সিদ্ধিরগঞ্জ অয়েল ডিপো

পথে পথে হয়রানির প্রতিবাদে তেল সরবরাহ বন্ধ

প্রকাশ : ২৩ মে ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

  সিদ্ধিরগঞ্জ (নারায়ণগঞ্জ) প্রতিনিধি

ডিএমপি ট্রাফিক ও হাইওয়ে পুলিশের পথে পথে চাঁদাবাজি, হয়রানি ও মারধরের প্রতিবাদে বিমানের জ্বালানি তেলসহ অন্যান্য জ্বালানি তেল সরবরাহ বন্ধ রেখেছে ট্যাংকলরি চালক ও সহকারীরা।

মঙ্গলবার সকাল ৮টা থেকে নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জের গোদনাইল পদ্মা ও মেঘনা অয়েল কোম্পানির ডিপো থেকে জ্বালানি তেল সরবরাহ বন্ধ রাখে বিক্ষুব্ধ ট্যাংকলরি চালক ও সহকারীরা। ট্যাংকলরি শ্রমিকদের অভিযোগ, ডিএমপির ডেমরা জোনের ট্রাফিক ইন্সপেক্টর (টিআই) বিপ্লবসহ অসাধু কিছু ট্রাফিক পুলিশের সার্জেন্ট পথে পথে কাগজপত্র দেখার নামে চাঁদা আদায় করছে। চাঁদা দিতে অস্বীকার করলে চালকদের মারধর করে ডাম্পিং স্টেশনের ভয় দেখিয়ে হাতিয়ে নিচ্ছে মোটা অঙ্কের টাকা।

মঙ্গলবার দুপুরে বাংলাদেশ পেট্রল পাম্প ওনার্স অ্যাসোসিয়েশনের গোদনাইল পদ্মা শাখার সভাপতি আলহাজ আতিকুর রহমান নান্নু মুন্সি, সাধারণ সম্পাদক হাজী ফজলুল হক, সাইদুর রহমান প্রধান, মোসলেউদ্দিন, ঢাকা বিভাগীয় ট্যাংকলরি মালিক সমিতির সভাপতি হাজী আবুল হোসেন মেম্বার, সাধারণ সম্পাদক ইয়ার হোসেন ভূঁইয়া, বাংলাদেশ ট্যাংকলরি শ্রমিক ইউনিয়ন পদ্মা ইউনিটেড সভাপতি জাহিদ হাসান ও সাধাণ সম্পাদক ফারুক হোসেন প্রমুখ শ্রমিককে নিয়ে আলোচনায় বসলেও তারা সমস্যা সমাধানে ব্যর্থ হন। সংগঠনের নেতারা বলেন, সরকার ২৫ বছরের অধিক পুরনো ট্যাংকলরিগুলো চলাচলের ওপর জারি করা নিষেধাজ্ঞা শিথিল করলেও সড়ক-মহাসড়কের ডিএমপির যাত্রবাড়ী, ডেমরার স্টাফ কোয়ার্টার, রামপুরা, টঙ্গী, গাজীপুর, কোনাবাড়ী, জয়দেবপুর, সায়েদাবাদ, কাকরাইল, গাউছিয়া ও কাঁচপুর ডিএমপির ট্রাফিক পুলিশ ও হাইওয়ে পুলিশের সার্জেন্ট ও এসআইরা কাগজপত্র চেক করার নামে রাস্তায় তেল বহনকারী ট্যাংকলরি দাঁড় করিয়ে চালক, হেলপারদের সঙ্গে অশোভন আচরণ করেন। এছাড়া তাদের কাছ থেকে জোর করে অনৈতিক সুবিধা আদায়ের চেষ্টা করে। পুলিশের চাহিদামাফিক চাঁদা দিতে অস্বীকার করলে চালক ও হেলপারদের মারধর করা হয়। এ বিষয়ে গোদনাইল পদ্মা ডিপোর ম্যানেজার আনোয়ার হোসেন জানান, মালিক-শ্রমিকরা ধর্মঘটের বিষয়টি অবহিত করেছেন। এমডি সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়কে চিঠি দিয়ে জানিয়েছেন, আশ্বাস পেয়ে বুধবার থেকে জ্বালানি তেল সরবরাহের সিদ্ধান্ত নিয়েছে শ্রমিকরা।