তৃতীয় সন্তানকে হাজির করতে বাবার রিট
jugantor
বাংলাদেশি বাবা ও জাপানি মায়ের আইনি লড়াই
তৃতীয় সন্তানকে হাজির করতে বাবার রিট

  যুগান্তর প্রতিবেদন  

২২ অক্টোবর ২০২১, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

জাপানে থাকা তৃতীয় সন্তানকে আদালতে হাজির করার নির্দেশনা চেয়ে হাইকোর্টে রিট করেছেন বাংলাদেশি বাবা ইমরান শরীফ।

দুই শিশু নিয়ে বাংলাদেশি বাবা ইমরান শরীফ ও জাপানি মা নাকানো এরিকোর করা রিটের শুনানি আগামী বৃহস্পতিবার পর্যন্ত মুলতুবি করা হয়েছে। ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল বিপুল বাগমার যুগান্তরকে এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

বৃহস্পতিবার বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিমের নেতৃত্বাধীন হাইকোর্ট বেঞ্চে রিটের শুনানি হয়। শিশুদের বাবার পক্ষে শুনানি করেন জ্যেষ্ঠ আইনজীবী ফিদা এম কামাল ও অ্যাডভোকেট ফাওজিয়া করিম ফিরোজ। শিশুদের মায়ের পক্ষে ছিলেন অ্যাডভোকেট মোহাম্মদ শিশির মনির।

সূত্র জানায়, ৩০ সেপ্টেম্বর হাইকোর্ট আদেশে বলেছিলেন, গুলশানের ফ্ল্যাটে দুই শিশু জেসমিন মালিকা ও লাইলা লিনার সঙ্গে জাপানি নাগরিক মা নাকানো এরিকো রাতসহ ২৪ ঘণ্টা থাকবেন। বাংলাদেশি বাবা ইমরান শরীফ শুধু দিনের বেলা সন্তানদের সঙ্গে দেখা করতে পারবেন।

এ সময় ওই ফ্ল্যাটের ভাড়া শিশুদের বাবা-মাকে সমানভাবে বহন করতে হবে। ২১ অক্টোবর পর্যন্ত এ আদেশ কার্যকর থাকবে। ওইদিন পরবর্তী আদেশ দেবেন হাইকোর্ট।

সে হিসাবে বৃহস্পতিবার শুনানির জন্য ওঠে। এর আগে ১৬ সেপ্টেম্বর জাপানি শিশুদের বাবা-মাকে সমঝোতার সুযোগ দিয়েছিলেন আদালত।

ওইদিন ২৮ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত এ মামলা মুলতুবি করেছিলেন আদালত। এ সময়ে পর্যায়ক্রমে গুলশানের বাসায় একদিন করে মা ও একদিন করে বাবা শিশুদের সঙ্গে থাকার কথা বলা হয়েছিল।

এর আগে ৩১ আগস্ট হাইকোর্ট আদেশ দেন মা-বাবাসহ রাজধানীর গুলশানের চার কক্ষবিশিষ্ট একটি বাসায় থাকবে জাপানি দুই শিশু। সেখানে তারা আপাতত ১৫ দিন থাকবেন। ফ্ল্যাটের ভাড়া উভয় পক্ষ বহন করবে।

বাংলাদেশি বাবা ও জাপানি মায়ের আইনি লড়াই

তৃতীয় সন্তানকে হাজির করতে বাবার রিট

 যুগান্তর প্রতিবেদন 
২২ অক্টোবর ২০২১, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

জাপানে থাকা তৃতীয় সন্তানকে আদালতে হাজির করার নির্দেশনা চেয়ে হাইকোর্টে রিট করেছেন বাংলাদেশি বাবা ইমরান শরীফ।

দুই শিশু নিয়ে বাংলাদেশি বাবা ইমরান শরীফ ও জাপানি মা নাকানো এরিকোর করা রিটের শুনানি আগামী বৃহস্পতিবার পর্যন্ত মুলতুবি করা হয়েছে। ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল বিপুল বাগমার যুগান্তরকে এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

বৃহস্পতিবার বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিমের নেতৃত্বাধীন হাইকোর্ট বেঞ্চে রিটের শুনানি হয়। শিশুদের বাবার পক্ষে শুনানি করেন জ্যেষ্ঠ আইনজীবী ফিদা এম কামাল ও অ্যাডভোকেট ফাওজিয়া করিম ফিরোজ। শিশুদের মায়ের পক্ষে ছিলেন অ্যাডভোকেট মোহাম্মদ শিশির মনির।

সূত্র জানায়, ৩০ সেপ্টেম্বর হাইকোর্ট আদেশে বলেছিলেন, গুলশানের ফ্ল্যাটে দুই শিশু জেসমিন মালিকা ও লাইলা লিনার সঙ্গে জাপানি নাগরিক মা নাকানো এরিকো রাতসহ ২৪ ঘণ্টা থাকবেন। বাংলাদেশি বাবা ইমরান শরীফ শুধু দিনের বেলা সন্তানদের সঙ্গে দেখা করতে পারবেন।

এ সময় ওই ফ্ল্যাটের ভাড়া শিশুদের বাবা-মাকে সমানভাবে বহন করতে হবে। ২১ অক্টোবর পর্যন্ত এ আদেশ কার্যকর থাকবে। ওইদিন পরবর্তী আদেশ দেবেন হাইকোর্ট।

সে হিসাবে বৃহস্পতিবার শুনানির জন্য ওঠে। এর আগে ১৬ সেপ্টেম্বর জাপানি শিশুদের বাবা-মাকে সমঝোতার সুযোগ দিয়েছিলেন আদালত।

ওইদিন ২৮ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত এ মামলা মুলতুবি করেছিলেন আদালত। এ সময়ে পর্যায়ক্রমে গুলশানের বাসায় একদিন করে মা ও একদিন করে বাবা শিশুদের সঙ্গে থাকার কথা বলা হয়েছিল।

এর আগে ৩১ আগস্ট হাইকোর্ট আদেশ দেন মা-বাবাসহ রাজধানীর গুলশানের চার কক্ষবিশিষ্ট একটি বাসায় থাকবে জাপানি দুই শিশু। সেখানে তারা আপাতত ১৫ দিন থাকবেন। ফ্ল্যাটের ভাড়া উভয় পক্ষ বহন করবে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন