বাড়ি ভারতে, অফিস করেন সিলেটে
jugantor
নতুন করে তদন্তের নির্দেশ সংসদীয় কমিটির
বাড়ি ভারতে, অফিস করেন সিলেটে

  সংসদ প্রতিবেদক  

২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

‘বাড়ি তার ভারতে, চাকরি করেন সিলেটে’- এমনই অভিযোগ সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তরের এক বড় কর্তার বিরুদ্ধে। অন্য একটি দেশের নাগরিক হয়েও বাংলাদেশ সরকারের একটি দায়িত্বশীল মন্ত্রণালয়ের অধীনে কিভাবে তিনি কাজ করছেন তা নিয়ে তাই প্রশ্ন উঠেছে। রোববার জাতীয় সংসদ ভবনে অনুষ্ঠিত সড়ক পরিবহণ ও সেতু মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির বৈঠকে বিষয়টি নিয়ে প্রশ্ন তোলা হয়। কমিটির সভাপতি মো. একাব্বর হোসেন বৈঠকে সভাপতিত্ব করেন।

বৈঠক সূত্রে জানা যায়, সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তরের সিলেট জোনের অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলী তুষার কান্তি সাহার বিরুদ্ধে এ অভিযোগ উত্থাপিত হয় সংসদীয় কমিটিতে। সিলেটে থাকলেও প্রায়ই তিনি (প্রকৌশলী) অবৈধভাবে ভারতে যাওয়া আসা করেন। ওই কর্মকর্তার বিরুদ্ধে রয়েছে দুর্নীতিরও অভিযোগ। বিষয়টি খতিয়ে দেখতে সড়ক পরিবহণ ও মহাসড়ক বিভাগের সচিবকে তদন্তের দায়িত্ব দিয়েছিল সংসদীয় কমিটি। সেই তদন্তে তুষার কান্তি সাহাকে দোষী করা হয়নি, আবার ছাড়ও দেওয়া হয়নি। দায়সারা ভাবে তদন্ত হওয়ায় প্রতিবেদনটি আমলে নেয়নি সংসদীয় কমিটি। এজন্য সচিবকে দিয়ে নতুন করে তদন্ত করাতে বলা হয়েছে। সচিব না পারলে অন্তত অতিরিক্ত সচিব মর্যাদার কাউকে দিয়ে তদন্ত করার কথা বলেছে সংসদীয় কমিটি। আগামী ১০ দিনের মধ্যে এ সংক্রান্ত পূর্ণাঙ্গ প্রতিবেদন দেওয়ার জন্য সচিবকে বলা হয়েছে।

বৈঠক শেষে একাব্বর হোসেন বলেন, ‘অভিযোগ উঠেছে। কিভাবে একজন সরকারি কর্মকর্তা অবৈধ পাসপোর্ট নিয়ে অন্য দেশে বসবাস করেন-এসব বিষয় তদন্ত করে বলা যাবে। আমরা সঠিক তথ্য জানতেই আবারও তদন্তের কথা বলেছি।’

সেতুর টোল আদায়ে কমন সফটওয়্যার ব্যবহারের সুপারিশ : সড়ক-মহাসড়কের নিরাপত্তায় পুলিশের পরিবর্তে নিজস্ব জনবল চায় সংসদীয় কমিটি। একই সঙ্গে কমিটি সব সেতুর টোল আদায়ে একটি কমন সফটওয়্যার ব্যবহারের সুপারিশ করেছে। বৈঠকে সংসদীয় সাব-কমিটির পক্ষ থেকে এ সুপারিশ এসেছে। সংসদীয় কমিটির মূল বৈঠকে সাব-কমিটি তাদের প্রতিবেদন জমা দেওয়া হয়। তবে বৈঠকে এ প্রতিবেদন নিয়ে কোনো আলোচনা হয়নি।

এর আগে ধলেশ্বরী সেতু, বঙ্গবন্ধু সেতুসহ অন্যান্য সেতুর টোল আদায় পদ্ধতি এবং দরপত্র ছাড়া সময় বাড়ানোসহ যাবতীয় কার্যক্রম তদন্তে একটি সাব-কমিটি গঠন করা হয়েছিল। ধলেশ্বরী সেতুর টোল আদায়ে অনিয়মের খবরের পরিপ্রেক্ষিতেই ওই সাব-কমিটি গঠন করা হয়।

সাব-কমিটির প্রধান এবং সড়ক পরিবহণ ও সেতু মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় কমিটির সদস্য এনামুল হক বলেন, রোববারের বৈঠকে আমরা সাব-কমিটির প্রতিবেদন জমা দিয়েছি। তবে এ বিষয়ে বিস্তারিত আলোচনা হয়নি।

কমিটির প্রতিবেদন থেকে জানা যায়, এতে তারা সাতটি সুপারিশ করেছে। সুপারিশে সড়ক ও সেতু বিভাগের সব সেতুর টোল আদায়ে সাধারণ সফটওয়্যার ব্যবহার করতে বলা হয়েছে। এত করে যে কোনো নাগরিক চাইলে প্রতিদিনকার টোল আদায়ের তথ্য অনলাইনে দেখতে পাবেন।

সুপারিশে কোনো অবস্থাতেই দরপত্র ছাড়া কার্যাদেশের মেয়াদ না বাড়ানো, টোল আদায় ব্যবস্থাপনা নিবিড় তদারকি, রাস্তা ও যানবাহনের ধরন ও পরিমাণের ভিত্তিতে একটি মাস্টার প্ল্যানের আওতায় এনে সড়ক নেটওয়ার্ক ব্যবস্থাপনা, বিপজ্জনক বাঁকগুলো সরলীকরণ এবং মহাসড়কে নসিমন-করিমন ও অন্যান্য ব্যাটারিচালিত যান নিষিদ্ধকরণ, পুলিশ বাহিনীর পরিবর্তে সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তরের নিজস্ব জনবল দিয়ে সড়ক-মহাসড়কের নিরাপত্তা নিশ্চিতকরণ এবং টেন্ডার প্রক্রিয়া শেষ না হওয়ার আগ পর্যন্ত ধলেশ্বরী সেতুর টোল নিজস্ব জনবল দিয়ে আদায়ের সুপারিশ করা হয়।

কমিটির সদস্য সড়ক পরিবহণ ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের, এনামুল হক, মো. আবু জাহির, রেজওয়ান আহম্মদ তৌফিক, ছলিম উদ্দীন তরফদার, শেখ সালাহ উদ্দিন, সৈয়দ আবু হোসেন এবং রাবেয়া আলীম বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন।

খামারিদের কাছ থেকে বেশি মূল্যে দুধ কেনার প্রস্তাব : দেশের মানুষের দুধের চাহিদা মেটাতে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণের জন্য মন্ত্রণালয়কে তাগিদ দিয়েছে সংসদীয় কমিটি। একই সঙ্গে মানসম্মত দুধ প্রাপ্তির জন্য সমবায়ের ভিত্তিতে বাড়ি বাড়ি গরুর খামার স্থাপন করার সুপারিশ করেছে কমিটি। এছাড়া খামারিদের কাছ থেকে দুধ সংগ্রহের ক্ষেত্রে আগের দামের চাইতে বেশি দামে কেনা যায় কিনা- সে বিষয়ে পরীক্ষা-নিরীক্ষা করার কথা বলেছে। রোববার জাতীয় সংসদ ভবনে অনুষ্ঠিত স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির বৈঠকে এ সুপারিশ করা হয়।

কমিটির সভাপতি খন্দকার মোশাররফ হোসেনের সভাপতিত্বে বৈঠকে কমিটি সদস্য ও স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী মো. তাজুল ইসলাম, স্বপন ভট্টাচার্য, মশিউর রহমান রাঙ্গা, শেখ আফিল উদ্দিন, রেবেকা মমিন এবং আব্দুস সালাম মুর্র্শেদী উপস্থিত ছিলেন।

চলন্ত ট্রেনে পাথর ছোড়া রোধে আরও জনবল চায় রেল : চলন্ত ট্রেনে পাথর ছোড়া বন্ধে নিরাপত্তা বাহিনীতে আরও দেড় হাজার জনবল চায় রেলওয়ে। রোববার জাতীয় সংসদ ভবনে অনুষ্ঠিত রেলপথ মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় কমিটির বৈঠকে রেলপথ বিভাগ থেকে এ জনবলের কথা বলা হয়। পরে কমিটির পক্ষ থেকেও এ নিয়োগের বিষয়ে সুপারিশ করা হয়।

বৈঠকে মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে জানানো হয়, বিদ্যমান জনবলের সঙ্গে আরও ১ হাজার ৫০০ বাড়ানো হলে চলন্ত ট্রেনে পাথর ছোড়া রোধে পদক্ষেপ নিতে সুবিধা হবে। আলোচনা শেষে কমিটি জনবল বাড়ানোর জন্য মন্ত্রণালয়কে পদক্ষেপ নেওয়ার সুপারিশ করে।

কমিটির সভাপতি এবিএম ফজলে করিম চৌধুরীর সভাপতিত্বে বৈঠকে কমিটির সদস্য আসাদুজ্জামান নূর, শফিকুল আজম খান, সাইফুজ্জামান, নাছিমুল আলম চৌধুরী, গাজী মোহাম্মদ শাহ নওয়াজ ও নাদিরা ইয়াসমিন জলি অংশ নেন।

নতুন করে তদন্তের নির্দেশ সংসদীয় কমিটির

বাড়ি ভারতে, অফিস করেন সিলেটে

 সংসদ প্রতিবেদক 
২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

‘বাড়ি তার ভারতে, চাকরি করেন সিলেটে’- এমনই অভিযোগ সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তরের এক বড় কর্তার বিরুদ্ধে। অন্য একটি দেশের নাগরিক হয়েও বাংলাদেশ সরকারের একটি দায়িত্বশীল মন্ত্রণালয়ের অধীনে কিভাবে তিনি কাজ করছেন তা নিয়ে তাই প্রশ্ন উঠেছে। রোববার জাতীয় সংসদ ভবনে অনুষ্ঠিত সড়ক পরিবহণ ও সেতু মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির বৈঠকে বিষয়টি নিয়ে প্রশ্ন তোলা হয়। কমিটির সভাপতি মো. একাব্বর হোসেন বৈঠকে সভাপতিত্ব করেন।

বৈঠক সূত্রে জানা যায়, সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তরের সিলেট জোনের অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলী তুষার কান্তি সাহার বিরুদ্ধে এ অভিযোগ উত্থাপিত হয় সংসদীয় কমিটিতে। সিলেটে থাকলেও প্রায়ই তিনি (প্রকৌশলী) অবৈধভাবে ভারতে যাওয়া আসা করেন। ওই কর্মকর্তার বিরুদ্ধে রয়েছে দুর্নীতিরও অভিযোগ। বিষয়টি খতিয়ে দেখতে সড়ক পরিবহণ ও মহাসড়ক বিভাগের সচিবকে তদন্তের দায়িত্ব দিয়েছিল সংসদীয় কমিটি। সেই তদন্তে তুষার কান্তি সাহাকে দোষী করা হয়নি, আবার ছাড়ও দেওয়া হয়নি। দায়সারা ভাবে তদন্ত হওয়ায় প্রতিবেদনটি আমলে নেয়নি সংসদীয় কমিটি। এজন্য সচিবকে দিয়ে নতুন করে তদন্ত করাতে বলা হয়েছে। সচিব না পারলে অন্তত অতিরিক্ত সচিব মর্যাদার কাউকে দিয়ে তদন্ত করার কথা বলেছে সংসদীয় কমিটি। আগামী ১০ দিনের মধ্যে এ সংক্রান্ত পূর্ণাঙ্গ প্রতিবেদন দেওয়ার জন্য সচিবকে বলা হয়েছে।

বৈঠক শেষে একাব্বর হোসেন বলেন, ‘অভিযোগ উঠেছে। কিভাবে একজন সরকারি কর্মকর্তা অবৈধ পাসপোর্ট নিয়ে অন্য দেশে বসবাস করেন-এসব বিষয় তদন্ত করে বলা যাবে। আমরা সঠিক তথ্য জানতেই আবারও তদন্তের কথা বলেছি।’

সেতুর টোল আদায়ে কমন সফটওয়্যার ব্যবহারের সুপারিশ : সড়ক-মহাসড়কের নিরাপত্তায় পুলিশের পরিবর্তে নিজস্ব জনবল চায় সংসদীয় কমিটি। একই সঙ্গে কমিটি সব সেতুর টোল আদায়ে একটি কমন সফটওয়্যার ব্যবহারের সুপারিশ করেছে। বৈঠকে সংসদীয় সাব-কমিটির পক্ষ থেকে এ সুপারিশ এসেছে। সংসদীয় কমিটির মূল বৈঠকে সাব-কমিটি তাদের প্রতিবেদন জমা দেওয়া হয়। তবে বৈঠকে এ প্রতিবেদন নিয়ে কোনো আলোচনা হয়নি।

এর আগে ধলেশ্বরী সেতু, বঙ্গবন্ধু সেতুসহ অন্যান্য সেতুর টোল আদায় পদ্ধতি এবং দরপত্র ছাড়া সময় বাড়ানোসহ যাবতীয় কার্যক্রম তদন্তে একটি সাব-কমিটি গঠন করা হয়েছিল। ধলেশ্বরী সেতুর টোল আদায়ে অনিয়মের খবরের পরিপ্রেক্ষিতেই ওই সাব-কমিটি গঠন করা হয়।

সাব-কমিটির প্রধান এবং সড়ক পরিবহণ ও সেতু মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় কমিটির সদস্য এনামুল হক বলেন, রোববারের বৈঠকে আমরা সাব-কমিটির প্রতিবেদন জমা দিয়েছি। তবে এ বিষয়ে বিস্তারিত আলোচনা হয়নি।

কমিটির প্রতিবেদন থেকে জানা যায়, এতে তারা সাতটি সুপারিশ করেছে। সুপারিশে সড়ক ও সেতু বিভাগের সব সেতুর টোল আদায়ে সাধারণ সফটওয়্যার ব্যবহার করতে বলা হয়েছে। এত করে যে কোনো নাগরিক চাইলে প্রতিদিনকার টোল আদায়ের তথ্য অনলাইনে দেখতে পাবেন।

সুপারিশে কোনো অবস্থাতেই দরপত্র ছাড়া কার্যাদেশের মেয়াদ না বাড়ানো, টোল আদায় ব্যবস্থাপনা নিবিড় তদারকি, রাস্তা ও যানবাহনের ধরন ও পরিমাণের ভিত্তিতে একটি মাস্টার প্ল্যানের আওতায় এনে সড়ক নেটওয়ার্ক ব্যবস্থাপনা, বিপজ্জনক বাঁকগুলো সরলীকরণ এবং মহাসড়কে নসিমন-করিমন ও অন্যান্য ব্যাটারিচালিত যান নিষিদ্ধকরণ, পুলিশ বাহিনীর পরিবর্তে সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তরের নিজস্ব জনবল দিয়ে সড়ক-মহাসড়কের নিরাপত্তা নিশ্চিতকরণ এবং টেন্ডার প্রক্রিয়া শেষ না হওয়ার আগ পর্যন্ত ধলেশ্বরী সেতুর টোল নিজস্ব জনবল দিয়ে আদায়ের সুপারিশ করা হয়।

কমিটির সদস্য সড়ক পরিবহণ ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের, এনামুল হক, মো. আবু জাহির, রেজওয়ান আহম্মদ তৌফিক, ছলিম উদ্দীন তরফদার, শেখ সালাহ উদ্দিন, সৈয়দ আবু হোসেন এবং রাবেয়া আলীম বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন।

খামারিদের কাছ থেকে বেশি মূল্যে দুধ কেনার প্রস্তাব : দেশের মানুষের দুধের চাহিদা মেটাতে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণের জন্য মন্ত্রণালয়কে তাগিদ দিয়েছে সংসদীয় কমিটি। একই সঙ্গে মানসম্মত দুধ প্রাপ্তির জন্য সমবায়ের ভিত্তিতে বাড়ি বাড়ি গরুর খামার স্থাপন করার সুপারিশ করেছে কমিটি। এছাড়া খামারিদের কাছ থেকে দুধ সংগ্রহের ক্ষেত্রে আগের দামের চাইতে বেশি দামে কেনা যায় কিনা- সে বিষয়ে পরীক্ষা-নিরীক্ষা করার কথা বলেছে। রোববার জাতীয় সংসদ ভবনে অনুষ্ঠিত স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির বৈঠকে এ সুপারিশ করা হয়।

কমিটির সভাপতি খন্দকার মোশাররফ হোসেনের সভাপতিত্বে বৈঠকে কমিটি সদস্য ও স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী মো. তাজুল ইসলাম, স্বপন ভট্টাচার্য, মশিউর রহমান রাঙ্গা, শেখ আফিল উদ্দিন, রেবেকা মমিন এবং আব্দুস সালাম মুর্র্শেদী উপস্থিত ছিলেন।

চলন্ত ট্রেনে পাথর ছোড়া রোধে আরও জনবল চায় রেল : চলন্ত ট্রেনে পাথর ছোড়া বন্ধে নিরাপত্তা বাহিনীতে আরও দেড় হাজার জনবল চায় রেলওয়ে। রোববার জাতীয় সংসদ ভবনে অনুষ্ঠিত রেলপথ মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় কমিটির বৈঠকে রেলপথ বিভাগ থেকে এ জনবলের কথা বলা হয়। পরে কমিটির পক্ষ থেকেও এ নিয়োগের বিষয়ে সুপারিশ করা হয়।

বৈঠকে মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে জানানো হয়, বিদ্যমান জনবলের সঙ্গে আরও ১ হাজার ৫০০ বাড়ানো হলে চলন্ত ট্রেনে পাথর ছোড়া রোধে পদক্ষেপ নিতে সুবিধা হবে। আলোচনা শেষে কমিটি জনবল বাড়ানোর জন্য মন্ত্রণালয়কে পদক্ষেপ নেওয়ার সুপারিশ করে।

কমিটির সভাপতি এবিএম ফজলে করিম চৌধুরীর সভাপতিত্বে বৈঠকে কমিটির সদস্য আসাদুজ্জামান নূর, শফিকুল আজম খান, সাইফুজ্জামান, নাছিমুল আলম চৌধুরী, গাজী মোহাম্মদ শাহ নওয়াজ ও নাদিরা ইয়াসমিন জলি অংশ নেন।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন