নর্থ সাউথের চার ট্রাস্টির জামিন শুনানি মুলতুবি
jugantor
অর্থ আত্মসাৎ
নর্থ সাউথের চার ট্রাস্টির জামিন শুনানি মুলতুবি

  যুগান্তর প্রতিবেদন  

১৯ মে ২০২২, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসের জমি কেনা নিয়ে ৩০৩ কোটি ৮২ লাখ টাকা আত্মসাতের মামলায় ট্রাস্টি বোর্ডের চার সদস্যের আগাম জামিনের শুনানি আজ পর্যন্ত মুলতুবি করেছেন হাইকোর্ট।

বুধবার জামিন আবেদনের শুনানি নিয়ে বিচারপতি মো. নজরুল ইসলাম তালুকদার ও বিচারপতি কাজী মো. ইজারুল হক আকন্দের হাইকোর্ট বেঞ্চ এ দিন ধার্য করেন।

এরা হলেন-বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রাস্টি বোর্ডের সদস্য মোহাম্মদ শাহজাহান, এম এ কাশেম, বেনজীর আহমেদ ও রেহানা রহমান। বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্যাম্পাসের জমি কেনা বাবদ অতিরিক্ত ৩০৩ কোটি ৮২ লাখ টাকা ব্যয় দেখিয়ে তা আত্মসাতের অভিযোগে এ মামলা করে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)।

বোর্ডের সদস্যের পক্ষে শুনানি করেন জ্যেষ্ঠ আইনজীবী ব্যারিস্টার আজমালুল হোসেন কিউসি, এ. এফ. হাসান আরিফ। দুর্নীতি দমন কমিশনের পক্ষে ছিলেন জ্যেষ্ঠ আইনজীবী খুরশীদ আলম খান। আর রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন, অ্যাটর্নি জেনারেল এ এম আমিন উদ্দিন।

ব্যারিস্টার আজমালুল হোসেন কিউসি আগাম জামিনের পক্ষে বিভিন্ন যুক্তি উপস্থাপন করে বলেন, মামলার আসামি একজন শিল্পপতি, সমাজের প্রতিষ্ঠিত ব্যক্তি। অর্থ আত্নসাতের যে অভিযোগ আনা হয়েছে, তা সঠিক নয়। তাদের জামিন দিলে আইনের ব্যত্যয় ঘটবে না।

দুদকের আইনজীবী খুরশীদ আলম খান জামিনের বিরোধিতা করে বলেন, আসামিদের জামিন আবেদন আপিল বিভাগের যে গাইড লাইন রয়েছে তার মধ্যে আসে না। কাজেই তারা আগাম জামিন পাওয়ার হকদার নয়। সে অবস্থায় তাদের জামিন আবেদন খারিজ করে এখান থেকে জেল কাস্টডিতে পাঠিয়ে দেওয়া হোক।

তিনি বলেন, তারা বলেছেন, শিল্পপতি, বড়কিছু, আমাদের কথা হলো- আইনের কাছে সবাই সমান। সাবেক রাষ্ট্রপতি, সাবেক প্রধানমন্ত্রী, সাবেক প্রধান বিচারপতি, সাবেক সেনা প্রধানের সাজা হয়েছে। তাদের যদি সাজা হতে পারে, শিল্পপতি তো তাদের উপরে না। শিল্পপতি হোক, আর যেই হোক, তাকে আইনের নির্দিষ্ট গন্ডির মধ্যে চলতে হবে।

আইনজীবী বলেন, মঙ্গলবার এবি ব্যাংকের ১৭৬ কোটি টাকা আত্নসাতের মামলায় এরশাদ আলী জামিন নিতে এসেছিলেন। তাকে পুলিশে সোপর্দ করা হয়েছে। আর এখানে ৩০৩ কোটি টাকা।

দুদক আইনজীবী বলেন, নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয় একটি বেসরকারী, অলাভজনক প্রতিষ্ঠান। সেই ক্ষেত্রে অলাভজনক একটি প্রতিষ্ঠানকে নিয়ে ব্যবসা করছে। লন্ডারিং করছে। কাজেই তারা আগাম জামিন কোনোভাবেই পেতে পারেন না। তিনি বলেন, ডেসটিনির মামলায় জেছমিন ইসলামকে হাইকোর্ট জামিন দিয়েছিলেন। কিন্তু পরে আপিল বিভাগ তার জামিন বাতিল করেন। খুরশীদ আলম খান বলেন, নর্থ সাউথের এরা সংঘবদ্ধ অপরাধীচক্র। কাজেই তাদের আলাদাভাবে দেখার সুযোগ নাই।

৫ মে নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসের জমি কেনা বাবদ অতিরিক্ত ৩০৩ কোটি ৮২ লাখ টাকা ব্যয় দেখিয়ে তা আত্মসাতের অভিযোগে বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রাস্টি বোর্ডের চেয়ারম্যানসহ ছয় জনের বিরুদ্ধে মামলা করে দুদক। দুদকের উপ-পরিচালক মো. ফরিদ আহমেদ পাটোয়ারী ঢাকায় এ মামলা করেন। মামলার অপর আসামিরা হলেন- বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রাস্টি বোর্ডের চেয়ারম্যান আজিম উদ্দিন আহমেদ ও আশালয় হাউজিং অ্যান্ড ডেভেলপার্স লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক আমিন মো. হিলালী।

এজাহারে বলা হয়, নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের সিন্ডিকেট, বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন এবং শিক্ষা মন্ত্রণালয়কে পাশ কাটিয়ে ট্রাস্টি বোর্ডের কয়েকজন সদস্যের অনুমোদন/সম্মতির মাধ্যমে ক্যাম্পাস উন্নয়নের নামে ৯০৯৬ দশমিক ৮৮ ডেসিমেল জমির দাম ৩০৩ কোটি ৮২ লাখ ১৩ হাজার ৪৯৭ টাকা বেশি দেখিয়ে তা আত্মসাৎ করা হয়েছে।

অর্থ আত্মসাৎ

নর্থ সাউথের চার ট্রাস্টির জামিন শুনানি মুলতুবি

 যুগান্তর প্রতিবেদন 
১৯ মে ২০২২, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসের জমি কেনা নিয়ে ৩০৩ কোটি ৮২ লাখ টাকা আত্মসাতের মামলায় ট্রাস্টি বোর্ডের চার সদস্যের আগাম জামিনের শুনানি আজ পর্যন্ত মুলতুবি করেছেন হাইকোর্ট।

বুধবার জামিন আবেদনের শুনানি নিয়ে বিচারপতি মো. নজরুল ইসলাম তালুকদার ও বিচারপতি কাজী মো. ইজারুল হক আকন্দের হাইকোর্ট বেঞ্চ এ দিন ধার্য করেন।

এরা হলেন-বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রাস্টি বোর্ডের সদস্য মোহাম্মদ শাহজাহান, এম এ কাশেম, বেনজীর আহমেদ ও রেহানা রহমান। বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্যাম্পাসের জমি কেনা বাবদ অতিরিক্ত ৩০৩ কোটি ৮২ লাখ টাকা ব্যয় দেখিয়ে তা আত্মসাতের অভিযোগে এ মামলা করে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)।

বোর্ডের সদস্যের পক্ষে শুনানি করেন জ্যেষ্ঠ আইনজীবী ব্যারিস্টার আজমালুল হোসেন কিউসি, এ. এফ. হাসান আরিফ। দুর্নীতি দমন কমিশনের পক্ষে ছিলেন জ্যেষ্ঠ আইনজীবী খুরশীদ আলম খান। আর রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন, অ্যাটর্নি জেনারেল এ এম আমিন উদ্দিন।

ব্যারিস্টার আজমালুল হোসেন কিউসি আগাম জামিনের পক্ষে বিভিন্ন যুক্তি উপস্থাপন করে বলেন, মামলার আসামি একজন শিল্পপতি, সমাজের প্রতিষ্ঠিত ব্যক্তি। অর্থ আত্নসাতের যে অভিযোগ আনা হয়েছে, তা সঠিক নয়। তাদের জামিন দিলে আইনের ব্যত্যয় ঘটবে না।

দুদকের আইনজীবী খুরশীদ আলম খান জামিনের বিরোধিতা করে বলেন, আসামিদের জামিন আবেদন আপিল বিভাগের যে গাইড লাইন রয়েছে তার মধ্যে আসে না। কাজেই তারা আগাম জামিন পাওয়ার হকদার নয়। সে অবস্থায় তাদের জামিন আবেদন খারিজ করে এখান থেকে জেল কাস্টডিতে পাঠিয়ে দেওয়া হোক।

তিনি বলেন, তারা বলেছেন, শিল্পপতি, বড়কিছু, আমাদের কথা হলো- আইনের কাছে সবাই সমান। সাবেক রাষ্ট্রপতি, সাবেক প্রধানমন্ত্রী, সাবেক প্রধান বিচারপতি, সাবেক সেনা প্রধানের সাজা হয়েছে। তাদের যদি সাজা হতে পারে, শিল্পপতি তো তাদের উপরে না। শিল্পপতি হোক, আর যেই হোক, তাকে আইনের নির্দিষ্ট গন্ডির মধ্যে চলতে হবে।

আইনজীবী বলেন, মঙ্গলবার এবি ব্যাংকের ১৭৬ কোটি টাকা আত্নসাতের মামলায় এরশাদ আলী জামিন নিতে এসেছিলেন। তাকে পুলিশে সোপর্দ করা হয়েছে। আর এখানে ৩০৩ কোটি টাকা।

দুদক আইনজীবী বলেন, নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয় একটি বেসরকারী, অলাভজনক প্রতিষ্ঠান। সেই ক্ষেত্রে অলাভজনক একটি প্রতিষ্ঠানকে নিয়ে ব্যবসা করছে। লন্ডারিং করছে। কাজেই তারা আগাম জামিন কোনোভাবেই পেতে পারেন না। তিনি বলেন, ডেসটিনির মামলায় জেছমিন ইসলামকে হাইকোর্ট জামিন দিয়েছিলেন। কিন্তু পরে আপিল বিভাগ তার জামিন বাতিল করেন। খুরশীদ আলম খান বলেন, নর্থ সাউথের এরা সংঘবদ্ধ অপরাধীচক্র। কাজেই তাদের আলাদাভাবে দেখার সুযোগ নাই।

৫ মে নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসের জমি কেনা বাবদ অতিরিক্ত ৩০৩ কোটি ৮২ লাখ টাকা ব্যয় দেখিয়ে তা আত্মসাতের অভিযোগে বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রাস্টি বোর্ডের চেয়ারম্যানসহ ছয় জনের বিরুদ্ধে মামলা করে দুদক। দুদকের উপ-পরিচালক মো. ফরিদ আহমেদ পাটোয়ারী ঢাকায় এ মামলা করেন। মামলার অপর আসামিরা হলেন- বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রাস্টি বোর্ডের চেয়ারম্যান আজিম উদ্দিন আহমেদ ও আশালয় হাউজিং অ্যান্ড ডেভেলপার্স লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক আমিন মো. হিলালী।

এজাহারে বলা হয়, নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের সিন্ডিকেট, বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন এবং শিক্ষা মন্ত্রণালয়কে পাশ কাটিয়ে ট্রাস্টি বোর্ডের কয়েকজন সদস্যের অনুমোদন/সম্মতির মাধ্যমে ক্যাম্পাস উন্নয়নের নামে ৯০৯৬ দশমিক ৮৮ ডেসিমেল জমির দাম ৩০৩ কোটি ৮২ লাখ ১৩ হাজার ৪৯৭ টাকা বেশি দেখিয়ে তা আত্মসাৎ করা হয়েছে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন