৩৮ স্ত্রী ও ৮৯ সন্তান রেখে জিওনার মৃত্যু
jugantor
৩৮ স্ত্রী ও ৮৯ সন্তান রেখে জিওনার মৃত্যু

  যুগান্তর ডেস্ক  

১৫ জুন ২০২১, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

জিওনা চানা

ভারতের মিজোরামের জিওনা চানা ১২৭ স্ত্রী-সন্তান রেখে মারা গেছেন। তাকে বিশ্বের সবচেয়ে বড় পরিবারের কর্তা বলে মনে করা হতো। তার বয়স হয়েছিল ৭৬ বছর। জিওনার ৩৩ জন নাতি-নাতনিও রয়েছে। খবর বিবিসি ও এনডিটিভির।

এক টুইট বার্তায় জিওনার মৃত্যুর খবর নিশ্চিত করেছেন মিজোরামের মুখ্যমন্ত্রী জোরামথাঙ্গা। তিনি জানান, রোববার স্থানীয় সময় বিকাল ৩টায় আইজাওয়ালের ত্রিনিটি হাসপাতালে শেষনিঃশ্বাস ত্যাগ করেন জিওনা। ডায়াবেটিস ও উচ্চ রক্তচাপে ভুগছিলেন তিনি।

মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ‘জিওনা চানা পরিবারের কারণে মিজোরাম ও জিওনার গ্রাম বাকতাওয়াং তালাংনুয়াম বড় ধরনের পর্যটনকেন্দ্রে পরিণত হয়েছিল। অত্যন্ত দুঃখভরা হৃদয় নিয়ে স্থানীয় বাসিন্দারা তাকে বিদায় জানাচ্ছেন। ৩৮ স্ত্রী ও ৮৯ সন্তান নিয়ে তিনি বিশ্বের সবচেয়ে বড় পরিবারের কর্তা ছিলেন। স্বর্গে তিনি ভালো থাকুন।’

চানা পওলা নামের একটি ধর্মীয় গোষ্ঠীর প্রধান ছিলেন জিওনা। তারা বহুবিবাহে বিশ্বাসী। ১৯৪৫ সালের ২১ জুলাই তার জন্ম হয়েছিল। তার প্রথম বিয়ে মাত্র ১৭ বছর বয়সে। পুরো পরিবার নিয়ে ‘চুয়ান থর রান’ নামের একটি চারতলা ভবনে থাকতেন।

‘চুয়ান থর রান’ মানে নতুন প্রজন্মের বাড়ি। পাহাড়ি অঞ্চলের বাড়িটিতে ১০০টি কক্ষ রয়েছে। তার স্ত্রী-সন্তান ও নাতি-নাতনিরা এই ভবনের বিভিন্ন কক্ষে বসবাস করলেও তাদের রান্নাঘর ছিল একই। নিজস্ব সম্পদ আর অনুসারীদের দেওয়া দানে চলে বিশাল এই পরিবারটি।

৩৮ স্ত্রী ও ৮৯ সন্তান রেখে জিওনার মৃত্যু

 যুগান্তর ডেস্ক 
১৫ জুন ২০২১, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ
জিওনা চানা
স্ত্রী-সন্তান ও নাতি-নাতনির সঙ্গে জিওনা চানা -ইন্টারনেট

ভারতের মিজোরামের জিওনা চানা ১২৭ স্ত্রী-সন্তান রেখে মারা গেছেন। তাকে বিশ্বের সবচেয়ে বড় পরিবারের কর্তা বলে মনে করা হতো। তার বয়স হয়েছিল ৭৬ বছর। জিওনার ৩৩ জন নাতি-নাতনিও রয়েছে। খবর বিবিসি ও এনডিটিভির।

এক টুইট বার্তায় জিওনার মৃত্যুর খবর নিশ্চিত করেছেন মিজোরামের মুখ্যমন্ত্রী জোরামথাঙ্গা। তিনি জানান, রোববার স্থানীয় সময় বিকাল ৩টায় আইজাওয়ালের ত্রিনিটি হাসপাতালে শেষনিঃশ্বাস ত্যাগ করেন জিওনা। ডায়াবেটিস ও উচ্চ রক্তচাপে ভুগছিলেন তিনি। 

মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ‘জিওনা চানা পরিবারের কারণে মিজোরাম ও জিওনার গ্রাম বাকতাওয়াং তালাংনুয়াম বড় ধরনের পর্যটনকেন্দ্রে পরিণত হয়েছিল। অত্যন্ত দুঃখভরা হৃদয় নিয়ে স্থানীয় বাসিন্দারা তাকে বিদায় জানাচ্ছেন। ৩৮ স্ত্রী ও ৮৯ সন্তান নিয়ে তিনি বিশ্বের সবচেয়ে বড় পরিবারের কর্তা ছিলেন। স্বর্গে তিনি ভালো থাকুন।’

চানা পওলা নামের একটি ধর্মীয় গোষ্ঠীর প্রধান ছিলেন জিওনা। তারা বহুবিবাহে বিশ্বাসী। ১৯৪৫ সালের ২১ জুলাই তার জন্ম হয়েছিল। তার প্রথম বিয়ে মাত্র ১৭ বছর বয়সে। পুরো পরিবার নিয়ে ‘চুয়ান থর রান’ নামের একটি চারতলা ভবনে থাকতেন।

‘চুয়ান থর রান’ মানে নতুন প্রজন্মের বাড়ি। পাহাড়ি অঞ্চলের বাড়িটিতে ১০০টি কক্ষ রয়েছে। তার স্ত্রী-সন্তান ও নাতি-নাতনিরা এই ভবনের বিভিন্ন কক্ষে বসবাস করলেও তাদের রান্নাঘর ছিল একই। নিজস্ব সম্পদ আর অনুসারীদের দেওয়া দানে চলে বিশাল এই পরিবারটি।
 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন