এটিএম বুথে নিরাপত্তা কর্মীর গলাকাটা লাশ

  যুগান্তর রিপোর্ট ২২ মে ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

রাজধানীর ক্যান্টনমেন্ট এলাকায় পোস্ট অফিসের পাশে বেসরকারি ইস্টার্ন ব্যাংক লিমিটেডের (ইবিএল) বুথে এক নিরাপত্তা কর্মীর লাশ পাওয়া গেছে। সোমবার দুপুরে পুলিশ লাশটি উদ্ধার করে। নিরাপত্তা কর্মীর নাম শেখ তৌহিদুল ইসলাম নুরুন্নবী (১৭)। গলা কেটে তাকে হত্যা করা হয়েছে।

পুলিশের দায়িত্বশীল কয়েকজন কর্মকর্তা জানান, রোববার মধ্যরাত থেকে সোমবার ভোর পর্যন্ত যে কোনো সময় তাকে হত্যা করা হয়েছে। তবে বুথ থেকে কোনো টাকা খোয়া যায়নি। বুথের টাকা লুট করতে এ ঘটনা ঘটেনি বলে তারা মনে করছেন। ব্যক্তিগত শত্র“তা কিংবা অন্য কোনো কারণে তাকে খুন করা হয়েছে। নুরুন্নবীর লাশ ময়নাতদন্তের জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

পুলিশের ভাষ্য, পরিকল্পনা করেই নুরুন্নবীকে হত্যা করা হয়েছে। মধ্যরাতের পর এটিএম বুথে একজন লোক প্রবেশ করার পর থেকে ক্লোজ সার্কিট (সিসি) ক্যামেরার পাওয়ার বন্ধ করে দেয়া হয়। বুথের একটি ক্যামেরাও ভেঙে ফেলা হয়েছে। হত্যার মিশনে একজন অংশ নিয়েছে বলেই ধারণা করা হচ্ছে।

এ বিষয়ে পুলিশের ক্যান্টনমেন্ট জোনের অতিরিক্ত উপকমিশনার শাহেদুর রহমান যুগান্তরকে বলেন, সিসি ক্যামেরার ফুটেজ দেখে এরই মধ্যে আমরা একজনকে শনাক্ত করেছি। তবে তিনি খুনের সঙ্গে জড়িত কি না, তা এখনও নিশ্চিত হতে পারিনি। তাকে নজরদারিতে রাখা হয়েছে। নিশ্চিত হওয়া গেলেই তাকে গ্রেফতার করা হবে। শনাক্ত হওয়া ব্যক্তি বুথে প্রবেশ করার পরই সিসি ক্যামেরার পাওয়ার বন্ধ পাচ্ছি। ওই ব্যক্তিটি খুনের শিকার নুরুন্নবীর পরিচিত।

ইবিএলের হেড অব ব্র্যান্ড অ্যান্ড কমিউনিকেশনস জিয়াউল করিম সাংবাদিকদের জানান, বুথের এটিএম মেশিনের ভল্ট থেকে টাকা খোয়া যাওয়ার কোনো আলামত তারা পাননি। একজন তরুণ নিরাপত্তাকর্মী খুনের শিকার হওয়ায় আমরা অত্যন্ত ব্যথিত। আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে বিষয়টি অবহিত করা হয়েছে। তারা ঘটনাটি খতিয়ে দেখছেন।

পুলিশের ক্যান্টনমেন্ট জোনের দায়িত্বশীল কর্মকর্তারা জানান, নুরুন্নবী গ্লোব সিকিউরিটি সার্ভিসের অধীনে চাকরি করতেন। চলতি বছর বাগেরহাটের একটি স্কুল থেকে তিনি এসএসসি পাস করেন। তার বাবা আবু বক্কর সিদ্দিক গুরুতর অসুস্থ। পরিবারের হাল ধরতেই নুরুন্নবী বাগেরহাট থেকে ঢাকায় এসে নিরাপত্তা কর্মী হিসেবে চাকরিতে যোগ দেন। রোববার রাত ৮টা থেকে পরদিন সোমবার সকাল ৮টা পর্যন্ত তার ডিউটি ছিল।

নুরুন্নবীর খালাতো ভাই শহীদুল ইসলাম জানান, তারা ধারণাই করতে পারছেন না নুরুন্নবীকে কারা হত্যা করেছে। তার বাবা দীর্ঘদিন ধরে লিভারের সমস্যায় ভুগছেন। চিকিৎসার খরচ জোগাড় করতেই তিনি চাকরিতে যোগ দিয়েছিলেন।

এদিকে হাসপাতাল সূত্র জানায়, নুরুন্নবীর লাশ দুপুরের পর হাসপাতালে নিয়ে আসে পুলিশ। তার গলায় ধারালো অস্ত্রের আঘাতের চিহ্ন পাওয়া গেছে। ধারালো অস্ত্রের আঘাতে তার শ্বাসনালি কেটে গেছে।

 

 

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
bestelectronics

 

 

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter
.