প্রার্থীদের হলফনামার তথ্য যাচাইয়ের আহ্বান সুজনের
jugantor
কুমিল্লা সিটি নির্বাচন
প্রার্থীদের হলফনামার তথ্য যাচাইয়ের আহ্বান সুজনের

  যুগান্তর প্রতিবেদন  

২২ মে ২০২২, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

কুমিল্লা সিটি করপোরেশন নির্বাচনে অন্তত মেয়র প্রার্থীদের হলফনামার তথ্য যাচাই করতে নির্বাচন কমিশনের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে সুশাসনের জন্য নাগরিক (সুজন)। গতকাল এক বিবৃতিতে এ সংগঠনটি বলেছে, হলফনামার তথ্যের সঠিকতা যাচাই করা না হলে এটি নিছকই একটি অর্থহীন আনুষ্ঠানিকতায় পরিণত হয়। বিবৃতিতে সুজন সভাপতি এম হাফিজউদ্দিন খান ও সম্পাদক ড. বদিউল আলম মজুমদার সই করেন।

বিবৃতিতে বলা হয়, হলফনামা বিশ্লেষণ করে ভোটারদের কাছে প্রচার করে তাদের সচেতন করার এই কাজটি দীর্ঘদিন ধরে করে যাচ্ছে সুজন। প্রার্থীরা আসলে সঠিক তথ্য দিচ্ছেন কিনা- তা যাচাই করা আমাদের পক্ষে সম্ভব হয় না। এই কাজটি কমিশনের পক্ষেই করা সম্ভব। তাই আমরা কমিশনের প্রতি আহ্বান জানাচ্ছি, কুমিল্লা সিটি নির্বাচনকে সামনে রেখে অন্তত মেয়র প্রার্থীদের হলফনামার তথ্যের সঠিকতা যাচাই বাছাই করার উদ্যোগ নিন এবং জনগণকে তা অবহিত করুন। কারণ তথ্যের সঠিকতা যাচাই করা না হলে এটি নিছকই একটি অর্থহীন আনুষ্ঠানিকতায় পরিণত হয়। বিবৃতিতে তারা বলেন, সিটি করপোরেশন আইন অনুযায়ী কোনো প্রার্থী বা তার পরিবারের সদস্য যদি সিটি করপোরেশনের ঠিকাদার বা কোনোরূপ আর্থিক সংশ্লিষ্টতা থাকে তা হলে নির্বাচনের অযোগ্য হবেন। আমরা অতীতে এমন ব্যক্তিদের নির্বাচনে অংশগ্রহণ করতে দেখেছি। তাই যথাযথ তদন্ত করে এমন কোনো প্রার্থী পাওয়া গেলে তাদের অযোগ্য ঘোষণা করার জন্য কমিশনকে আমরা আহ্বান জানাচ্ছি। তারা আরও বলেন, আমাদের নির্বাচন কমিশন ও নির্বাচনব্যবস্থার ওপর জনগণের যে ব্যাপক অনাস্থা তৈরি হয়েছে তা ঘুচাতে হলে কমিশনকে সত্যিকার অর্থেই সদিচ্ছার সঙ্গে কাজ করতে হবে। কুমিল্লা সিটি করপোরেশন নির্বাচনে এ ধরনের পদক্ষেপ তার একটি সূচনা হতে পারে বলে আমরা মনে করি। প্রসঙ্গত, বর্তমানে প্রদত্ত হলফনামার ছকে অনেক দুর্বলতা রয়েছে। বর্তমান ছক পরিবর্তন-পরিবর্ধন করে সময়োপযোগী করার উদ্যোগ কমিশন গ্রহণ করবে বলে আমরা আশা করি।

হলফনামা ওয়েবাসাইটে প্রকাশের দাবি জানিয়ে বিবৃতিতে বলা হয়, কাজী হাবিবুল আউয়ালের নেতৃত্বে গঠিত বর্তমান নির্বাচন কমিশন দায়িত্ব গ্রহণের পর প্রথমবারের মতো বড় কোনো নির্বাচন আয়োজন করতে যাচ্ছে। আগামী ১৫ জুন কুমিল্লা সিটিতে এই নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। ইতোমধ্যে মনোনয়নপত্র জমা ও যাচাই বাছাই পর্বও শেষ হয়েছে। বিবৃতিতে স্বাক্ষরকারীরা বলেন, সাধারণত হলফনামাগুলো স্ক্যান করে পিডিএফ আকারে কমিশনের ওয়েবসাইটে দেওয়া হয়। দুঃখজনকভাবে অনুষ্ঠিতব্য কুমিল্লা সিটি করপোরেশন নির্বাচনের কোনো হলফনামা এখনো পর্যন্ত কমিশনের ওয়েবসাইটে দেওয়া হয়নি। তাই অতি দ্রুত প্রার্থীদের দেওয়া হলফনামা ওয়েবসাইটে দেওয়ার জন্য আমরা কমিশনের প্রতি আহ্বান জানাচ্ছি। একই সঙ্গে ভবিষ্যতে হলফনামা অনলাইনে জমা প্রদানের বিষয়টি বাধ্যতামূলক করার ওপর জোর দেওয়া উচিত বলে আমরা মনে করি।

এদিকে ইসির ওয়েবসাইটে দেখা যায়, গতকাল বিকাল পর্যন্ত ইসির ওয়েবসাইটে মেয়র এবং সাধারণ ও সংরক্ষিত ওয়ার্ডের অর্ধশতাধিক কাউন্সিলর প্রার্থীর হলফনামা প্রকাশ করা হয়।

কুমিল্লা সিটি নির্বাচন

প্রার্থীদের হলফনামার তথ্য যাচাইয়ের আহ্বান সুজনের

 যুগান্তর প্রতিবেদন 
২২ মে ২০২২, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

কুমিল্লা সিটি করপোরেশন নির্বাচনে অন্তত মেয়র প্রার্থীদের হলফনামার তথ্য যাচাই করতে নির্বাচন কমিশনের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে সুশাসনের জন্য নাগরিক (সুজন)। গতকাল এক বিবৃতিতে এ সংগঠনটি বলেছে, হলফনামার তথ্যের সঠিকতা যাচাই করা না হলে এটি নিছকই একটি অর্থহীন আনুষ্ঠানিকতায় পরিণত হয়। বিবৃতিতে সুজন সভাপতি এম হাফিজউদ্দিন খান ও সম্পাদক ড. বদিউল আলম মজুমদার সই করেন।

বিবৃতিতে বলা হয়, হলফনামা বিশ্লেষণ করে ভোটারদের কাছে প্রচার করে তাদের সচেতন করার এই কাজটি দীর্ঘদিন ধরে করে যাচ্ছে সুজন। প্রার্থীরা আসলে সঠিক তথ্য দিচ্ছেন কিনা- তা যাচাই করা আমাদের পক্ষে সম্ভব হয় না। এই কাজটি কমিশনের পক্ষেই করা সম্ভব। তাই আমরা কমিশনের প্রতি আহ্বান জানাচ্ছি, কুমিল্লা সিটি নির্বাচনকে সামনে রেখে অন্তত মেয়র প্রার্থীদের হলফনামার তথ্যের সঠিকতা যাচাই বাছাই করার উদ্যোগ নিন এবং জনগণকে তা অবহিত করুন। কারণ তথ্যের সঠিকতা যাচাই করা না হলে এটি নিছকই একটি অর্থহীন আনুষ্ঠানিকতায় পরিণত হয়। বিবৃতিতে তারা বলেন, সিটি করপোরেশন আইন অনুযায়ী কোনো প্রার্থী বা তার পরিবারের সদস্য যদি সিটি করপোরেশনের ঠিকাদার বা কোনোরূপ আর্থিক সংশ্লিষ্টতা থাকে তা হলে নির্বাচনের অযোগ্য হবেন। আমরা অতীতে এমন ব্যক্তিদের নির্বাচনে অংশগ্রহণ করতে দেখেছি। তাই যথাযথ তদন্ত করে এমন কোনো প্রার্থী পাওয়া গেলে তাদের অযোগ্য ঘোষণা করার জন্য কমিশনকে আমরা আহ্বান জানাচ্ছি। তারা আরও বলেন, আমাদের নির্বাচন কমিশন ও নির্বাচনব্যবস্থার ওপর জনগণের যে ব্যাপক অনাস্থা তৈরি হয়েছে তা ঘুচাতে হলে কমিশনকে সত্যিকার অর্থেই সদিচ্ছার সঙ্গে কাজ করতে হবে। কুমিল্লা সিটি করপোরেশন নির্বাচনে এ ধরনের পদক্ষেপ তার একটি সূচনা হতে পারে বলে আমরা মনে করি। প্রসঙ্গত, বর্তমানে প্রদত্ত হলফনামার ছকে অনেক দুর্বলতা রয়েছে। বর্তমান ছক পরিবর্তন-পরিবর্ধন করে সময়োপযোগী করার উদ্যোগ কমিশন গ্রহণ করবে বলে আমরা আশা করি।

হলফনামা ওয়েবাসাইটে প্রকাশের দাবি জানিয়ে বিবৃতিতে বলা হয়, কাজী হাবিবুল আউয়ালের নেতৃত্বে গঠিত বর্তমান নির্বাচন কমিশন দায়িত্ব গ্রহণের পর প্রথমবারের মতো বড় কোনো নির্বাচন আয়োজন করতে যাচ্ছে। আগামী ১৫ জুন কুমিল্লা সিটিতে এই নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। ইতোমধ্যে মনোনয়নপত্র জমা ও যাচাই বাছাই পর্বও শেষ হয়েছে। বিবৃতিতে স্বাক্ষরকারীরা বলেন, সাধারণত হলফনামাগুলো স্ক্যান করে পিডিএফ আকারে কমিশনের ওয়েবসাইটে দেওয়া হয়। দুঃখজনকভাবে অনুষ্ঠিতব্য কুমিল্লা সিটি করপোরেশন নির্বাচনের কোনো হলফনামা এখনো পর্যন্ত কমিশনের ওয়েবসাইটে দেওয়া হয়নি। তাই অতি দ্রুত প্রার্থীদের দেওয়া হলফনামা ওয়েবসাইটে দেওয়ার জন্য আমরা কমিশনের প্রতি আহ্বান জানাচ্ছি। একই সঙ্গে ভবিষ্যতে হলফনামা অনলাইনে জমা প্রদানের বিষয়টি বাধ্যতামূলক করার ওপর জোর দেওয়া উচিত বলে আমরা মনে করি।

এদিকে ইসির ওয়েবসাইটে দেখা যায়, গতকাল বিকাল পর্যন্ত ইসির ওয়েবসাইটে মেয়র এবং সাধারণ ও সংরক্ষিত ওয়ার্ডের অর্ধশতাধিক কাউন্সিলর প্রার্থীর হলফনামা প্রকাশ করা হয়।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন