুর প্রতিনিধি 
২১ এপ্রিল ২০২১, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

মেহেরপুর শহরে দুটি বাজারের ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেওয়ার দাবিতে বিক্ষোভ করেছেন ব্যবসায়ী ও কর্মচারীরা। বড়বাজারের ব্যবসায়ী সমিতি মঙ্গলবার সকালে ও দুপুরে হোটেল বাজার ব্যবসায়ী সমিতির সদস্যরা এ বিক্ষোভ করেন। এ সময় লকডাউন প্রত্যাহারের দাবিও জানান তারা।

বড়বাজার মোড়ে বিক্ষোভ শেষে সমাবেশে বড়বাজার ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি মনিরুজ্জামান দিপু বলেন, প্রধান সড়কের বাইরে শহরের প্রতিটি ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান খোলা আছে। অথচ প্রধান সড়কের কয়েকটি পাইকারি প্রতিষ্ঠান খুলতে দেওয়া হচ্ছে না। ছোট ছোট যানবাহন অতিরিক্ত যাত্রী নিয়ে দ্বিগুণ ভাড়ায় অবাধে যাতায়াত করছে। কাঁচাবাজার, পশুরহাট খোলা। শুধু শহরের প্রধান সড়ক লকডাউন দেখানো হচ্ছে। পক্ষপাত করা হচ্ছে প্রধান সড়কের ব্যবসাপ্রতিষ্ঠানের সঙ্গে। তিনি অবিলম্বে স্বাস্থ্যবিধি মেনে এসব প্রতিষ্ঠান খোলার অনুমতি দেওয়ার দাবি জানান।

এদিকে হোটেল বাজার ব্যবসায়ী সমিতির সাধারণ সম্পাদক জাহিদ ইকবাল সিমনের নেতৃত্বে বিক্ষোভ শেষে হোটেল বাজার মোড়ে সমাবেশ করেন সদস্যরা। সমাবেশে সিমন বলেন, আমাদের ব্যবসায়ীরা দোকান না খুললে কী খাবে? অনেক ব্যবসায়ী রমজানকে সামনে রেখে বাড়ি বন্ধক দিয়ে ব্যাংক ঋণ নিয়েছেন। ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান না খুললে সেই ঋণ কীভাবে পরিশোধ করবেন? প্রতিষ্ঠানের কর্মচারীদের বেতনইবা কোথায় থেকে দেবেন? এভাবে প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকলে সম্পত্তি হারিয়ে রাস্তায় ভিক্ষে করতে হবে ব্যবসায়ীদের। শিগগিরই স্বাস্থ্যবিধি মেনে ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান খোলার অনুমতি না দিলে ব্যবসায়ীরা আইন ভাঙতে বাধ্য হবেন। কারণ তাদের পিঠ দেয়ালে ঠেকে গেছে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন