ভারতে পেঁয়াজের কেজি ৬ রুপি কৃষকের বিক্ষোভ
jugantor
ভারতে পেঁয়াজের কেজি ৬ রুপি কৃষকের বিক্ষোভ

  যুগান্তর ডেস্ক  

২২ মে ২০২২, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

একমাস আগেও ভারতের মহারাষ্ট্রে পেঁয়াজের পাইকারি দর ছিল কেজিপ্রতি ১৫ রুপি। কিন্তু এখন সেই পেঁয়াজের দাম কমে ছয় রুপিতে বিক্রি হচ্ছে। পেঁয়াজের দাম ক্রমাগত কমতে থাকার প্রতিবাদে রাস্তায় নেমেছেন মহারাষ্ট্রের কৃষকরা। বৃহস্পতিবার স্থানীয় কৃষি অফিসের সামনে রাস্তা অবরোধ করেন তারা। এতে নাসিক ও মালেগাঁওয়ের মধ্যে প্রায় এক ঘণ্টা যান চলাচল বন্ধ থাকে। খবর টাইমস অব ইন্ডিয়ার।

ক্ষুব্ধ পেঁয়াজ চাষিরা বলেছেন, গত কয়েক দিনে পেঁয়াজের পাইকারি দাম প্রতি কুইন্টাল (১০০ কেজি) এক হাজার রুপি থেকে কমে ৪০০ থেকে ৬০০ রুপিতে দাঁড়িয়েছে। একমাস আগেও এক কুইন্টাল পেঁয়াজের দাম ছিল দেড় হাজার রুপি। কৃষকদের সুবিধার জন্য প্রতি কুইন্টাল ২ হাজার ৫০০ রুপি থেকে তিন হাজার রুপি মূল্যে কেন্দ্রীয় সরকারের পেঁয়াজ সংগ্রহ করা উচিত বলে মন্তব্য করছেন চাষিরা।

মহারাষ্ট্রের আওরঙ্গবাদের ভাইজাপুর তেহসিলের কৃষক ধনঞ্জয় জানান, নিজের পাঁচ একর জমির মধ্যে চার একরে পেঁয়াজ চাষ করেছেন। আগাম পেঁয়াজ বিক্রি করে অন্তত তিন লাখ রুপি আয় করার প্রত্যাশা ছিল তার। কিন্তু স্বপ্ন ভেঙে যেতে দেখে হতাশায় ডুবেছেন তিনি।

রাজ্যের পেঁয়াজ চাষি সমিতির নাসিক জেলা সভাপতি জয়দীপ ভাদানে বলেন, প্রতি কুইন্টাল পেঁয়াজ উৎপাদনে তাদের খরচ পড়ছে দুই হাজার রুপি, কিন্তু বিক্রি করে সেই খরচ উঠছে না। তিনি বলেন, পেঁয়াজের পাইকারি দাম কমে যাওয়ায় কৃষকদের ব্যাপক ক্ষতি হচ্ছে। আমরা চাই, কেন্দ্র ও রাজ্য সরকার গত দুই মাস কম দামে পেঁয়াজ বিক্রি করেছে এমন কৃষকদের জন্য প্রতি কুইন্টালে ৫০০ রুপি অনুদান ঘোষণা করুক।

পেঁয়াজ চাষি সমিতির এ নেতা অভিযোগ করেন, ন্যাশনাল এগ্রিকালচার কো-অপারেটিভ মার্কেটিং ফেডারেশন অব ইন্ডিয়া লিমিটেড (এনএএফইডি) সরাসরি কৃষকদের কাছ থেকে না কিনে তৃতীয় পক্ষের মাধ্যমে পেঁয়াজ সংগ্রহ করছে। এতে কৃষকরা ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছেন।

ভারতে পেঁয়াজের কেজি ৬ রুপি কৃষকের বিক্ষোভ

 যুগান্তর ডেস্ক 
২২ মে ২০২২, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

একমাস আগেও ভারতের মহারাষ্ট্রে পেঁয়াজের পাইকারি দর ছিল কেজিপ্রতি ১৫ রুপি। কিন্তু এখন সেই পেঁয়াজের দাম কমে ছয় রুপিতে বিক্রি হচ্ছে। পেঁয়াজের দাম ক্রমাগত কমতে থাকার প্রতিবাদে রাস্তায় নেমেছেন মহারাষ্ট্রের কৃষকরা। বৃহস্পতিবার স্থানীয় কৃষি অফিসের সামনে রাস্তা অবরোধ করেন তারা। এতে নাসিক ও মালেগাঁওয়ের মধ্যে প্রায় এক ঘণ্টা যান চলাচল বন্ধ থাকে। খবর টাইমস অব ইন্ডিয়ার।

ক্ষুব্ধ পেঁয়াজ চাষিরা বলেছেন, গত কয়েক দিনে পেঁয়াজের পাইকারি দাম প্রতি কুইন্টাল (১০০ কেজি) এক হাজার রুপি থেকে কমে ৪০০ থেকে ৬০০ রুপিতে দাঁড়িয়েছে। একমাস আগেও এক কুইন্টাল পেঁয়াজের দাম ছিল দেড় হাজার রুপি। কৃষকদের সুবিধার জন্য প্রতি কুইন্টাল ২ হাজার ৫০০ রুপি থেকে তিন হাজার রুপি মূল্যে কেন্দ্রীয় সরকারের পেঁয়াজ সংগ্রহ করা উচিত বলে মন্তব্য করছেন চাষিরা।

মহারাষ্ট্রের আওরঙ্গবাদের ভাইজাপুর তেহসিলের কৃষক ধনঞ্জয় জানান, নিজের পাঁচ একর জমির মধ্যে চার একরে পেঁয়াজ চাষ করেছেন। আগাম পেঁয়াজ বিক্রি করে অন্তত তিন লাখ রুপি আয় করার প্রত্যাশা ছিল তার। কিন্তু স্বপ্ন ভেঙে যেতে দেখে হতাশায় ডুবেছেন তিনি।

রাজ্যের পেঁয়াজ চাষি সমিতির নাসিক জেলা সভাপতি জয়দীপ ভাদানে বলেন, প্রতি কুইন্টাল পেঁয়াজ উৎপাদনে তাদের খরচ পড়ছে দুই হাজার রুপি, কিন্তু বিক্রি করে সেই খরচ উঠছে না। তিনি বলেন, পেঁয়াজের পাইকারি দাম কমে যাওয়ায় কৃষকদের ব্যাপক ক্ষতি হচ্ছে। আমরা চাই, কেন্দ্র ও রাজ্য সরকার গত দুই মাস কম দামে পেঁয়াজ বিক্রি করেছে এমন কৃষকদের জন্য প্রতি কুইন্টালে ৫০০ রুপি অনুদান ঘোষণা করুক।

পেঁয়াজ চাষি সমিতির এ নেতা অভিযোগ করেন, ন্যাশনাল এগ্রিকালচার কো-অপারেটিভ মার্কেটিং ফেডারেশন অব ইন্ডিয়া লিমিটেড (এনএএফইডি) সরাসরি কৃষকদের কাছ থেকে না কিনে তৃতীয় পক্ষের মাধ্যমে পেঁয়াজ সংগ্রহ করছে। এতে কৃষকরা ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছেন।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন