চট্টগ্রামে হচ্ছে মালটি মোডাল কনটেইনার টার্মিনাল
jugantor
চট্টগ্রামে হচ্ছে মালটি মোডাল কনটেইনার টার্মিনাল
সিসিবিএল ও সাইফ লজিস্টিকসের মধ্যে চুক্তি

  যুগান্তর প্রতিবেদন  

২০ অক্টোবর ২০২১, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

রেলপথে কনটেইনার পরিবহণে গতি আনতে বিশেষ উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। এর ফলে চট্টগ্রাম বন্দর থেকে ট্রেনে ৩০-৩৫ শতাংশ মালামাল ঢাকাসহ বিভিন্ন আইসিডিতে পৌঁছে দেওয়ার পরিকল্পনা দ্রুত বাস্তবায়ন সম্ভব হবে।

চট্টগ্রাম বন্দরের কাছে রেলে পণ্য বহনের জন্য মালটি মোডাল কনটেইনার টার্মিনাল কাম অফ-ডক নির্মাণ করতে এগিয়ে এসেছে শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত সাইফ পাওয়ারটেকের সাবসিডিয়ারি কোম্পানি সাইফ লজিস্টিক অ্যালায়েন্স। রাজধানীর একটি হোটেলে মঙ্গলবার কনটেইনার কোম্পানি অব বাংলাদেশ লিমিটেড (সিসিবিএল) ও সাইফ লজিস্টিকস অ্যালায়েন্সের মধ্যে চুক্তি হয়।

চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন- রেলমন্ত্রী মো. নুরুল ইসলাম সুজন। সভাপতিত্ব করেন রেল মন্ত্রণালয়ের সচিব ও সিসিবিএলের চেয়ারম্যান সেলিম রেজা। বিশেষ অতিথি ছিলেন- রেলওয়ে মহাপরিচালক ডিএন মজুমদার, সিসিবিএলের ব্যবস্থাপনা পরিচালক বেলাল উদ্দিন আহমেদ, সাইফ লজিস্টিকসের চেয়ারম্যান তরফদার রুহুল আমিন, এমডি তরফদার তানভীর রুহুল সাইফ। উপস্থিত ছিলেন সাইফ পাওয়ার গ্রুপের পরিচালক রুবাইয়া চৌধুরী।

রেলমন্ত্রী বলেন, সিসিবিএলের সঙ্গে সাইফ পাওয়ার গ্রুপের সাইফ লজিস্টিকস অ্যালায়েন্স কোম্পানি সম্পৃক্ত হয়েছে। আমাদের স্বপ্ন বাস্তবায়নে এ গ্রুপ অনন্য ভূমিকা রাখবে। চুক্তি অনুযায়ী তাদের সহযোগিতা পেলে রেলপথেই আমরা ৩০-৩৫ শতাংশ মালামাল পরিবহণ করতে পারব। পৃথিবীর কোথাও শুধু যাত্রী বহন করে রেল লাভবান হয়নি জানিয়ে রেলপথমন্ত্রী বলেন, আমরা রেলপথে পণ্য পরিবহণ করে লাভবান হতে চাই। এ চুক্তির মাধ্যমে উভয় প্রতিষ্ঠান লাভবান হবে। এছাড়া সাইফ পাওয়ার গ্রুপ কনটেইনার পরিবহণে অভিজ্ঞ। আমরা আরও আইসিডি তৈরি করব। রেলে পণ্য পরিবহণে বিশ্বমানের কার্যক্রম হাতে নেওয়া হয়েছে।

সচিব সেলিম রেজা বলেন, সিসিবিএল সরকারি প্রতিষ্ঠান। আমি এ প্রতিষ্ঠানের চেয়ারম্যান। প্রতিষ্ঠার দীর্ঘ ৪ বছর হলেও মাঠপর্যায়ে কাজ শুরু করতে পারছিলাম না। সাইফ লজিস্টিকস অ্যালায়েন্সেরর সঙ্গে চুক্তি স্বাক্ষরের মধ্য দিয়ে মাঠপর্যায়ে এর কাজ শুরু হলো। আমরা আশা করছি- আগামী ২ বছরের মধ্যে এর নির্মাণ কাজ শেষ হবে। সাইফ লজিস্টিকসের চেয়ারম্যান তরফদার রুহুল আমিন তালুকদার বলেন, চট্টগ্রামের রেলভূমিতে কনটেইনার টার্মিনাল নির্মাণের মাধ্যমে চট্টগ্রামবন্দরের সক্ষমতা বাড়বে। এটাই হবে দেশের প্রথম রেলওয়ে কনটেইনার টার্মিনাল। এ টার্মিনাল নির্মাণ-পরিচালনার সুযোগ পেয়ে সংশ্লিষ্টদের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়ে তিনি আরও বলেন, আমরা এসব কাজ অত্যন্ত দক্ষতার সঙ্গে করে যাচ্ছি। চুক্তি অনুযায়ী নির্ধারিত সময়ের মধ্যেই কাজ শেষ করতে হবে। এ টার্মিনাল চালু হলে দেশের অর্থনীতিতে ভূমিকা রাখবে। অনুষ্ঠানে জানানো হয়-চুক্তি অনুযায়ী সাইফ লজিস্টিকস চট্টগ্রামে রেলের ২১ দশমিক ২৯ একর জমিতে ২০ বছর মেয়াদি মালটি মোডাল কনটেইনার টার্মিনাল কাম অফ-ডক নির্মাণ করবে। যা দিয়ে চট্টগ্রাম থেকে দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে কনটেইনারে পণ্য সরবরাহ করা হবে। এতে যে পরিমাণ আয় হবে, তা সাইফ লজিস্টিকস ও সিসিবিএলের মধ্যে ভাগ হবে। আয়ের ৭৮ দশমিক ৫০ শতাংশ পাবে সাইফ লজিস্টিকস এবং সিসিবিএল পাবে ২১ দশমিক ৫০ শতাংশ। বিশ্বব্যাংকের তথ্য বলছে, দেশে যত পণ্য পরিবহণ হয়, তার ৮০ শতাংশই হয় সড়কপথে। নৌপথে ১৬ ও রেলপথে পরিবহণ হয় ৪ শতাংশ। কনটেইনার পরিবহণকে বাড়তি গুরুত্ব দিতে ২০১৬ সালের ১৭ মে সিসিবিএল প্রতিষ্ঠা করেছিল রেলপথ মন্ত্রণালয়।

চট্টগ্রামে হচ্ছে মালটি মোডাল কনটেইনার টার্মিনাল

সিসিবিএল ও সাইফ লজিস্টিকসের মধ্যে চুক্তি
 যুগান্তর প্রতিবেদন 
২০ অক্টোবর ২০২১, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

রেলপথে কনটেইনার পরিবহণে গতি আনতে বিশেষ উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। এর ফলে চট্টগ্রাম বন্দর থেকে ট্রেনে ৩০-৩৫ শতাংশ মালামাল ঢাকাসহ বিভিন্ন আইসিডিতে পৌঁছে দেওয়ার পরিকল্পনা দ্রুত বাস্তবায়ন সম্ভব হবে।

চট্টগ্রাম বন্দরের কাছে রেলে পণ্য বহনের জন্য মালটি মোডাল কনটেইনার টার্মিনাল কাম অফ-ডক নির্মাণ করতে এগিয়ে এসেছে শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত সাইফ পাওয়ারটেকের সাবসিডিয়ারি কোম্পানি সাইফ লজিস্টিক অ্যালায়েন্স। রাজধানীর একটি হোটেলে মঙ্গলবার কনটেইনার কোম্পানি অব বাংলাদেশ লিমিটেড (সিসিবিএল) ও সাইফ লজিস্টিকস অ্যালায়েন্সের মধ্যে চুক্তি হয়।

চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন- রেলমন্ত্রী মো. নুরুল ইসলাম সুজন। সভাপতিত্ব করেন রেল মন্ত্রণালয়ের সচিব ও সিসিবিএলের চেয়ারম্যান সেলিম রেজা। বিশেষ অতিথি ছিলেন- রেলওয়ে মহাপরিচালক ডিএন মজুমদার, সিসিবিএলের ব্যবস্থাপনা পরিচালক বেলাল উদ্দিন আহমেদ, সাইফ লজিস্টিকসের চেয়ারম্যান তরফদার রুহুল আমিন, এমডি তরফদার তানভীর রুহুল সাইফ। উপস্থিত ছিলেন সাইফ পাওয়ার গ্রুপের পরিচালক রুবাইয়া চৌধুরী।

রেলমন্ত্রী বলেন, সিসিবিএলের সঙ্গে সাইফ পাওয়ার গ্রুপের সাইফ লজিস্টিকস অ্যালায়েন্স কোম্পানি সম্পৃক্ত হয়েছে। আমাদের স্বপ্ন বাস্তবায়নে এ গ্রুপ অনন্য ভূমিকা রাখবে। চুক্তি অনুযায়ী তাদের সহযোগিতা পেলে রেলপথেই আমরা ৩০-৩৫ শতাংশ মালামাল পরিবহণ করতে পারব। পৃথিবীর কোথাও শুধু যাত্রী বহন করে রেল লাভবান হয়নি জানিয়ে রেলপথমন্ত্রী বলেন, আমরা রেলপথে পণ্য পরিবহণ করে লাভবান হতে চাই। এ চুক্তির মাধ্যমে উভয় প্রতিষ্ঠান লাভবান হবে। এছাড়া সাইফ পাওয়ার গ্রুপ কনটেইনার পরিবহণে অভিজ্ঞ। আমরা আরও আইসিডি তৈরি করব। রেলে পণ্য পরিবহণে বিশ্বমানের কার্যক্রম হাতে নেওয়া হয়েছে।

সচিব সেলিম রেজা বলেন, সিসিবিএল সরকারি প্রতিষ্ঠান। আমি এ প্রতিষ্ঠানের চেয়ারম্যান। প্রতিষ্ঠার দীর্ঘ ৪ বছর হলেও মাঠপর্যায়ে কাজ শুরু করতে পারছিলাম না। সাইফ লজিস্টিকস অ্যালায়েন্সেরর সঙ্গে চুক্তি স্বাক্ষরের মধ্য দিয়ে মাঠপর্যায়ে এর কাজ শুরু হলো। আমরা আশা করছি- আগামী ২ বছরের মধ্যে এর নির্মাণ কাজ শেষ হবে। সাইফ লজিস্টিকসের চেয়ারম্যান তরফদার রুহুল আমিন তালুকদার বলেন, চট্টগ্রামের রেলভূমিতে কনটেইনার টার্মিনাল নির্মাণের মাধ্যমে চট্টগ্রামবন্দরের সক্ষমতা বাড়বে। এটাই হবে দেশের প্রথম রেলওয়ে কনটেইনার টার্মিনাল। এ টার্মিনাল নির্মাণ-পরিচালনার সুযোগ পেয়ে সংশ্লিষ্টদের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়ে তিনি আরও বলেন, আমরা এসব কাজ অত্যন্ত দক্ষতার সঙ্গে করে যাচ্ছি। চুক্তি অনুযায়ী নির্ধারিত সময়ের মধ্যেই কাজ শেষ করতে হবে। এ টার্মিনাল চালু হলে দেশের অর্থনীতিতে ভূমিকা রাখবে। অনুষ্ঠানে জানানো হয়-চুক্তি অনুযায়ী সাইফ লজিস্টিকস চট্টগ্রামে রেলের ২১ দশমিক ২৯ একর জমিতে ২০ বছর মেয়াদি মালটি মোডাল কনটেইনার টার্মিনাল কাম অফ-ডক নির্মাণ করবে। যা দিয়ে চট্টগ্রাম থেকে দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে কনটেইনারে পণ্য সরবরাহ করা হবে। এতে যে পরিমাণ আয় হবে, তা সাইফ লজিস্টিকস ও সিসিবিএলের মধ্যে ভাগ হবে। আয়ের ৭৮ দশমিক ৫০ শতাংশ পাবে সাইফ লজিস্টিকস এবং সিসিবিএল পাবে ২১ দশমিক ৫০ শতাংশ। বিশ্বব্যাংকের তথ্য বলছে, দেশে যত পণ্য পরিবহণ হয়, তার ৮০ শতাংশই হয় সড়কপথে। নৌপথে ১৬ ও রেলপথে পরিবহণ হয় ৪ শতাংশ। কনটেইনার পরিবহণকে বাড়তি গুরুত্ব দিতে ২০১৬ সালের ১৭ মে সিসিবিএল প্রতিষ্ঠা করেছিল রেলপথ মন্ত্রণালয়।

 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন