শৈলকুপায় দুপক্ষের সংঘর্ষে আহত ৩০
jugantor
ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন
শৈলকুপায় দুপক্ষের সংঘর্ষে আহত ৩০
জামালপুরে প্রার্থী পরিবর্তনের দাবিতে সড়ক অবরোধ, কালীগঞ্জে সংবাদ সম্মেলন, দামুড়হুদায় মনোনয়নপত্র ছিনতাই, সুজানগর, ফুলবাড়িয়া ও আজমিরীগঞ্জে আ.লীগের প্রার্থী পরিবর্তন

  যুগান্তর ডেস্ক  

১৭ অক্টোবর ২০২১, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচনকে কেন্দ্র করে ঝিনাইদহের শৈলকুপায় দুপক্ষের সংঘর্ষে আহত হয়েছেন ৩০ জন। কালীগঞ্জে আওয়ামী লীগের তিন মনোনয়নপ্রত্যাশী সংবাদ সম্মেলন করেছেন। জামালপুরে প্রার্থী পরিবর্তনের দাবিতে মানববন্ধন, সড়ক অবরোধ ও বিক্ষোভ মিছিল হয়েছে। চুয়াডাঙ্গার দামুড়হুদায় মনোনয়নপত্র ছিনতাই করেছে দুর্বৃত্ত। এ ছাড়া পাবনার সুজানগর, ময়মনসিংহের ফুলবাড়িয়া ও হাবিগঞ্জের আজমিরীগঞ্জে আওয়ামী লীগের প্রার্থী পরিবর্তন করা হয়েছে। প্রতিনিধিদের পাঠানো খবর-

ঝিনাইদহ ও কালীগঞ্জ : শৈলকুপা উপজেলার ১০নং বগুড়া ইউনিয়নে সংঘর্ষে দুপক্ষের অন্তত ৩০ জন আহত ও ৪০টি বাড়িঘরসহ আসবাবপত্র ভাঙচুর করা হয়েছে। শুক্রবার রাত ৭টায় ইউনিয়নের কামান্না ও বারইহুদা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। সূত্র জানায়, বগুড়া ইউনিয়নের কামান্না গ্রামের রশিদ মেম্বার ও নাহিদ মোল্লার সমর্থকদের দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলে আসছিল। বুধবার রশিদ মেম্বারের ছেলে ফারদিনকে মারধর করে নাহিদ মোল্লার সমর্থক আমির হোসেনের ছেলে হামিদুর রহমান। শুক্রবার বিকালে পালটা হামিদুরের চাচাতো ভাই নাঈম হোসেনকে মারধর করে ফারদিন ও তার ভাই ফাহিম। এ খবর ছড়িয়ে পড়লে শুক্রবার রাতে নাহিদ মোল্লার সমর্থকরা রশিদ মেম্বারের সমর্থকদের বাড়িঘরে হামলা চালায়। এ সময় উভয়পক্ষের মধ্যে ইটপাটকেল নিক্ষেপসহ সংঘর্ষ বেধে যায়। খবর চলে যায় পাশের বারইহুদা গ্রামে। সেখানেও সংঘর্ষ বেধে যায়। টানা দেড়ঘণ্টা ওই দুই গ্রামে সংঘর্ষ চলে।

শৈলকুপা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জাহাঙ্গীর আলম যুগান্তরকে জানান, গ্রামের দুই শিশু খেলার সময় হাতাহাতি করে। এর জের ধরে ধাপে ধাপে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। রাতেই ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনেন তারা। সাতজনকে আটক করা হয়েছে। এলাকায় মোতায়েন করা হয়েছে অতিরিক্ত পুলিশ।

কালীগঞ্জ উপজেলার ১০নং কাষ্টভাঙ্গা ইউনিয়নে দলীয় গঠনতন্ত্র মোতাবেক ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে বর্ধিত সভার মাধ্যমে প্রার্থীর নাম ঠিক না করেই পছন্দের প্রার্থীর নাম কেন্দ্রে পাঠানো নিয়ে সংবাদ সম্মেলনে অভিযোগ করা হয়েছে। শনিবার বিকালে উপজেলার সাঁকো বাজারে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মনোনয়নপ্রত্যাশী তিন প্রার্থী এ সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করেন। সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও আওয়ামী লীগের মনোনয়নপ্রত্যাশী মো. আবু সুফিয়ান। সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি আজগার আলী, মোতালেব হোসেন, এমদাদুল হক, মনোনয়নপ্রত্যাশী কামাল হোসেন ও বিশ্বজিৎ সাহা প্রমুখ।

দামুড়হুদা (চুয়াডাঙ্গা) : দামুড়হুদা উপজেলার কার্পাসডাঙ্গা ইউনিয়নের নির্বাচনের ৯নং ওয়ার্ডের সদস্য প্রার্থী সজিবর রহমানের মনোনয়নপত্র জমা দেওয়ার আগে তার মনোনয়নপত্র ছিনিয়ে নিয়েছে দুর্বৃত্তরা। এ ঘটনার পায় ঘণ্টাখানেক পর অর্থের বিনিময়ে মনোনয়নপত্র ফেরত দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে। শনিবার দুপুর ২টার দিকে দামুড়হুদা উপজেলা চত্বরে কৃষি অফিসের সামনে এ ঘটনা ঘটে। পরে তিনি মনোনয়নপত্র উপজেলা নির্বাচন কার্যালয়ে দাখিল করেন। দামুড়হুদা উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা ইসহাক জানান, সজিবুর রহমান তার মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। তিনি কোনো অভিযোগ করেননি। নির্বাচন কার্যালয়ের ভেতর এ ধরনের কোনো ঘটনা ঘটেনি।

জামালপুর : জামালপুর সদরের মেস্টা ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থী বদরুল হাসান বিদ্যুতের মনোনয়ন বাতিলের দাবিতে মানববন্ধন, বিক্ষোভ মিছিল ও সড়ক অবরোধ করেছে স্থানীয় আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠন। শনিবার জামালপুর-সরিষাবাড়ী সড়কের মেস্টা মোড় এলাকায় ঘণ্টাব্যাপী অনুষ্ঠিত মানববন্ধনে বক্তারা অভিযোগ করে বলেন, মেস্টা ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে প্রথমে সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সদস্য ছানোয়ার হোসেন সবুজকে দলীয় মনোনয়ন দেওয়া হয়। অথচ একদিন পর মনোনয়ন বাতিল করা হয় তার। পরে মেস্টা ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন দেওয়া হয়েছে যুবদল থেকে যুবলীগে অনুপ্রবেশকারী বদরুল হাসান বিদ্যুতকে। বিদ্যুতের মনোনয়ন বাতিল করে দলের ত্যাগী ও পরীক্ষিত যে কাউকে নৌকা প্রতীক দেওয়ার দাবি জানান আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা। মানববন্ধনে বক্তব্য দেন বীর মুক্তিযোদ্ধা সুজায়েত আলী ফকির, বীর মুক্তিযোদ্ধা বাচ্চু মিয়া ও আওয়ামী লীগ নেতা মনোজ্জল হোসেন প্রমুখ।

সুজানগর (পাবনা) : সুজানগর উপজেলার নাজিরগঞ্জ ইউপি নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী পরিবর্তন করা হয়েছে। নাজিরগঞ্জ ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি আব্দুস সাত্তার প্রামাণিকের পরিবর্তে ইউনিয়ন পরিষদের বর্তমান চেয়ারম্যান ও জেলা আওয়ামী লীগের শিক্ষাবিষয়ক সম্পাদক মো. মশিউর রহমান খানকে দলীয় চূড়ান্ত প্রার্থী হিসাবে মনোনয়ন দেওয়া হয়েছে। শুক্রবার রাতে আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা স্বাক্ষরিত দলীয় প্যাডে নাজিরগঞ্জ ইউনিয়নের নৌকার নতুন প্রার্থী হিসাবে মশিউর রহমান খানকে দলীয় মনোনয়নের চিঠি দেওয়া হয়েছে।

ফুলবাড়িয়া (ময়মনসিংহ) : ফুলবাড়িয়া ইউপি নির্বাচনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী পরিবর্তন করে জেলা পরিষদ সদস্য মো. রুহুল আমীনকে চেয়ারম্যান প্রার্থী হিসাবে চূড়ান্ত মনোনয়ন দিয়েছেন আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। শুক্রবার বিকালে চিঠি পাওয়ার পর রাতে ফুলবাড়িয়ায় মোটরসাইকেল শোভাযাত্রা বের করে ময়মনসিংহ জেলা পরিষদ সদস্য ও সাবেক উপজেলা যুবলীগের সভাপতি মো. রুহুল আমীনের কর্মী সমর্থকরা। এর আগে ফুলবাড়িয়া ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন দেওয়া হয়েছিল মো. আতাহার আলীকে। তিনি জামায়াত নেতা বলে আওয়ামী লীগের দলীয় সভাপতি শেখ হাসিনা বরাবরে অভিযোগ দিয়েছিলেন আওয়ামী লীগ নেতা মো. এজিদুল হক।

হবিগঞ্জ : আজমিরীগঞ্জে মনোনয়ন দাখিলের শেষ মুহূর্তে এসে জলসুখা ইউপি নির্বাচনে আওয়ামী লীগ দলীয় প্রার্থী বদল করা হয়েছে। বিতর্কিত একজনকে বাদ দিয়ে দেওয়া হয়েছে আরেক বিতর্কিত মনোনয়নপ্রত্যাশীকে। শনিবার সন্ধ্যায় মো. শাহজাহান মিয়ার মনোনয়ন বাতিল করে মনোনয়ন দেওয়া হয় রোখসানা আক্তার শিখাকে। এদিকে মো. শাহজাহান মিয়ার মনোনয়ন বাতিলের খবরে এলাকায় নিজের সমর্থক ও নেতাকর্মীদের নিয়ে বৈঠকে বসেছেন তিনি। এ ইউপি নির্বাচনে আজ মনোনয়নপত্র দাখিলের শেষ দিন। এখানে দ্বিতীয় ধাপে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন তার ছেলে অনিক। তিনি জানান, তার বাবা সাবেক ইউপি মেম্বার মো. শাহজাহান মিয়ার মনোনয়ন বাতিলের খবর তারা পেয়েছেন। তাই এখন করণীয় বিষয়ে এলাকার লোকজন নিয়ে তারা বৈঠকে বসেছেন। জলসুখা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সভাপতি মো. সিরাজ মিয়া জানান, মো. শাহজাহান মিয়ার মনোনয়ন বাতিল করে রোখসানা আক্তার শিখাকে মনোনয়ন দেওয়ার খবর পেয়েছি। এখন নৌকা যার আমরাও তার পক্ষেই কাজ করব। তবে জয়ের বিষয়ে কতটুকু করা সম্ভব তা এখনই অগ্রিম বলা সম্ভব নয়। রোখসানা আক্তার শিখার বিএনপি থেকে আওয়ামী লীগে আসার বিষয়ে তিনি বলেন, কয়েক বছর আগে বিএনপির সমর্থন নিয়ে উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে ভাইস চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে জয়ী হয়েছিলেন। পরে তিনি আওয়ামী লীগের সঙ্গেই ছিলেন।

ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন

শৈলকুপায় দুপক্ষের সংঘর্ষে আহত ৩০

জামালপুরে প্রার্থী পরিবর্তনের দাবিতে সড়ক অবরোধ, কালীগঞ্জে সংবাদ সম্মেলন, দামুড়হুদায় মনোনয়নপত্র ছিনতাই, সুজানগর, ফুলবাড়িয়া ও আজমিরীগঞ্জে আ.লীগের প্রার্থী পরিবর্তন
 যুগান্তর ডেস্ক 
১৭ অক্টোবর ২০২১, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচনকে কেন্দ্র করে ঝিনাইদহের শৈলকুপায় দুপক্ষের সংঘর্ষে আহত হয়েছেন ৩০ জন। কালীগঞ্জে আওয়ামী লীগের তিন মনোনয়নপ্রত্যাশী সংবাদ সম্মেলন করেছেন। জামালপুরে প্রার্থী পরিবর্তনের দাবিতে মানববন্ধন, সড়ক অবরোধ ও বিক্ষোভ মিছিল হয়েছে। চুয়াডাঙ্গার দামুড়হুদায় মনোনয়নপত্র ছিনতাই করেছে দুর্বৃত্ত। এ ছাড়া পাবনার সুজানগর, ময়মনসিংহের ফুলবাড়িয়া ও হাবিগঞ্জের আজমিরীগঞ্জে আওয়ামী লীগের প্রার্থী পরিবর্তন করা হয়েছে। প্রতিনিধিদের পাঠানো খবর-

ঝিনাইদহ ও কালীগঞ্জ : শৈলকুপা উপজেলার ১০নং বগুড়া ইউনিয়নে সংঘর্ষে দুপক্ষের অন্তত ৩০ জন আহত ও ৪০টি বাড়িঘরসহ আসবাবপত্র ভাঙচুর করা হয়েছে। শুক্রবার রাত ৭টায় ইউনিয়নের কামান্না ও বারইহুদা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। সূত্র জানায়, বগুড়া ইউনিয়নের কামান্না গ্রামের রশিদ মেম্বার ও নাহিদ মোল্লার সমর্থকদের দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলে আসছিল। বুধবার রশিদ মেম্বারের ছেলে ফারদিনকে মারধর করে নাহিদ মোল্লার সমর্থক আমির হোসেনের ছেলে হামিদুর রহমান। শুক্রবার বিকালে পালটা হামিদুরের চাচাতো ভাই নাঈম হোসেনকে মারধর করে ফারদিন ও তার ভাই ফাহিম। এ খবর ছড়িয়ে পড়লে শুক্রবার রাতে নাহিদ মোল্লার সমর্থকরা রশিদ মেম্বারের সমর্থকদের বাড়িঘরে হামলা চালায়। এ সময় উভয়পক্ষের মধ্যে ইটপাটকেল নিক্ষেপসহ সংঘর্ষ বেধে যায়। খবর চলে যায় পাশের বারইহুদা গ্রামে। সেখানেও সংঘর্ষ বেধে যায়। টানা দেড়ঘণ্টা ওই দুই গ্রামে সংঘর্ষ চলে।

শৈলকুপা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জাহাঙ্গীর আলম যুগান্তরকে জানান, গ্রামের দুই শিশু খেলার সময় হাতাহাতি করে। এর জের ধরে ধাপে ধাপে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। রাতেই ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনেন তারা। সাতজনকে আটক করা হয়েছে। এলাকায় মোতায়েন করা হয়েছে অতিরিক্ত পুলিশ।

কালীগঞ্জ উপজেলার ১০নং কাষ্টভাঙ্গা ইউনিয়নে দলীয় গঠনতন্ত্র মোতাবেক ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে বর্ধিত সভার মাধ্যমে প্রার্থীর নাম ঠিক না করেই পছন্দের প্রার্থীর নাম কেন্দ্রে পাঠানো নিয়ে সংবাদ সম্মেলনে অভিযোগ করা হয়েছে। শনিবার বিকালে উপজেলার সাঁকো বাজারে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মনোনয়নপ্রত্যাশী তিন প্রার্থী এ সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করেন। সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও আওয়ামী লীগের মনোনয়নপ্রত্যাশী মো. আবু সুফিয়ান। সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি আজগার আলী, মোতালেব হোসেন, এমদাদুল হক, মনোনয়নপ্রত্যাশী কামাল হোসেন ও বিশ্বজিৎ সাহা প্রমুখ।

দামুড়হুদা (চুয়াডাঙ্গা) : দামুড়হুদা উপজেলার কার্পাসডাঙ্গা ইউনিয়নের নির্বাচনের ৯নং ওয়ার্ডের সদস্য প্রার্থী সজিবর রহমানের মনোনয়নপত্র জমা দেওয়ার আগে তার মনোনয়নপত্র ছিনিয়ে নিয়েছে দুর্বৃত্তরা। এ ঘটনার পায় ঘণ্টাখানেক পর অর্থের বিনিময়ে মনোনয়নপত্র ফেরত দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে। শনিবার দুপুর ২টার দিকে দামুড়হুদা উপজেলা চত্বরে কৃষি অফিসের সামনে এ ঘটনা ঘটে। পরে তিনি মনোনয়নপত্র উপজেলা নির্বাচন কার্যালয়ে দাখিল করেন। দামুড়হুদা উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা ইসহাক জানান, সজিবুর রহমান তার মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। তিনি কোনো অভিযোগ করেননি। নির্বাচন কার্যালয়ের ভেতর এ ধরনের কোনো ঘটনা ঘটেনি।

জামালপুর : জামালপুর সদরের মেস্টা ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থী বদরুল হাসান বিদ্যুতের মনোনয়ন বাতিলের দাবিতে মানববন্ধন, বিক্ষোভ মিছিল ও সড়ক অবরোধ করেছে স্থানীয় আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠন। শনিবার জামালপুর-সরিষাবাড়ী সড়কের মেস্টা মোড় এলাকায় ঘণ্টাব্যাপী অনুষ্ঠিত মানববন্ধনে বক্তারা অভিযোগ করে বলেন, মেস্টা ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে প্রথমে সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সদস্য ছানোয়ার হোসেন সবুজকে দলীয় মনোনয়ন দেওয়া হয়। অথচ একদিন পর মনোনয়ন বাতিল করা হয় তার। পরে মেস্টা ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন দেওয়া হয়েছে যুবদল থেকে যুবলীগে অনুপ্রবেশকারী বদরুল হাসান বিদ্যুতকে। বিদ্যুতের মনোনয়ন বাতিল করে দলের ত্যাগী ও পরীক্ষিত যে কাউকে নৌকা প্রতীক দেওয়ার দাবি জানান আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা। মানববন্ধনে বক্তব্য দেন বীর মুক্তিযোদ্ধা সুজায়েত আলী ফকির, বীর মুক্তিযোদ্ধা বাচ্চু মিয়া ও আওয়ামী লীগ নেতা মনোজ্জল হোসেন প্রমুখ।

সুজানগর (পাবনা) : সুজানগর উপজেলার নাজিরগঞ্জ ইউপি নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী পরিবর্তন করা হয়েছে। নাজিরগঞ্জ ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি আব্দুস সাত্তার প্রামাণিকের পরিবর্তে ইউনিয়ন পরিষদের বর্তমান চেয়ারম্যান ও জেলা আওয়ামী লীগের শিক্ষাবিষয়ক সম্পাদক মো. মশিউর রহমান খানকে দলীয় চূড়ান্ত প্রার্থী হিসাবে মনোনয়ন দেওয়া হয়েছে। শুক্রবার রাতে আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা স্বাক্ষরিত দলীয় প্যাডে নাজিরগঞ্জ ইউনিয়নের নৌকার নতুন প্রার্থী হিসাবে মশিউর রহমান খানকে দলীয় মনোনয়নের চিঠি দেওয়া হয়েছে।

ফুলবাড়িয়া (ময়মনসিংহ) : ফুলবাড়িয়া ইউপি নির্বাচনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী পরিবর্তন করে জেলা পরিষদ সদস্য মো. রুহুল আমীনকে চেয়ারম্যান প্রার্থী হিসাবে চূড়ান্ত মনোনয়ন দিয়েছেন আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। শুক্রবার বিকালে চিঠি পাওয়ার পর রাতে ফুলবাড়িয়ায় মোটরসাইকেল শোভাযাত্রা বের করে ময়মনসিংহ জেলা পরিষদ সদস্য ও সাবেক উপজেলা যুবলীগের সভাপতি মো. রুহুল আমীনের কর্মী সমর্থকরা। এর আগে ফুলবাড়িয়া ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন দেওয়া হয়েছিল মো. আতাহার আলীকে। তিনি জামায়াত নেতা বলে আওয়ামী লীগের দলীয় সভাপতি শেখ হাসিনা বরাবরে অভিযোগ দিয়েছিলেন আওয়ামী লীগ নেতা মো. এজিদুল হক।

হবিগঞ্জ : আজমিরীগঞ্জে মনোনয়ন দাখিলের শেষ মুহূর্তে এসে জলসুখা ইউপি নির্বাচনে আওয়ামী লীগ দলীয় প্রার্থী বদল করা হয়েছে। বিতর্কিত একজনকে বাদ দিয়ে দেওয়া হয়েছে আরেক বিতর্কিত মনোনয়নপ্রত্যাশীকে। শনিবার সন্ধ্যায় মো. শাহজাহান মিয়ার মনোনয়ন বাতিল করে মনোনয়ন দেওয়া হয় রোখসানা আক্তার শিখাকে। এদিকে মো. শাহজাহান মিয়ার মনোনয়ন বাতিলের খবরে এলাকায় নিজের সমর্থক ও নেতাকর্মীদের নিয়ে বৈঠকে বসেছেন তিনি। এ ইউপি নির্বাচনে আজ মনোনয়নপত্র দাখিলের শেষ দিন। এখানে দ্বিতীয় ধাপে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন তার ছেলে অনিক। তিনি জানান, তার বাবা সাবেক ইউপি মেম্বার মো. শাহজাহান মিয়ার মনোনয়ন বাতিলের খবর তারা পেয়েছেন। তাই এখন করণীয় বিষয়ে এলাকার লোকজন নিয়ে তারা বৈঠকে বসেছেন। জলসুখা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সভাপতি মো. সিরাজ মিয়া জানান, মো. শাহজাহান মিয়ার মনোনয়ন বাতিল করে রোখসানা আক্তার শিখাকে মনোনয়ন দেওয়ার খবর পেয়েছি। এখন নৌকা যার আমরাও তার পক্ষেই কাজ করব। তবে জয়ের বিষয়ে কতটুকু করা সম্ভব তা এখনই অগ্রিম বলা সম্ভব নয়। রোখসানা আক্তার শিখার বিএনপি থেকে আওয়ামী লীগে আসার বিষয়ে তিনি বলেন, কয়েক বছর আগে বিএনপির সমর্থন নিয়ে উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে ভাইস চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে জয়ী হয়েছিলেন। পরে তিনি আওয়ামী লীগের সঙ্গেই ছিলেন।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন