শার্শায় প্রার্থীর সমর্থককে পিটিয়ে হত্যা
jugantor
বিভিন্ন স্থানে ইউপি নির্বাচন নিয়ে সহিংসতা
শার্শায় প্রার্থীর সমর্থককে পিটিয়ে হত্যা
শরীয়তপুরে আহত একজনের মৃত্যু * গলাচিপায় কাউন্সিলর প্রার্থীকে কুপিয়ে জখম * রায়পুরে আহত ১০

  যুগান্তর ডেস্ক  

২৮ নভেম্বর ২০২১, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

শরীয়তপুরে সহিংসতায় আহত একজনের মৃত্যু

যশোরের শার্শায় আওয়ামী লীগ চেয়ারম্যান প্রার্থীর সমর্থকরা স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থীর এক সমর্থককে পিটিয়ে হত্যা করেছে। নিহতের নাম কুতুবউদ্দিন (৪৫)। শনিবার রাত ৮টার দিকে উপজেলার কায়বা ইউনিয়নের রুদ্রপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। তিনি একই এলাকার মহিউদ্দিন সরদারের ছেলে।

এ ঘটনায় স্বতন্ত্র প্রার্থী আলতাফ হোসেনের ৫ কর্মী গুরুতর আহত হয়েছেন। আহতরা যশোর জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। এদিকে, শরীয়তপুর সদর উপজেলার আংগারিয়া ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ ও বিদ্রোহী প্রার্থীর সমর্থকদের সংঘর্ষে আহত আব্দুর রাজ্জাক মোল্লা ঢাকার একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান।

এ ঘটনায় আওয়ামী লীগের পরাজিত প্রার্থী ও নিহতের স্বজনরা শনিবার সংবাদ সম্মেলনে বিচারের দাবি জানিয়েছেন। লক্ষ্মীপুরের রায়পুরে ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচনকে কেন্দ্র করে সহিংসতায় অন্তত ১০ জন আহত হয়েছেন।

পটুয়াখালীর গলাচিপায় পৌরসভা নির্বাচনে কাউন্সিলর প্রার্থী সাহেব আলীকে কুপিয়ে গুরুতর জখম করেছে দুর্বৃত্তরা। ব্যুরো, যুগান্তর প্রতিবেদন ও প্রতিনিধিদের খবর-

যশোর : নির্বাচনি সহিংসতায় কুতুব উদ্দিনের মৃত্যুর তথ্য শনিবার রাত পৌনে ১১টার দিকে নিশ্চিত করেছেন যশোর পুলিশের মুখপাত্র ও ডিবির ওসি রুপণ কুমার সরকার।

নিহত কুতুবউদ্দিনের ছোট ভাই শাহাবুদ্দিন জানান, কায়বা ইউপি নির্বাচনে আনারস প্রতীকের স্বতন্ত্র প্রার্থী আলতাফ হোসেনের কর্মীরা যাতে ভোটের মাঠে না যেতে পারে সে কারণে নৌকা প্রতীকের প্রার্থী হাসান ফিরোজ টিংকুর সমর্থকরা বাড়ি বাড়ি হুমকি-ধমকি দিয়ে যাচ্ছে।

এমনকি স্বতন্ত্র প্রার্থীর সমর্থকদের বাড়ির সামনে মোটরসাইকেল মহড়া দেয়। সেই ধারাবাহিকতায় ভোটের আগের দিন রাতে নৌকা প্রতীকের সমর্থক ইসমাইলের নেতৃত্বে ৮ থেকে ১০ জন স্বতন্ত্র প্রার্থীর সমর্থক কুতুবউদ্দিনের বাড়িতে গিয়ে নানা হুমকি-ধমকি দিতে থাকে।

একপর্যায়ে ইসমাইলের সঙ্গে কুতুব উদ্দিনের বাগবিতণ্ডা হয়। এরপর রড ও গাছের ডাল দিয়ে নৌকার সমর্থকরা কুতুবউদ্দিনকে এলোপাতাড়ি মারতে থাকে। তাকে বাঁচাতে এলে আরও ৫ জনকে তারা পিটিয়ে আহত করে পালিয়ে যায়।

পরে এলাকাবাসী আহতদের উদ্ধার করে যশোর জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করে। আহতরা হলেন, কায়বা ইউনিয়নের রুদ্রপুর গ্রামের মহিউদ্দিন সরদারের ছেলে শাহাবুদ্দিন, একই এলাকার মৃত ফকির চানের ছেলে আলাউদ্দিন ও আরশাদ আলী, আব্বাস আলীর ছেলে ইকতিয়ার আলী এবং আফছার আলীর ছেলে ইউনুস আলী।

এর মধ্যে আলাউদ্দিনের অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় চিকিৎসক তাকে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার করেছে। যশোর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালের ইন্টার্ন চিকিৎসক নাহিদ শাহরিয়ার সাব্বিব জানান, আহতদের মধ্যে কুতুবউদ্দিনের মাথায় গুরুতর আঘাত লাগায় রক্তক্ষরণে তার মৃত্যু হয়েছে।

শরীয়তপুর : ৭ নভেম্বর রাতে আংগারিয়া ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের প্রার্থী আসমা আক্তার ও বিদ্রোহী প্রার্থী আনোয়ার হোসেন হাওলাদারের সমর্থকদের সংঘর্ষ হয়েছিল। ওই সময় চর যাদবপুর এলাকার আওয়ামী লীগের কর্মী আব্দুর রাজ্জাক মোল্লা গুরুতর আহত হন।

তাকে প্রথমে শরীয়তপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পরে অবস্থার অবনতি হলে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকার একটি হাসপাতালে নেওয়া হয়। সেখানে ২০ দিন চিকিৎসাধীন থাকার পর শুক্রবার গভীর রাতে মারা যান তিনি। শনিবার সকালে তার লাশ পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হয়েছে।

হত্যাকারীদের বিচার দাবিতে দুপুরে নিহতের বাড়িতে আওয়ামী লীগ প্রার্থী সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করেন। এ সময় উপস্থিত ছিলেন-সদর উপজেলা আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক গোলাম মোস্তফা, আংগারিয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি আনোয়ার কামাল, পৌরসভা আওয়ামী লীগের সভাপতি এমএম জাহাঙ্গীর, সাধারণ সম্পাদক আমির হোসেন খান প্রমুখ।

পালং মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আক্তার হোসেন বলেন, সংঘর্ষের মামলাটি এখন হত্যা মামলায় রূপান্তরিত হয়েছে। আসামিদের গ্রেফতারে অভিযান অব্যাহত আছে।

রায়পুর (লক্ষ্মীপুর) : রায়পুরে দক্ষিণ চরবংশী ইউনিয়নে দুই মেম্বার প্রার্থীর সমর্থকদের সংঘর্ষ হয়েছে। এতে উভয়পক্ষের অন্তত ১০ জন আহত হয়েছেন। তাদের স্থানীয় বিভিন্ন হাসপাতাল ও ক্লিনিকে ভর্তি করা হয়েছে। শুক্রবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে ইউনিয়নের ৩নং ওয়ার্ডের আখনবাজারে সদস্য প্রার্থী আলমগীর হোসেন, মোহাম্মাদ আলী ও ফজলুল করিম বহদ্দারের কর্মী-সমর্থকদের মধ্যে এ সংঘর্ষ হয়।

গলাচিপা ও দক্ষিণ (পটুয়াখালী) : গলাচিপা পৌরসভার ৮ নম্বর ওয়ার্ডের বর্তমান কাউন্সিলর সাহেব আলীকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে মারাত্মক জখম করেছে দুর্বৃত্তরা। শুক্রবার রাত ২টায় দিকে এ ঘটনা ঘটে। এ পৌরসভার আজকের ভোটে তিনি একই পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছিলেন। গুরুতর আহত সাহেব আলীকে গলাচিপা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।
পাবনা : পাবনার আটঘরিয়ায় পৌরসভা নির্বাচনে মেয়র পদে স্বতন্ত্র প্রার্থী আলহাজ ইশারত আলীকে দুর্বৃত্তরা হত্যার হুমকি দিয়েছে। শনিবার নিজ বাড়িতে সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ অভিযোগ করেন।

দোয়ারাবাজার (সুনামগঞ্জ) : দোয়ারাবাজারে নৌকায় ভোট চাওয়ায় সিরিঞ্জ দিয়ে আ.লীগ কর্মীর রক্ত নেওয়ার হুমকির অভিযোগ ওঠেছে পরাজিত স্বতন্ত্র প্রার্থী বিএনপি নেতা হারুন অর রশীদের বিরুদ্ধে। এ ব্যাপারে নিরাপত্তা চেয়ে শুক্রবার রাতে দোয়ারাবাজার থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করেছেন উপজেলার সুরমা ইউনিয়নের মামুনপুর গ্রামের বদরুল ইসলাম, মিরপুর গ্রামের রফিক মিয়া ও জুয়েল মিয়া। হুমকি নিয়ে হারুন অর রশীদের একটি অডিও ভাইরাল হয়েছে।

বিভিন্ন স্থানে ইউপি নির্বাচন নিয়ে সহিংসতা

শার্শায় প্রার্থীর সমর্থককে পিটিয়ে হত্যা

শরীয়তপুরে আহত একজনের মৃত্যু * গলাচিপায় কাউন্সিলর প্রার্থীকে কুপিয়ে জখম * রায়পুরে আহত ১০
 যুগান্তর ডেস্ক 
২৮ নভেম্বর ২০২১, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ
শরীয়তপুরে সহিংসতায় আহত একজনের মৃত্যু
ফাইল ছবি

যশোরের শার্শায় আওয়ামী লীগ চেয়ারম্যান প্রার্থীর সমর্থকরা স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থীর এক সমর্থককে পিটিয়ে হত্যা করেছে। নিহতের নাম কুতুবউদ্দিন (৪৫)। শনিবার রাত ৮টার দিকে উপজেলার কায়বা ইউনিয়নের রুদ্রপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। তিনি একই এলাকার মহিউদ্দিন সরদারের ছেলে।

এ ঘটনায় স্বতন্ত্র প্রার্থী আলতাফ হোসেনের ৫ কর্মী গুরুতর আহত হয়েছেন। আহতরা যশোর জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। এদিকে, শরীয়তপুর সদর উপজেলার আংগারিয়া ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ ও বিদ্রোহী প্রার্থীর সমর্থকদের সংঘর্ষে আহত আব্দুর রাজ্জাক মোল্লা ঢাকার একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান।

এ ঘটনায় আওয়ামী লীগের পরাজিত প্রার্থী ও নিহতের স্বজনরা শনিবার সংবাদ সম্মেলনে বিচারের দাবি জানিয়েছেন। লক্ষ্মীপুরের রায়পুরে ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচনকে কেন্দ্র করে সহিংসতায় অন্তত ১০ জন আহত হয়েছেন।

পটুয়াখালীর গলাচিপায় পৌরসভা নির্বাচনে কাউন্সিলর প্রার্থী সাহেব আলীকে কুপিয়ে গুরুতর জখম করেছে দুর্বৃত্তরা। ব্যুরো, যুগান্তর প্রতিবেদন ও প্রতিনিধিদের খবর- 

যশোর : নির্বাচনি সহিংসতায় কুতুব উদ্দিনের মৃত্যুর তথ্য শনিবার রাত পৌনে ১১টার দিকে নিশ্চিত করেছেন যশোর পুলিশের মুখপাত্র ও ডিবির ওসি রুপণ কুমার সরকার।

নিহত কুতুবউদ্দিনের ছোট ভাই শাহাবুদ্দিন জানান, কায়বা ইউপি নির্বাচনে আনারস প্রতীকের স্বতন্ত্র প্রার্থী আলতাফ হোসেনের কর্মীরা যাতে ভোটের মাঠে না যেতে পারে সে কারণে নৌকা প্রতীকের প্রার্থী হাসান ফিরোজ টিংকুর সমর্থকরা বাড়ি বাড়ি হুমকি-ধমকি দিয়ে যাচ্ছে।

এমনকি স্বতন্ত্র প্রার্থীর সমর্থকদের বাড়ির সামনে মোটরসাইকেল মহড়া দেয়। সেই ধারাবাহিকতায় ভোটের আগের দিন রাতে নৌকা প্রতীকের সমর্থক ইসমাইলের নেতৃত্বে ৮ থেকে ১০ জন স্বতন্ত্র প্রার্থীর সমর্থক কুতুবউদ্দিনের বাড়িতে গিয়ে নানা হুমকি-ধমকি দিতে থাকে।

একপর্যায়ে ইসমাইলের সঙ্গে কুতুব উদ্দিনের বাগবিতণ্ডা হয়। এরপর রড ও গাছের ডাল দিয়ে নৌকার সমর্থকরা কুতুবউদ্দিনকে এলোপাতাড়ি মারতে থাকে। তাকে বাঁচাতে এলে আরও ৫ জনকে তারা পিটিয়ে আহত করে পালিয়ে যায়।

পরে এলাকাবাসী আহতদের উদ্ধার করে যশোর জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করে। আহতরা হলেন, কায়বা ইউনিয়নের রুদ্রপুর গ্রামের মহিউদ্দিন সরদারের ছেলে শাহাবুদ্দিন, একই এলাকার মৃত ফকির চানের ছেলে আলাউদ্দিন ও আরশাদ আলী, আব্বাস আলীর ছেলে ইকতিয়ার আলী এবং আফছার আলীর ছেলে ইউনুস আলী।

এর মধ্যে আলাউদ্দিনের অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় চিকিৎসক তাকে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার করেছে। যশোর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালের ইন্টার্ন চিকিৎসক নাহিদ শাহরিয়ার সাব্বিব জানান, আহতদের মধ্যে কুতুবউদ্দিনের মাথায় গুরুতর আঘাত লাগায় রক্তক্ষরণে তার মৃত্যু হয়েছে। 

শরীয়তপুর : ৭ নভেম্বর রাতে আংগারিয়া ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের প্রার্থী আসমা আক্তার ও বিদ্রোহী প্রার্থী আনোয়ার হোসেন হাওলাদারের সমর্থকদের সংঘর্ষ হয়েছিল। ওই সময় চর যাদবপুর এলাকার আওয়ামী লীগের কর্মী আব্দুর রাজ্জাক মোল্লা গুরুতর আহত হন।

তাকে প্রথমে শরীয়তপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পরে অবস্থার অবনতি হলে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকার একটি হাসপাতালে নেওয়া হয়। সেখানে ২০ দিন চিকিৎসাধীন থাকার পর শুক্রবার গভীর রাতে মারা যান তিনি। শনিবার সকালে তার লাশ পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হয়েছে।

হত্যাকারীদের বিচার দাবিতে দুপুরে নিহতের বাড়িতে আওয়ামী লীগ প্রার্থী সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করেন। এ সময় উপস্থিত ছিলেন-সদর উপজেলা আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক গোলাম মোস্তফা, আংগারিয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি আনোয়ার কামাল, পৌরসভা আওয়ামী লীগের সভাপতি এমএম জাহাঙ্গীর, সাধারণ সম্পাদক আমির হোসেন খান প্রমুখ। 

পালং মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আক্তার হোসেন বলেন, সংঘর্ষের মামলাটি এখন হত্যা মামলায় রূপান্তরিত হয়েছে। আসামিদের গ্রেফতারে অভিযান অব্যাহত আছে। 

রায়পুর (লক্ষ্মীপুর) : রায়পুরে দক্ষিণ চরবংশী ইউনিয়নে দুই মেম্বার প্রার্থীর সমর্থকদের সংঘর্ষ হয়েছে। এতে উভয়পক্ষের অন্তত ১০ জন আহত হয়েছেন। তাদের স্থানীয় বিভিন্ন হাসপাতাল ও ক্লিনিকে ভর্তি করা হয়েছে। শুক্রবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে ইউনিয়নের ৩নং ওয়ার্ডের আখনবাজারে সদস্য প্রার্থী আলমগীর হোসেন, মোহাম্মাদ আলী ও ফজলুল করিম বহদ্দারের কর্মী-সমর্থকদের মধ্যে এ সংঘর্ষ হয়। 

গলাচিপা ও দক্ষিণ (পটুয়াখালী) : গলাচিপা পৌরসভার ৮ নম্বর ওয়ার্ডের বর্তমান কাউন্সিলর সাহেব আলীকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে মারাত্মক জখম করেছে দুর্বৃত্তরা। শুক্রবার রাত ২টায় দিকে এ ঘটনা ঘটে। এ পৌরসভার আজকের ভোটে তিনি একই পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছিলেন। গুরুতর আহত সাহেব আলীকে গলাচিপা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। 
পাবনা : পাবনার আটঘরিয়ায় পৌরসভা নির্বাচনে মেয়র পদে স্বতন্ত্র প্রার্থী আলহাজ ইশারত আলীকে দুর্বৃত্তরা হত্যার হুমকি দিয়েছে। শনিবার নিজ বাড়িতে সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ অভিযোগ করেন। 

দোয়ারাবাজার (সুনামগঞ্জ) : দোয়ারাবাজারে নৌকায় ভোট চাওয়ায় সিরিঞ্জ দিয়ে আ.লীগ কর্মীর রক্ত নেওয়ার হুমকির অভিযোগ ওঠেছে পরাজিত স্বতন্ত্র প্রার্থী বিএনপি নেতা হারুন অর রশীদের বিরুদ্ধে। এ ব্যাপারে নিরাপত্তা চেয়ে শুক্রবার রাতে দোয়ারাবাজার থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করেছেন উপজেলার সুরমা ইউনিয়নের মামুনপুর গ্রামের বদরুল ইসলাম, মিরপুর গ্রামের রফিক মিয়া ও জুয়েল মিয়া। হুমকি নিয়ে হারুন অর রশীদের একটি অডিও ভাইরাল হয়েছে।
 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন