থম্পসনের দ্বিমুকুট জয়
jugantor
থম্পসনের দ্বিমুকুট জয়

  ক্রীড়া ডেস্ক  

০৪ আগস্ট ২০২১, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

মেয়েদের স্প্রিন্টে এমন কিছু আগে কখনো দেখেনি অলিম্পিক। ডাবল-ডাবল! টানা দুই অলিম্পিকে ১০০ ও ২০০ মিটার দৌড়ে দ্বিমুকুট জয়ের অনন্য কীর্তি গড়ে ইতিহাসের পাতা রাঙালেন জ্যামাইকার সোনার মেয়ে এলেইন থম্পসন-হেরা।

দুদিন আগে বিদ্যুৎ গতির দৌড়ে ১০০ মিটারের মুকুট ধরে রাখার পর কাল টোকিও অলিম্পিক স্টেডিয়ামের ট্র্যাকে আরেকবার গতির ঝড় তুললেন স্প্রিন্টের রানি। ১০০ মিটারের মতো ২০০ মিটারেও ইতিহাসের দ্বিতীয় দ্রুততম টাইমিং করে সোনা জিতলেন ২৯ বছর বয়সি থম্পসন। কেউই তেমন চ্যালেঞ্জ জানাতে পারেননি তাকে। মাত্র ২১.৫৩ সেকেন্ডে দৌড় শেষ করেন থম্পসন। ২১.৮১ সেকেন্ড টাইমিং করে রুপা জিতেছেন নামিবিয়ার ১৮ বছর বয়সি স্প্রিন্টার ক্রিস্টিন এমবোমা।

২১.৮৭ সেকেন্ড সময় নিয়ে ব্রোঞ্জ পেয়েছেন যুক্তরাষ্ট্রের গ্যাবি টমাস। ১০০ মিটারে রুপা জেতা জ্যামইকার শেলি-অ্যান ফ্রেজার-প্রাইসের কপালে এবার কোনো পদকই জোটেনি। ২১.৯৪ সেকেন্ড সময় নিয়ে চতুর্থ হয়েছেন তিনি। ২০১৬ রিও অলিম্পিকেও মেয়েদের ১০০ ও ২০০ মিটার স্প্রিন্টে সোনা জিতেছিলেন থম্পসন। টোকিওতে সেই দ্বিমুকুট ধরে রেখে অলিম্পিক ইতিহাসে নিজের জায়গা চিরস্থায়ী করে ফেললেন তিনি।

অলিম্পিকে কোনো নারী স্প্রিন্টারের এটাই প্রথম ‘ডাবল-ডাবল’ কীর্তি। ট্র্যাক অ্যান্ড ফিল্ডের ব্যক্তিগত ইভেন্টে চারটি অলিম্পিক সোনা জেতা প্রথম নারী অ্যাথলেটও থম্পসন। গত শনিবার ১০০ মিটার স্প্রিন্টে সোনা জয়ের পথে ১০.৬১ সেকেন্ড সময় নিয়ে ৩৩ বছরের পুরোনো অলিম্পিক রেকর্ড ভেঙেছিলেন তিনি। ২০০ মিটারে কোনো রেকর্ড না হলেও এই ইভেন্টে ইতিহাসের দ্বিতীয় সেরা টাইমিং এখন থম্পসনের।

মেয়েদের ২০০ মিটারে তার চেয়ে জোরে দৌড়েছেন শুধু প্রয়াত মার্কিন কিংবদন্তি ফ্লোরেন্স গ্রিফিত-জয়নার। ১৯৮৮ সিউল অলিম্পিকে ২১.৩৪ সেকেন্ডের বিশ্বরেকর্ড গড়েছিলেন গ্রিফিত।

থম্পসনের দ্বিমুকুট জয়

 ক্রীড়া ডেস্ক 
০৪ আগস্ট ২০২১, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

মেয়েদের স্প্রিন্টে এমন কিছু আগে কখনো দেখেনি অলিম্পিক। ডাবল-ডাবল! টানা দুই অলিম্পিকে ১০০ ও ২০০ মিটার দৌড়ে দ্বিমুকুট জয়ের অনন্য কীর্তি গড়ে ইতিহাসের পাতা রাঙালেন জ্যামাইকার সোনার মেয়ে এলেইন থম্পসন-হেরা।

দুদিন আগে বিদ্যুৎ গতির দৌড়ে ১০০ মিটারের মুকুট ধরে রাখার পর কাল টোকিও অলিম্পিক স্টেডিয়ামের ট্র্যাকে আরেকবার গতির ঝড় তুললেন স্প্রিন্টের রানি। ১০০ মিটারের মতো ২০০ মিটারেও ইতিহাসের দ্বিতীয় দ্রুততম টাইমিং করে সোনা জিতলেন ২৯ বছর বয়সি থম্পসন। কেউই তেমন চ্যালেঞ্জ জানাতে পারেননি তাকে। মাত্র ২১.৫৩ সেকেন্ডে দৌড় শেষ করেন থম্পসন। ২১.৮১ সেকেন্ড টাইমিং করে রুপা জিতেছেন নামিবিয়ার ১৮ বছর বয়সি স্প্রিন্টার ক্রিস্টিন এমবোমা।

২১.৮৭ সেকেন্ড সময় নিয়ে ব্রোঞ্জ পেয়েছেন যুক্তরাষ্ট্রের গ্যাবি টমাস। ১০০ মিটারে রুপা জেতা জ্যামইকার শেলি-অ্যান ফ্রেজার-প্রাইসের কপালে এবার কোনো পদকই জোটেনি। ২১.৯৪ সেকেন্ড সময় নিয়ে চতুর্থ হয়েছেন তিনি। ২০১৬ রিও অলিম্পিকেও মেয়েদের ১০০ ও ২০০ মিটার স্প্রিন্টে সোনা জিতেছিলেন থম্পসন। টোকিওতে সেই দ্বিমুকুট ধরে রেখে অলিম্পিক ইতিহাসে নিজের জায়গা চিরস্থায়ী করে ফেললেন তিনি।

অলিম্পিকে কোনো নারী স্প্রিন্টারের এটাই প্রথম ‘ডাবল-ডাবল’ কীর্তি। ট্র্যাক অ্যান্ড ফিল্ডের ব্যক্তিগত ইভেন্টে চারটি অলিম্পিক সোনা জেতা প্রথম নারী অ্যাথলেটও থম্পসন। গত শনিবার ১০০ মিটার স্প্রিন্টে সোনা জয়ের পথে ১০.৬১ সেকেন্ড সময় নিয়ে ৩৩ বছরের পুরোনো অলিম্পিক রেকর্ড ভেঙেছিলেন তিনি। ২০০ মিটারে কোনো রেকর্ড না হলেও এই ইভেন্টে ইতিহাসের দ্বিতীয় সেরা টাইমিং এখন থম্পসনের।

মেয়েদের ২০০ মিটারে তার চেয়ে জোরে দৌড়েছেন শুধু প্রয়াত মার্কিন কিংবদন্তি ফ্লোরেন্স গ্রিফিত-জয়নার। ১৯৮৮ সিউল অলিম্পিকে ২১.৩৪ সেকেন্ডের বিশ্বরেকর্ড গড়েছিলেন গ্রিফিত।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : অলিম্পিক ২০২০