১২শ কোটি টাকার প্রকল্প নিয়ে মাঠে এনাম উল ইসলাম
jugantor
সিলেট-৩ উপনির্বাচন
১২শ কোটি টাকার প্রকল্প নিয়ে মাঠে এনাম উল ইসলাম

  সিলেট ব্যুরো  

০৫ মে ২০২১, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

সিলেট-৩ আসনের উপনির্বাচনে সম্ভাব্য প্রার্থী এনাম উল ইসলাম ফেঞ্চুগঞ্জ উপজেলার গ্রামকে শহরে উন্নীত করতে তৎপর। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ‘গ্রাম হবে শহর’ এমন স্বপ্ন বাস্তবায়নে তিনি উপজেলার মাইজগাঁও এলাকায় বাস্তবায়ন করছেন একটি পাইলট প্রকল্প। সম্পূর্ণ নিজস্ব অর্থায়নে প্রায় এক হাজার ২০০ কোটি টাকার এই প্রকল্পের অর্ধেকের বেশি কাজ ইতোমধ্যে শেষ হয়েছে।

এলাকাবাসী জানান, শিক্ষা, চিকিৎসাসহ অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ সেবার জন্য নানা সময়ে গ্রামীণ জনগোষ্ঠীর ভোগান্তি পোহাতে হয়। বিশেষ করে মাইজগাঁওসহ আশপাশের উপজেলায় বসবাসরত বিশাল জনগোষ্ঠীর উন্নত চিকিৎসার জন্য বিভাগীয় শহর সিলেটে যাতায়াত করতে হয়। এসব সমস্যা সমাধানের আশ্বাস দিয়ে সিলেট-৩ আসনের নির্বাচনী মাঠ চষে বেড়াচ্ছেন মনোনয়নপ্রত্যাশী এনাম উল ইসলাম। তার পাইলট প্রকল্পে উপজেলার শিক্ষা খাতেও আমূল পরিবর্তন আসবে বলে আশা স্থানীয়দের।

এনাম উল ইসলামের প্রকল্পের মধ্যে রয়েছে-পাইলট প্রকল্প, অপটিক্যাল ফাইবার কারখানা, হাজী সলিমুল্লা খাঁন প্যালেস হাউজ, হাসপাতাল, হাজী মো. আব্দুল মছব্বির নিকেতন, ইবতিদা অ্যান্ড কায়নাত নিকেতন, ইতমাম অ্যান্ড ইনকিয়াদ নিকেতন, স্যার এনাম উল ইসলাম কনভেনশন হল ইত্যাদি। তার হাতে নেওয়া প্রকল্পগুলোর প্রায় ৬০ ভাগ কাজ ইতোমধ্যেই সম্পন্ন হয়েছে।

বিষয়টি নিয়ে এনাম উল ইসলাম বলেন, আমার এই প্রকল্পের কাজ চলতি বছরের ডিসেম্বরে শেষ হবে। প্রধানমন্ত্রীর স্বপ্ন গ্রাম হবে শহর এ লক্ষ্যেই আমি মাইজগাঁওয়ে উদ্যোগটি গ্রহণ করেছি। তিনি জানান, ১২শ কোটি টাকার প্রকল্প বাস্তবায়নের পর সেখানে দুই লাখ মানুষের কর্মসংস্থানের সুযোগ হবে।

আসন্ন উপ-নির্বাচন নিয়ে তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যদি আমাকে বিবেচনায় নেন তবেই আমি নির্বাচন করব। আমি কথায় নয় কাজে বিশ্বাসী।

সিলেট-৩ উপনির্বাচন

১২শ কোটি টাকার প্রকল্প নিয়ে মাঠে এনাম উল ইসলাম

 সিলেট ব্যুরো 
০৫ মে ২০২১, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

সিলেট-৩ আসনের উপনির্বাচনে সম্ভাব্য প্রার্থী এনাম উল ইসলাম ফেঞ্চুগঞ্জ উপজেলার গ্রামকে শহরে উন্নীত করতে তৎপর। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ‘গ্রাম হবে শহর’ এমন স্বপ্ন বাস্তবায়নে তিনি উপজেলার মাইজগাঁও এলাকায় বাস্তবায়ন করছেন একটি পাইলট প্রকল্প। সম্পূর্ণ নিজস্ব অর্থায়নে প্রায় এক হাজার ২০০ কোটি টাকার এই প্রকল্পের অর্ধেকের বেশি কাজ ইতোমধ্যে শেষ হয়েছে।

এলাকাবাসী জানান, শিক্ষা, চিকিৎসাসহ অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ সেবার জন্য নানা সময়ে গ্রামীণ জনগোষ্ঠীর ভোগান্তি পোহাতে হয়। বিশেষ করে মাইজগাঁওসহ আশপাশের উপজেলায় বসবাসরত বিশাল জনগোষ্ঠীর উন্নত চিকিৎসার জন্য বিভাগীয় শহর সিলেটে যাতায়াত করতে হয়। এসব সমস্যা সমাধানের আশ্বাস দিয়ে সিলেট-৩ আসনের নির্বাচনী মাঠ চষে বেড়াচ্ছেন মনোনয়নপ্রত্যাশী এনাম উল ইসলাম। তার পাইলট প্রকল্পে উপজেলার শিক্ষা খাতেও আমূল পরিবর্তন আসবে বলে আশা স্থানীয়দের।

এনাম উল ইসলামের প্রকল্পের মধ্যে রয়েছে-পাইলট প্রকল্প, অপটিক্যাল ফাইবার কারখানা, হাজী সলিমুল্লা খাঁন প্যালেস হাউজ, হাসপাতাল, হাজী মো. আব্দুল মছব্বির নিকেতন, ইবতিদা অ্যান্ড কায়নাত নিকেতন, ইতমাম অ্যান্ড ইনকিয়াদ নিকেতন, স্যার এনাম উল ইসলাম কনভেনশন হল ইত্যাদি। তার হাতে নেওয়া প্রকল্পগুলোর প্রায় ৬০ ভাগ কাজ ইতোমধ্যেই সম্পন্ন হয়েছে।

বিষয়টি নিয়ে এনাম উল ইসলাম বলেন, আমার এই প্রকল্পের কাজ চলতি বছরের ডিসেম্বরে শেষ হবে। প্রধানমন্ত্রীর স্বপ্ন গ্রাম হবে শহর এ লক্ষ্যেই আমি মাইজগাঁওয়ে উদ্যোগটি গ্রহণ করেছি। তিনি জানান, ১২শ কোটি টাকার প্রকল্প বাস্তবায়নের পর সেখানে দুই লাখ মানুষের কর্মসংস্থানের সুযোগ হবে।

আসন্ন উপ-নির্বাচন নিয়ে তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যদি আমাকে বিবেচনায় নেন তবেই আমি নির্বাচন করব। আমি কথায় নয় কাজে বিশ্বাসী।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন