চট্টগ্রামে বৃষ্টিতে হাঁটু থেকে কোমর পানি
jugantor
চট্টগ্রামে বৃষ্টিতে হাঁটু থেকে কোমর পানি
নিম্নাঞ্চলে জলাবদ্ধতা

  চট্টগ্রাম ব্যুরো  

২২ মে ২০২২, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

পানি

চট্টগ্রামে বৃষ্টিতে পানি উঠেছে নগরীর বিভিন্ন এলাকায়। কোথাও কোথাও হাঁটু থেকে কোমর সমান পানি ওঠে। শনিবার সকাল ৮টা থেকে ৯টা পর্যন্ত মাত্র এক ঘণ্টার বৃষ্টিপাতে নগরবাসী এ দুর্ভোগে পড়েন। বৃষ্টিতে তলিয়ে যায় নগরীর বিভিন্ন সড়ক। পানি ঢুকে জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়েছে নিচু এলাকার ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ও বাসা বাড়িতে। প্রধান সড়কে ও ফ্লাইওভারের নিচে হাঁটু থেকে কোমর পানি থৈ থৈ করে।

চট্টগ্রামের পতেঙ্গা আবহাওয়া অফিসের পূর্বাভাস কর্মকর্তা বিশ্বজিৎ চৌধুরী জানান, কালবৈশাখীর প্রভাবে শনিবার সকালে বৃষ্টিপাত শুরু হয়। সকাল ৯টা থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত ৪৮ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়েছে। কাল (আজ) রোববার চট্টগ্রামের বিভিন্ন স্থানে বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে বলেও জানান এ কর্মকর্তা।

এদিকে এক ঘণ্টার বৃষ্টিতে নগরীর মুরাদপুর এলাকায় সড়কে কোমর সমান পানি উঠে যায়। এ কারণে আটকা পড়ে শত শত যানবাহন। দীর্ঘক্ষণ যানজটের কবলে পড়তে হয় নগরবাসীকে। অবশ্য ৯টার দিকে বৃষ্টি কমে যায়। এর এক ঘণ্টা পর সড়ক থেকে পানি নেমে গেলে যানবাহন চলাচল স্বাভাবিক হয়। নগরীর বহদ্দারহাট থেকে জিইসি মোড় পর্যন্ত সড়কে ব্যাপক যানজটের সৃষ্টি হয়। প্রধান এই সড়কে ফ্লাইওভারের নিচে হাঁটু পানি ওঠে। বিশেষ করে ষোলশহর দুই নম্বর গেট ও মুরাদপুর এলাকার সড়ক পানিতে সয়লাব হয়ে যায়। একই অবস্থা নগরীর চকবাজার, বাকলিয়া, রাস্তারমাথা, হালিশহর, আগ্রাবাদ সিডিএ আবাসিক এলাকা, আগ্রাবাদ কমার্স কলেজ রোড, মোগলটুলি, মোস্তাফিজুর রহমান ডিগ্রি কলেজসহ বিভিন্ন স্থানে। বাকলিয়াসহ কিছু কিছু নিচু এলাকার বাসা বাড়ি এবং ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে পানি ঢুকেছে বলেও জানা গেছে। বৃষ্টি ও জলাবদ্ধতার কারণে সবচেয়ে বেশি দুর্ভোগে পড়ে স্কুল-কলেজগামী শিক্ষার্থীসহ বিভিন্ন কাজে বের হওয়া লোকজন।

চট্টগ্রামে বৃষ্টিতে হাঁটু থেকে কোমর পানি

নিম্নাঞ্চলে জলাবদ্ধতা
 চট্টগ্রাম ব্যুরো 
২২ মে ২০২২, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ
পানি
চট্টগ্রাম নগরীর ষোলশহরে রাস্তায় জমে আছে পানি। ভারি বর্ষণে শনিবার এভাবেই তলিয়ে যায় নগরীর নিচু এলাকার পথঘাট। দুর্ভোগ পোহাতে হয় নগরবাসীকে -যুগান্তর

চট্টগ্রামে বৃষ্টিতে পানি উঠেছে নগরীর বিভিন্ন এলাকায়। কোথাও কোথাও হাঁটু থেকে কোমর সমান পানি ওঠে। শনিবার সকাল ৮টা থেকে ৯টা পর্যন্ত মাত্র এক ঘণ্টার বৃষ্টিপাতে নগরবাসী এ দুর্ভোগে পড়েন। বৃষ্টিতে তলিয়ে যায় নগরীর বিভিন্ন সড়ক। পানি ঢুকে জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়েছে নিচু এলাকার ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ও বাসা বাড়িতে। প্রধান সড়কে ও ফ্লাইওভারের নিচে হাঁটু থেকে কোমর পানি থৈ থৈ করে।

চট্টগ্রামের পতেঙ্গা আবহাওয়া অফিসের পূর্বাভাস কর্মকর্তা বিশ্বজিৎ চৌধুরী জানান, কালবৈশাখীর প্রভাবে শনিবার সকালে বৃষ্টিপাত শুরু হয়। সকাল ৯টা থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত ৪৮ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়েছে। কাল (আজ) রোববার চট্টগ্রামের বিভিন্ন স্থানে বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে বলেও জানান এ কর্মকর্তা।

এদিকে এক ঘণ্টার বৃষ্টিতে নগরীর মুরাদপুর এলাকায় সড়কে কোমর সমান পানি উঠে যায়। এ কারণে আটকা পড়ে শত শত যানবাহন। দীর্ঘক্ষণ যানজটের কবলে পড়তে হয় নগরবাসীকে। অবশ্য ৯টার দিকে বৃষ্টি কমে যায়। এর এক ঘণ্টা পর সড়ক থেকে পানি নেমে গেলে যানবাহন চলাচল স্বাভাবিক হয়। নগরীর বহদ্দারহাট থেকে জিইসি মোড় পর্যন্ত সড়কে ব্যাপক যানজটের সৃষ্টি হয়। প্রধান এই সড়কে ফ্লাইওভারের নিচে হাঁটু পানি ওঠে। বিশেষ করে ষোলশহর দুই নম্বর গেট ও মুরাদপুর এলাকার সড়ক পানিতে সয়লাব হয়ে যায়। একই অবস্থা নগরীর চকবাজার, বাকলিয়া, রাস্তারমাথা, হালিশহর, আগ্রাবাদ সিডিএ আবাসিক এলাকা, আগ্রাবাদ কমার্স কলেজ রোড, মোগলটুলি, মোস্তাফিজুর রহমান ডিগ্রি কলেজসহ বিভিন্ন স্থানে। বাকলিয়াসহ কিছু কিছু নিচু এলাকার বাসা বাড়ি এবং ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে পানি ঢুকেছে বলেও জানা গেছে। বৃষ্টি ও জলাবদ্ধতার কারণে সবচেয়ে বেশি দুর্ভোগে পড়ে স্কুল-কলেজগামী শিক্ষার্থীসহ বিভিন্ন কাজে বের হওয়া লোকজন।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন