চার হাসপাতালে করোনা উপসর্গে মৃত্যু ৩৫
jugantor
চার হাসপাতালে করোনা উপসর্গে মৃত্যু ৩৫

  যুগান্তর ডেস্ক  

২৫ জুলাই ২০২১, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

রাজশাহী, বরিশাল, বগুড়া ও ফরিদপুরের চার হাসপাতালে করোনার উপসর্গ নিয়ে ৩৫ জনের মৃত্যু হয়েছে। এরমধ্যে বগুড়ার করোনা বিশেষায়িত মোহাম্মদ আলী হাসপাতালে মারা গেছেন সর্বোচ্চ ১৮ জন। এছাড়া রামেক হাসপাতালে ৪ জন, শেবাচিমে ১০ জন এবং ফরিদপুর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ৩ জন মারা গেছেন। শুক্রবার সকাল ৮টা থেকে শনিবার সকাল ৮টা পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টায় মারা যান তারা। এছাড়া দেশের বিভিন্ন জেলায় করোনা সংক্রমণ ও মৃত্যু অব্যাহত আছে। অনেক হাসপাতালে রোগীদের সেবা দিতে বেগ পেতে হচ্ছে চিকিৎসকদের। ব্যুরো ও প্রতিনিধিদের পাঠানো খবর-

রাজশাহী : রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালের করোনা ইউনিটে ২৪ ঘণ্টায় ১১ জনের মৃত্যু হয়েছে। এর মধ্যে চারজন উপসর্গে মারা যান। এক মাসের মধ্যে এটি সর্বনিু মৃত্যুর রেকর্ড। এর আগে ২৭ জুন ১০ জনের মৃত্যু হয়েছিল। এরপর উত্তরের বৃহৎ এ হাসপাতালটিতে প্রতি ২৪ ঘণ্টায় ১২ থেকে ২৫ জন পর্যন্ত মারা গেছেন। হাসপাতাল পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল শামীম ইয়াজদানী জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় মৃতদের মধ্যে রাজশাহীর ছয়জন, পাবনার দুজন এবং নাটোর, নওগাঁ ও কুষ্টিয়ার একজন রয়েছেন।

বগুড়া : জেলায় গেল ২৪ ঘণ্টায় করোনায় ৬ জন এবং উপসর্গ নিয়ে ১৮ জনের মৃত্যু হয়েছে। উপসর্গ নিয়ে মৃতরা করোনা বিশেষায়িত বগুড়া মোহাম্মদ আলী হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন। বগুড়ার সিভিল সার্জন কার্যালয় সূত্র জানায়, একই সময়ে ৩৪৫ জনের নমুনা পরীক্ষা করে আরও ১৪৪ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। এ নিয়ে জেলায় মোট করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ১৭ হাজার ৮৫২ জন। এর মধ্যে সুস্থ হয়েছেন, ১৫ হাজার ৪২২ জন। মারা গেছেন ৫৩৩ জন। বর্তমানে হাসপাতাল ও বাড়িতে চিকিৎসাধীন আছেন এক হাজার ৮৯৭ জন।

ফরিদপুর : ফরিদপুর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের করোনা ডেডিকেটেড ইউনিটে ২৪ ঘণ্টায় করোনা ও উপসর্গ নিয়ে ৮ জনের মৃত্যু হয়েছে। এদের মধ্যে ৫ জন করোনায় এবং ৩ জন উপসর্গ নিয়ে মারা গেছেন। এ সময় ২৪৫ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ১২০ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। শনাক্তের হার ৫০ দশমিক ৭৫ শতাংশ।

বরিশাল : বরিশাল বিভাগে ২৪ ঘণ্টায় করোনায় আক্রান্ত ও উপসর্গ নিয়ে আরও ১২ জনের মৃত্যু হয়েছে। বরিশাল শেরেবাংলা চিকিৎসা মহাবিদ্যালয় (শেবাচিম) হাসাপাতালের করোনার আইসোলেশন ওয়ার্ডে উপসর্গ নিয়ে ১০ জন মারা গেছেন। এছাড়া শেবাচিমের করোনা ওয়ার্ডে একজন ও বরগুনা জেলায় একজন করোনায় মারা যান। এ সময় নতুন করে ১৫০ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে।

চট্টগ্রাম : সিভিল সার্জন ডা. সেখ ফজলে রাব্বি যুগান্তরকে জানান, চট্টগ্রামে সরকারি-বেসরকারি সাতটি ল্যাবে শুক্রবার ১ হাজার ৩০৪ জনের নমুনা পরীক্ষায় ৩০১ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। মধ্যে মহানগরীতে ২৫৮ জন এবং জেলার ১৫টি উপজেলায় ৪৩ জন। ২৪ ঘণ্টায় করোনা আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ৬ জন। এ নিয়ে চট্টগ্রামে করোনায় মারা গেছেন ৮৭৪ জন।

রংপুর : রংপুর বিভাগে ২৪ ঘণ্টায় আরও ১৫ জনের মৃত্যু হয়েছে। একই সময়ে করোনা শনাক্ত হয়েছে ৩২৬ জনের। এ মাসের ২৩ দিনে বিভাগে করোনায় প্রাণ হারালেন ২৯৮ জন। সর্বশেষ মারা যাওয়া ব্যক্তিদের মধ্যে নীলফামারীর চারজন, কুড়িগ্রামের তিনজন, ঠাকুরগাঁওয়ের তিনজন, দিনাজপুরের দুজন, পঞ্চগড়ের দুজন ও রংপুরের একজন রয়েছেন।

খুলনা ও কুষ্টিয়া : খুলনা বিভাগে ২৪ ঘণ্টায় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে ৩৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। একই সময়ে করোনা শনাক্ত হয়েছে ২৪৯ জনের। এর আগে শুক্রবার বিভাগে ৩০ জনের মৃত্যু এবং ৩৬১ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছিল। সর্বশেষ মৃতদের মধ্যে কুষ্টিয়ায় ১৫ জন, খুলনায় ৮ জন, যশোরে ৬ জন, নড়াইল, মাগুরা, ঝিনাইদহ ও মেহেরপুরে একজন রয়েছেন।

কুড়িগ্রাম : রৌমারী উপজেলার উপসহকারী কৃষি কর্মকর্তা ও ডিপ্লোমা কৃষিবিদ ইনস্টিটিউশন বাংলাদেশ রৌমারী উপজেলা শাখার সাবেক সভাপতি গোলাম আজম করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন। ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শনিবার সকালে মারা যান তিনি।

রামগতি (লক্ষ্মীপুর) : করোনা আক্রান্ত হয়ে শুক্রবার বিকালে লক্ষ্মীপুরের কমলনগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের অফিস সহকারী সিরাজ মিয়ার (৫০) মৃত্যু হয়েছে। সিরাজ মিয়া করোনা টিকার দুটি ডোজ নিয়েছিলেন। কমলনগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. আবু তাহের বলেন, নমুনা পরীক্ষায় তার করোনা নেগেটিভ এলেও সিটি স্ক্যান রিপোর্টে তার করোনা হয়েছে বলে আমরা নিশ্চিত হই। সিরাজ মিয়ার ফুসফুস ৯০ শতাংশ সংক্রমিত ছিল। তার ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে ছিল।

চার হাসপাতালে করোনা উপসর্গে মৃত্যু ৩৫

 যুগান্তর ডেস্ক 
২৫ জুলাই ২০২১, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

রাজশাহী, বরিশাল, বগুড়া ও ফরিদপুরের চার হাসপাতালে করোনার উপসর্গ নিয়ে ৩৫ জনের মৃত্যু হয়েছে। এরমধ্যে বগুড়ার করোনা বিশেষায়িত মোহাম্মদ আলী হাসপাতালে মারা গেছেন সর্বোচ্চ ১৮ জন। এছাড়া রামেক হাসপাতালে ৪ জন, শেবাচিমে ১০ জন এবং ফরিদপুর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ৩ জন মারা গেছেন। শুক্রবার সকাল ৮টা থেকে শনিবার সকাল ৮টা পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টায় মারা যান তারা। এছাড়া দেশের বিভিন্ন জেলায় করোনা সংক্রমণ ও মৃত্যু অব্যাহত আছে। অনেক হাসপাতালে রোগীদের সেবা দিতে বেগ পেতে হচ্ছে চিকিৎসকদের। ব্যুরো ও প্রতিনিধিদের পাঠানো খবর-

রাজশাহী : রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালের করোনা ইউনিটে ২৪ ঘণ্টায় ১১ জনের মৃত্যু হয়েছে। এর মধ্যে চারজন উপসর্গে মারা যান। এক মাসের মধ্যে এটি সর্বনিু মৃত্যুর রেকর্ড। এর আগে ২৭ জুন ১০ জনের মৃত্যু হয়েছিল। এরপর উত্তরের বৃহৎ এ হাসপাতালটিতে প্রতি ২৪ ঘণ্টায় ১২ থেকে ২৫ জন পর্যন্ত মারা গেছেন। হাসপাতাল পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল শামীম ইয়াজদানী জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় মৃতদের মধ্যে রাজশাহীর ছয়জন, পাবনার দুজন এবং নাটোর, নওগাঁ ও কুষ্টিয়ার একজন রয়েছেন।

বগুড়া : জেলায় গেল ২৪ ঘণ্টায় করোনায় ৬ জন এবং উপসর্গ নিয়ে ১৮ জনের মৃত্যু হয়েছে। উপসর্গ নিয়ে মৃতরা করোনা বিশেষায়িত বগুড়া মোহাম্মদ আলী হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন। বগুড়ার সিভিল সার্জন কার্যালয় সূত্র জানায়, একই সময়ে ৩৪৫ জনের নমুনা পরীক্ষা করে আরও ১৪৪ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। এ নিয়ে জেলায় মোট করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ১৭ হাজার ৮৫২ জন। এর মধ্যে সুস্থ হয়েছেন, ১৫ হাজার ৪২২ জন। মারা গেছেন ৫৩৩ জন। বর্তমানে হাসপাতাল ও বাড়িতে চিকিৎসাধীন আছেন এক হাজার ৮৯৭ জন।

ফরিদপুর : ফরিদপুর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের করোনা ডেডিকেটেড ইউনিটে ২৪ ঘণ্টায় করোনা ও উপসর্গ নিয়ে ৮ জনের মৃত্যু হয়েছে। এদের মধ্যে ৫ জন করোনায় এবং ৩ জন উপসর্গ নিয়ে মারা গেছেন। এ সময় ২৪৫ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ১২০ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। শনাক্তের হার ৫০ দশমিক ৭৫ শতাংশ।

বরিশাল : বরিশাল বিভাগে ২৪ ঘণ্টায় করোনায় আক্রান্ত ও উপসর্গ নিয়ে আরও ১২ জনের মৃত্যু হয়েছে। বরিশাল শেরেবাংলা চিকিৎসা মহাবিদ্যালয় (শেবাচিম) হাসাপাতালের করোনার আইসোলেশন ওয়ার্ডে উপসর্গ নিয়ে ১০ জন মারা গেছেন। এছাড়া শেবাচিমের করোনা ওয়ার্ডে একজন ও বরগুনা জেলায় একজন করোনায় মারা যান। এ সময় নতুন করে ১৫০ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে।

চট্টগ্রাম : সিভিল সার্জন ডা. সেখ ফজলে রাব্বি যুগান্তরকে জানান, চট্টগ্রামে সরকারি-বেসরকারি সাতটি ল্যাবে শুক্রবার ১ হাজার ৩০৪ জনের নমুনা পরীক্ষায় ৩০১ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। মধ্যে মহানগরীতে ২৫৮ জন এবং জেলার ১৫টি উপজেলায় ৪৩ জন। ২৪ ঘণ্টায় করোনা আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ৬ জন। এ নিয়ে চট্টগ্রামে করোনায় মারা গেছেন ৮৭৪ জন।

রংপুর : রংপুর বিভাগে ২৪ ঘণ্টায় আরও ১৫ জনের মৃত্যু হয়েছে। একই সময়ে করোনা শনাক্ত হয়েছে ৩২৬ জনের। এ মাসের ২৩ দিনে বিভাগে করোনায় প্রাণ হারালেন ২৯৮ জন। সর্বশেষ মারা যাওয়া ব্যক্তিদের মধ্যে নীলফামারীর চারজন, কুড়িগ্রামের তিনজন, ঠাকুরগাঁওয়ের তিনজন, দিনাজপুরের দুজন, পঞ্চগড়ের দুজন ও রংপুরের একজন রয়েছেন।

খুলনা ও কুষ্টিয়া : খুলনা বিভাগে ২৪ ঘণ্টায় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে ৩৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। একই সময়ে করোনা শনাক্ত হয়েছে ২৪৯ জনের। এর আগে শুক্রবার বিভাগে ৩০ জনের মৃত্যু এবং ৩৬১ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছিল। সর্বশেষ মৃতদের মধ্যে কুষ্টিয়ায় ১৫ জন, খুলনায় ৮ জন, যশোরে ৬ জন, নড়াইল, মাগুরা, ঝিনাইদহ ও মেহেরপুরে একজন রয়েছেন।

কুড়িগ্রাম : রৌমারী উপজেলার উপসহকারী কৃষি কর্মকর্তা ও ডিপ্লোমা কৃষিবিদ ইনস্টিটিউশন বাংলাদেশ রৌমারী উপজেলা শাখার সাবেক সভাপতি গোলাম আজম করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন। ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শনিবার সকালে মারা যান তিনি।

রামগতি (লক্ষ্মীপুর) : করোনা আক্রান্ত হয়ে শুক্রবার বিকালে লক্ষ্মীপুরের কমলনগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের অফিস সহকারী সিরাজ মিয়ার (৫০) মৃত্যু হয়েছে। সিরাজ মিয়া করোনা টিকার দুটি ডোজ নিয়েছিলেন। কমলনগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. আবু তাহের বলেন, নমুনা পরীক্ষায় তার করোনা নেগেটিভ এলেও সিটি স্ক্যান রিপোর্টে তার করোনা হয়েছে বলে আমরা নিশ্চিত হই। সিরাজ মিয়ার ফুসফুস ৯০ শতাংশ সংক্রমিত ছিল। তার ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে ছিল।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন