রিবা আন্তর্জাতিক স্থাপত্য পুরস্কারে ‘সেরা’ সাতক্ষীরার হাসপাতাল
jugantor
রিবা আন্তর্জাতিক স্থাপত্য পুরস্কারে ‘সেরা’ সাতক্ষীরার হাসপাতাল

  সাতক্ষীরা প্রতিনিধি  

২৭ জানুয়ারি ২০২২, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

হাসপাতাল

রিবা আন্তর্জাতিক স্থাপত্য পুরস্কারে ‘বিশ্বের সেরা নতুন ভবন’ হিসেবে স্বীকৃতি পেয়েছে বাংলাদেশের সাতক্ষীরার শ্যামনগর উপজেলার ফ্রেন্ডশিপ হাসপাতাল। ৮০ শয্যার এ হাসপাতালের নকশা করেছেন স্থপতি কাশেফ মাহবুব চৌধুরী, যিনি এর আগে আগা খান স্থাপত্য পুরস্কারে ভূষিত হয়েছেন।

যুক্তরাজ্যের রয়্যাল ইনস্টিটিউট অব ব্রিটিশ আর্কিটেক্টস (রিবা) মঙ্গলবার এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানায়, অসাধারণ নকশা ও সামাজিক প্রভাব বিবেচনায় বাংলাদেশের ফ্রেন্ডশিপ হাসপাতাল ভবনটিকে এই আন্তর্জাতিক পুরস্কারে ভূষিত করা হয়েছে।

গত বছরের ১৬ নভেম্বর রিবা আন্তর্জাতিক পুরস্কারে ‘বিশ্বের সেরা নতুন ভবনের’ সংক্ষিপ্ত তালিকা প্রকাশ করা হয়েছিল। সেখানে সাতক্ষীরার শ্যামনগর উপজেলার ফ্রেন্ডশিপ হাসপাতালের সঙ্গে স্থান পেয়েছিল জার্মানির বার্লিনের জেমস-সায়মন-গ্যালারি এবং ডেনমার্কের কোপেনহেগেনের লিলে ল্যাঞ্জেব্রো সেতু।

পুরস্কারের জুরি বোর্ড বলছে, জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে ঝুঁকিতে থাকা দক্ষিণ বাংলার জলো পরিবেশে গড়ে তোলা হয়েছে সাতক্ষীরার ফ্রেন্ডশিপ হাসপাতাল। তারা এই স্থাপনাটিকে একটি ‘মানবিক স্থাপত্য’ হিসেবে বর্ণনা করেছে।

বিজ্ঞপ্তিতে রিবার পক্ষ থেকে আরও বলা হয়, কম বাজাটের মধ্যেও স্থাপত্য কীভাবে প্রত্যন্ত গ্রামীণ এলাকাকে শক্তিশালী ও সক্ষম করে তুলতে পারে তার উৎসাহব্যঞ্জক উদাহরণ এই ফ্রেন্ডশিপ হাসপাতাল।

সাতক্ষীরার শ্যামনগর উপজেলার প্রত্যন্ত অঞ্চলের মানুষকে চিকিৎসাসেবা দিতে ২০১৮ সালের জুলাই মাসে চালু হয়েছে ফ্রেন্ডশিপ হাসপাতাল। ২০১৩ সালে নকশা করার পর চার বছরে এর নির্মাণকাজ শেষ হয়।

ফ্রেন্ডশিপ এনজিওর সহায়তায় বাংলাদেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলে গড়ে তোলা এই কমিউনিটি হাসপাতাল সাতক্ষীরার হাজার হাজার মানুষের চিকিৎসাসেবা পাওয়ার সুযোগ করে দিয়েছে। উপকূলের এমন একটি এলাকায় এ হাসপাতালটি নির্মাণ করা হয়েছে যা ২০০৭ সালের ঘূর্ণিঝড়ে ব্যাপকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছিল।

পুরস্কারের খবরে স্থপতি কাশেফ চৌধুরী বলেন, এটা খুবই গুরুত্বপূর্ণ মুহূর্ত, কারণ রিবা এবং এর জুরিরা বিশ্বের প্রান্তিক অঞ্চল থেকে একটি প্রকল্পকে চিহ্নিত করে বিশ্বের কেন্দ্রে তুলে এনেছেন।

ফ্রেন্ডশিপ হাসপাতাল রিবা অ্যাওয়ার্ড জয় করায় সবার প্রতি কৃতজ্ঞতা জানান ফ্রেন্ডশিপের প্রতিষ্ঠাতা নির্বাহী পরিচালক রুনা খান। তিনি বলেন, সাতক্ষীরার শ্যামনগর উপজেলার জলবায়ু পরিবর্তন প্রভাবিত লবণাক্ত এলাকায় অবস্থিত এ হাসপাতাল নির্মান করেছে উন্নয়ন সহযোগী সংস্থা ‘ফ্রেন্ডশিপ’। ২০ বছর ধরে জলবায়ু পরিবর্তনে প্রভাবিত স্থানীয় বাসিন্দাদের সঙ্গে আমরা কাজ করে দেখেছি এবং এতে আমার বিশ্বাস হয়েছে যে, নিজেদের ছোট ছোট সমস্যা সমাধানেও দরিদ্র মানুষকে বেগ পেতে হয়।

৬ জন চিকিৎসক, ১২ জন নার্স এবং অন্যান্য সহকারীর সমন্বয়ে ৮০ শয্যার এ হাসপাতালে রয়েছে ৪টি ওয়ার্ড। ৩টি অপারেশন থিয়েটারের মাধ্যমে বেশিরভাগ অস্ত্রোপচার হচ্ছে এখানে। প্রত্যন্ত এলাকায় সার্বক্ষণিক বিদ্যুৎ এবং অ্যাম্বুলেন্স সুবিধায় হাসপাতালের জরুরি বিভাগ খোলা থাকে ২৪ ঘণ্টা।

রিবা আন্তর্জাতিক স্থাপত্য পুরস্কারে ‘সেরা’ সাতক্ষীরার হাসপাতাল

 সাতক্ষীরা প্রতিনিধি 
২৭ জানুয়ারি ২০২২, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ
হাসপাতাল
স্থাপত্যশৈলী ও নান্দনিকতায় যুক্তরাজ্যের রয়্যাল ইনস্টিটিউট অব ব্রিটিশ আর্কিটেক্ট (রিবা) অ্যাওয়ার্ড জেতা সাতক্ষীরার শ্যামনগর ফ্রেন্ডশিপ হাসপাতাল -যুগান্তর

রিবা আন্তর্জাতিক স্থাপত্য পুরস্কারে ‘বিশ্বের সেরা নতুন ভবন’ হিসেবে স্বীকৃতি পেয়েছে বাংলাদেশের সাতক্ষীরার শ্যামনগর উপজেলার ফ্রেন্ডশিপ হাসপাতাল। ৮০ শয্যার এ হাসপাতালের নকশা করেছেন স্থপতি কাশেফ মাহবুব চৌধুরী, যিনি এর আগে আগা খান স্থাপত্য পুরস্কারে ভূষিত হয়েছেন।

যুক্তরাজ্যের রয়্যাল ইনস্টিটিউট অব ব্রিটিশ আর্কিটেক্টস (রিবা) মঙ্গলবার এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানায়, অসাধারণ নকশা ও সামাজিক প্রভাব বিবেচনায় বাংলাদেশের ফ্রেন্ডশিপ হাসপাতাল ভবনটিকে এই আন্তর্জাতিক পুরস্কারে ভূষিত করা হয়েছে।

গত বছরের ১৬ নভেম্বর রিবা আন্তর্জাতিক পুরস্কারে ‘বিশ্বের সেরা নতুন ভবনের’ সংক্ষিপ্ত তালিকা প্রকাশ করা হয়েছিল। সেখানে সাতক্ষীরার শ্যামনগর উপজেলার ফ্রেন্ডশিপ হাসপাতালের সঙ্গে স্থান পেয়েছিল জার্মানির বার্লিনের জেমস-সায়মন-গ্যালারি এবং ডেনমার্কের কোপেনহেগেনের লিলে ল্যাঞ্জেব্রো সেতু।

পুরস্কারের জুরি বোর্ড বলছে, জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে ঝুঁকিতে থাকা দক্ষিণ বাংলার জলো পরিবেশে গড়ে তোলা হয়েছে সাতক্ষীরার ফ্রেন্ডশিপ হাসপাতাল। তারা এই স্থাপনাটিকে একটি ‘মানবিক স্থাপত্য’ হিসেবে বর্ণনা করেছে।

বিজ্ঞপ্তিতে রিবার পক্ষ থেকে আরও বলা হয়, কম বাজাটের মধ্যেও স্থাপত্য কীভাবে প্রত্যন্ত গ্রামীণ এলাকাকে শক্তিশালী ও সক্ষম করে তুলতে পারে তার উৎসাহব্যঞ্জক উদাহরণ এই ফ্রেন্ডশিপ হাসপাতাল।

সাতক্ষীরার শ্যামনগর উপজেলার প্রত্যন্ত অঞ্চলের মানুষকে চিকিৎসাসেবা দিতে ২০১৮ সালের জুলাই মাসে চালু হয়েছে ফ্রেন্ডশিপ হাসপাতাল। ২০১৩ সালে নকশা করার পর চার বছরে এর নির্মাণকাজ শেষ হয়।

ফ্রেন্ডশিপ এনজিওর সহায়তায় বাংলাদেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলে গড়ে তোলা এই কমিউনিটি হাসপাতাল সাতক্ষীরার হাজার হাজার মানুষের চিকিৎসাসেবা পাওয়ার সুযোগ করে দিয়েছে। উপকূলের এমন একটি এলাকায় এ হাসপাতালটি নির্মাণ করা হয়েছে যা ২০০৭ সালের ঘূর্ণিঝড়ে ব্যাপকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছিল।

পুরস্কারের খবরে স্থপতি কাশেফ চৌধুরী বলেন, এটা খুবই গুরুত্বপূর্ণ মুহূর্ত, কারণ রিবা এবং এর জুরিরা বিশ্বের প্রান্তিক অঞ্চল থেকে একটি প্রকল্পকে চিহ্নিত করে বিশ্বের কেন্দ্রে তুলে এনেছেন।

ফ্রেন্ডশিপ হাসপাতাল রিবা অ্যাওয়ার্ড জয় করায় সবার প্রতি কৃতজ্ঞতা জানান ফ্রেন্ডশিপের প্রতিষ্ঠাতা নির্বাহী পরিচালক রুনা খান। তিনি বলেন, সাতক্ষীরার শ্যামনগর উপজেলার জলবায়ু পরিবর্তন প্রভাবিত লবণাক্ত এলাকায় অবস্থিত এ হাসপাতাল নির্মান করেছে উন্নয়ন সহযোগী সংস্থা ‘ফ্রেন্ডশিপ’। ২০ বছর ধরে জলবায়ু পরিবর্তনে প্রভাবিত স্থানীয় বাসিন্দাদের সঙ্গে আমরা কাজ করে দেখেছি এবং এতে আমার বিশ্বাস হয়েছে যে, নিজেদের ছোট ছোট সমস্যা সমাধানেও দরিদ্র মানুষকে বেগ পেতে হয়।

৬ জন চিকিৎসক, ১২ জন নার্স এবং অন্যান্য সহকারীর সমন্বয়ে ৮০ শয্যার এ হাসপাতালে রয়েছে ৪টি ওয়ার্ড। ৩টি অপারেশন থিয়েটারের মাধ্যমে বেশিরভাগ অস্ত্রোপচার হচ্ছে এখানে। প্রত্যন্ত এলাকায় সার্বক্ষণিক বিদ্যুৎ এবং অ্যাম্বুলেন্স সুবিধায় হাসপাতালের জরুরি বিভাগ খোলা থাকে ২৪ ঘণ্টা।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন