কুড়িলে কিশোর জিহাদ হত্যায় গ্রেফতার ১

মূলহোতা হৃদয়কে খুঁজছে পুলিশ

  যুগান্তর রিপোর্ট ০৪ মে ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

রাজধানীর কুড়িলে বন্ধুদের ছুরিকাঘাতে আশরাফুল আলম জিহাদ নামের কিশোর হত্যার ঘটনায় ভাটারা থানায় মামলা হয়েছে। বৃহস্পতিবার নিহতের বাবা আলমগীর হোসেন বাদী হয়ে হৃদয় ও নুরুল আমিন নামের দু’জনকে আসামি করে মামলা করেন। মামলায় নুরুল আমিনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। তবে এ ঘটনায় মূলহোতা হৃদয়কে গ্রেফতার করা যায়নি। তাকে খুঁজছে পুলিশ।

এর আগে বুধবার রাতে রাজধানীর কুড়িল বিশ্বরোড এলাকায় পাওনা আড়াইশ’ টাকাকে কেন্দ্র করে বন্ধুদের ছুরিকাঘাতে মারা যায় জিহাদ। এ ঘটনায় আহত হয় জিহাদের দুই বন্ধু রিয়াজ ও হাসান। আহতদের মধ্যে রিয়াজ কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি রয়েছে। চিকিৎসকদের বরাত দিয়ে পুলিশ বলেছে, আহত রিয়াজ শঙ্কামুক্ত। আর হাসানের অবস্থা গুরুতর নয়।

বাড্ডা জোনের পুলিশের সহকারী কমিশনার আশরাফুল ইসলাম যুগান্তরকে বলেন, রিয়াজের কাছ থেকে স্পিকার কেনা বাবদ পাঁচশ’ টাকা ধার নিয়েছিল হৃদয়। পরবর্তীতে আড়াইশ’ টাকা ফেরত দিলেও বাকি টাকা দিচ্ছিল না। এ নিয়ে বন্ধুদের মধ্যে ঝগড়া হয়। ঝগড়ার জেরে রিয়াজ, জিহাদ ও হাসানকে ডেকে নিয়ে হামলা করে তারই বন্ধুরা। তিনি বলেন, একজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এ হত্যার সঙ্গে গ্রেফতারকৃতর সংশ্লিষ্টতার বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

নিহতের বাবা আলমগীর হোসেন যুগান্তরকে বলেন, হৃদয়, নুরুল আমিনসহ বেশ কয়েকজন মিলে আমার ছেলের ওপর হামলা চালায়। হামলাকারীদের মধ্যে হৃদয় জিহাদকে ছুরিকাঘাত করে। তিনি বলেন, হৃদয় আমার ছেলের খুনি, আমি ওর দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চাই।

মেডিকেল সূত্র জানায়, নিহত আশরাফুল আলম জিহাদের লাশ ময়নাতদন্ত শেষে পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। পরিবার জানিয়েছে নিহতের লাশ দাফনের জন্য বৃহস্পতিবার দুপুরে ঢাকা থেকে গ্রামের বাড়ি গোপালগঞ্জের কোটালীপাড়ায় নিয়ে যাওয়া হচ্ছে।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter
×