১০ উইকেটে হেরে সিরিজ হাতছাড়া
jugantor
১০ উইকেটে হেরে সিরিজ হাতছাড়া

  জ্যোতির্ময় মণ্ডল  

২৮ মে ২০২২, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

দুই নম্বর গেটের বাইরে তখনও জটলা। জাতীয় দলের ক্রিকেটারদের এক পলক দেখার আশায় ভিড় জমিয়েছেন ভক্তরা।

ভেতরে বিসিবি সভাপতির জন্য অপেক্ষা। আরেকটা হতাশার সিরিজ শেষে নতুন কোনো বার্তা দেন কিনা বোর্ড সভাপতি। তার আগেই শেষ প্রধান কোচ রাসেল ডমিঙ্গোর ম্যাচ-উত্তর সংবাদ সম্মেলন।

প্রথম ইনিংসে ২৪ রানে পাঁচ উইকেট হারানোর পর মুশফিকুর রহিম ও লিটন দাসের ব্যাটে ধ্বংসস্তূপ থেকে প্রত্যাবর্তনের যে গল্প লেখা হয়েছে, সেই ম্যাচ জিততে শ্রীলংকার লেগেছে মাত্র তিন ওভার। লিটন দাস (৫২) ও সাকিব আল হাসানের (৫৮) ১০৩ রানের জুটির পরও দ্বিতীয় ইনিংসে বাংলাদেশ অলআউট মাত্র ১৬৯ রানে।

২৩ রানে চার উইকেট হারানো বাংলাদেশ শেষ পাঁচ উইকেট হারিয়েছে আট ওভারে, ১৩ রানের ব্যবধানে। প্রথম ইনিংসে লংকানদের লিড ছিল ১৪১ রানের। ২৯ রানের লক্ষ্যে ব্যাটিংয়ে নেমে শ্রীলংকা দ্বিতীয় ও শেষ টেস্ট জিতে নিয়েছে ১০ উইকেটে। খেলতে হয়েছে তাদের মাত্র তিন ওভার। দুই টেস্টের সিরিজ লংকানরা জিতেছে ১-০ তে। চট্টগ্রামে প্রথম টেস্ট ড্র হয়।

অর্থনৈতিক পর্যুদস্ত অবস্থা শ্রীলংকায়। এই সিরিজ জিতে দেশের মানুষের মুখে কিছুটা হাসি ফোটাতে পেরেছেন করুনারত্নেরা। টাইগারদের ঘরের মাঠে ম্যাচসেরা আসিথা ফার্নান্ডো ও সিরিজসেরা অ্যাঞ্জেলো ম্যাথুস। কিন্তু সব ধরনের সুযোগ-সুবিধা থাকার পরও সাদা পোশাকে মুমিনুল হকরা কবে বাংলাদেশের মানুষের মুখে হাসি ফোটাবেন কে জানে।

পরের সিরিজে ভালো কিছু করার স্বপ্ন কোচ রাসেল ডমিঙ্গোও দেখতে পারছেন না। আগামী মাসে ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফর। এ নিয়ে প্রধান কোচ বলেন, ‘ওয়েস্ট ইন্ডিজের উইকেটে পেস ও বাউন্স থাকবে। আমাদের পেসাররাও হয়তো সেখানে ভালো কিছু করবে।’ মধ্যাহ্ন-বিরতির আগে শেষ বলে বাউন্ডারি মেরে ২৭তম টেস্ট ফিফটি পেয়ে ব্যাট উঁচু করে মাঠ ছেড়েছিলেন সাকিব।

বিরতির পর প্রথম ওভারেই দুটি সিঙ্গেল নিয়ে ক্যারিয়ারের ১৩তম হাফ সেঞ্চুরি ছুঁয়ে ফেলেন লিটন দাস। দুজনের দুটি ফিফটিতে ম্যাচ বাঁচানোর সম্ভাবনা উঁকি দিয়েছিল। বাংলাদেশের ড্রেসিংরুমে প্রত্যাশা বাড়ে। আলো মুছে যেতে সময় লাগেনি। পরের ওভারেই আসিথা ফার্নান্ডোর অফ-স্টাম্পে পিচ করা লেংথ বল হালকা মুভ করে ঢোকে ভেতরে। লিটন সোজা ব্যাটে ড্রাইভ করার চেষ্টায় শেষ মুহূর্তে যেন থমকে যান।

তাতেই বল ভেসে যায় বাতাসে। এগিয়ে গিয়ে দারুণ ক্যাচ নেন ফার্নান্ডো। সংবাদ সম্মেলনে নিরোশান ডিকভেলা ম্যাচ শেষে জানান, লিটনের উইকেটটাই ম্যাচের টার্নিং পয়েন্ট। তার বিদায়ের পর মোসাদ্দেককে নিয়ে সাকিব আশা জাগাচ্ছিলেন। সেই আসিথার বলেই তিনিও ধরা পড়েন। সাকিবের জন্য সকাল থেকেই শর্টবলের পরিকল্পনা নিয়ে বল করছিল শ্রীলংকা। সাকিব কয়েকবার পুল খেলে সফলও হন।

তবে এবার আসিথার বলে আর পারলেন না। শরীর তাক করা বাউন্সার পুল করার চেষ্টায় দেরি করে ফেলেন সাকিব। বল তার গ্লাভসে লেগে সহজ ক্যাচ উঠে যায় কিপার ডিকভেলার কাছে। চতুর্থদিন শেষে সাকিব বলেছিলেন, শেষদিনে অন্তত তিন ঘণ্টা ব্যাট করতে চান তিনি। ক্রিজে ছিলেন দুই ঘণ্টা ২১ মিনিট।

মোসাদ্দেক পারেননি বেশিক্ষণ উইকেটে থাকতে। তাকে এলবিডব্লুর ফাঁদে ফেলেন কুশল মেন্ডিস। সিরিজে শ্রীলংকার স্পিনারদের এটাই প্রথম উইকেট। তার আগেই একটি রেকর্ড হয়ে গেছে স্পিনারদের। সবচেয়ে বেশি ওভার বোলিংয়ের পর স্পিনাররা কোনো উইকেট পাননি। এরআগে শ্রীলংকার স্পিনারদের উইকেট পেতে এত দীর্ঘ সময় বোলিংয়ের প্রয়োজন হয়নি।

আসিথার দাপটে শেষ পাঁচ উইকেট হারাতে বাংলাদেশ খেলেছে মাত্র ৭.২ ওভার। ছয় উইকেট তুলে নিয়েছেন এই লংকান পেসার। দিনের শুরুতে মুশফিুক রহিমের আত্মবিশ্বাসী রক্ষণাত্মক ব্যাটিং প্রত্যাশা বাড়িয়েছিল। শুরুতে কিছুটা নড়বড়ে ছিলেন লিটন। রাজিথাকে খেলতে গিয়ে সমস্যায় পড়েন মুশফিক। বল কিছুটা স্কিট করে লো হয়ে যায়। মিস করে বোল্ড হন মুশফিক।

প্রথম ইনিংসে চার উইকেট নেওয়া আসিথা ফার্নান্ডো দ্বিতীয় ইনিংসে ছয় উইকেট নেন ৫১ রান দিয়ে। ম্যাচে এই প্রথম ১০ উইকেট পেলেন তিনি। প্রায় চার সেশন খেলা না হওয়া ব্যাটিং সহায়ক উইকেটেও হেরে হতাশ করল বাংলাদেশ। তবে কি সত্যিই বাংলাদেশের দশদিন দুটি টেস্টে মাঠে থাকার সামর্থ্য নেই।

১০ উইকেটে হেরে সিরিজ হাতছাড়া

 জ্যোতির্ময় মণ্ডল 
২৮ মে ২০২২, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

দুই নম্বর গেটের বাইরে তখনও জটলা। জাতীয় দলের ক্রিকেটারদের এক পলক দেখার আশায় ভিড় জমিয়েছেন ভক্তরা।

ভেতরে বিসিবি সভাপতির জন্য অপেক্ষা। আরেকটা হতাশার সিরিজ শেষে নতুন কোনো বার্তা দেন কিনা বোর্ড সভাপতি। তার আগেই শেষ প্রধান কোচ রাসেল ডমিঙ্গোর ম্যাচ-উত্তর সংবাদ সম্মেলন।

প্রথম ইনিংসে ২৪ রানে পাঁচ উইকেট হারানোর পর মুশফিকুর রহিম ও লিটন দাসের ব্যাটে ধ্বংসস্তূপ থেকে প্রত্যাবর্তনের যে গল্প লেখা হয়েছে, সেই ম্যাচ জিততে শ্রীলংকার লেগেছে মাত্র তিন ওভার। লিটন দাস (৫২) ও সাকিব আল হাসানের (৫৮) ১০৩ রানের জুটির পরও দ্বিতীয় ইনিংসে বাংলাদেশ অলআউট মাত্র ১৬৯ রানে।

২৩ রানে চার উইকেট হারানো বাংলাদেশ শেষ পাঁচ উইকেট হারিয়েছে আট ওভারে, ১৩ রানের ব্যবধানে। প্রথম ইনিংসে লংকানদের লিড ছিল ১৪১ রানের। ২৯ রানের লক্ষ্যে ব্যাটিংয়ে নেমে শ্রীলংকা দ্বিতীয় ও শেষ টেস্ট জিতে নিয়েছে ১০ উইকেটে। খেলতে হয়েছে তাদের মাত্র তিন ওভার। দুই টেস্টের সিরিজ লংকানরা জিতেছে ১-০ তে। চট্টগ্রামে প্রথম টেস্ট ড্র হয়।

অর্থনৈতিক পর্যুদস্ত অবস্থা শ্রীলংকায়। এই সিরিজ জিতে দেশের মানুষের মুখে কিছুটা হাসি ফোটাতে পেরেছেন করুনারত্নেরা। টাইগারদের ঘরের মাঠে ম্যাচসেরা আসিথা ফার্নান্ডো ও সিরিজসেরা অ্যাঞ্জেলো ম্যাথুস। কিন্তু সব ধরনের সুযোগ-সুবিধা থাকার পরও সাদা পোশাকে মুমিনুল হকরা কবে বাংলাদেশের মানুষের মুখে হাসি ফোটাবেন কে জানে।

পরের সিরিজে ভালো কিছু করার স্বপ্ন কোচ রাসেল ডমিঙ্গোও দেখতে পারছেন না। আগামী মাসে ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফর। এ নিয়ে প্রধান কোচ বলেন, ‘ওয়েস্ট ইন্ডিজের উইকেটে পেস ও বাউন্স থাকবে। আমাদের পেসাররাও হয়তো সেখানে ভালো কিছু করবে।’ মধ্যাহ্ন-বিরতির আগে শেষ বলে বাউন্ডারি মেরে ২৭তম টেস্ট ফিফটি পেয়ে ব্যাট উঁচু করে মাঠ ছেড়েছিলেন সাকিব।

বিরতির পর প্রথম ওভারেই দুটি সিঙ্গেল নিয়ে ক্যারিয়ারের ১৩তম হাফ সেঞ্চুরি ছুঁয়ে ফেলেন লিটন দাস। দুজনের দুটি ফিফটিতে ম্যাচ বাঁচানোর সম্ভাবনা উঁকি দিয়েছিল। বাংলাদেশের ড্রেসিংরুমে প্রত্যাশা বাড়ে। আলো মুছে যেতে সময় লাগেনি। পরের ওভারেই আসিথা ফার্নান্ডোর অফ-স্টাম্পে পিচ করা লেংথ বল হালকা মুভ করে ঢোকে ভেতরে। লিটন সোজা ব্যাটে ড্রাইভ করার চেষ্টায় শেষ মুহূর্তে যেন থমকে যান।

তাতেই বল ভেসে যায় বাতাসে। এগিয়ে গিয়ে দারুণ ক্যাচ নেন ফার্নান্ডো। সংবাদ সম্মেলনে নিরোশান ডিকভেলা ম্যাচ শেষে জানান, লিটনের উইকেটটাই ম্যাচের টার্নিং পয়েন্ট। তার বিদায়ের পর মোসাদ্দেককে নিয়ে সাকিব আশা জাগাচ্ছিলেন। সেই আসিথার বলেই তিনিও ধরা পড়েন। সাকিবের জন্য সকাল থেকেই শর্টবলের পরিকল্পনা নিয়ে বল করছিল শ্রীলংকা। সাকিব কয়েকবার পুল খেলে সফলও হন।

তবে এবার আসিথার বলে আর পারলেন না। শরীর তাক করা বাউন্সার পুল করার চেষ্টায় দেরি করে ফেলেন সাকিব। বল তার গ্লাভসে লেগে সহজ ক্যাচ উঠে যায় কিপার ডিকভেলার কাছে। চতুর্থদিন শেষে সাকিব বলেছিলেন, শেষদিনে অন্তত তিন ঘণ্টা ব্যাট করতে চান তিনি। ক্রিজে ছিলেন দুই ঘণ্টা ২১ মিনিট।

মোসাদ্দেক পারেননি বেশিক্ষণ উইকেটে থাকতে। তাকে এলবিডব্লুর ফাঁদে ফেলেন কুশল মেন্ডিস। সিরিজে শ্রীলংকার স্পিনারদের এটাই প্রথম উইকেট। তার আগেই একটি রেকর্ড হয়ে গেছে স্পিনারদের। সবচেয়ে বেশি ওভার বোলিংয়ের পর স্পিনাররা কোনো উইকেট পাননি। এরআগে শ্রীলংকার স্পিনারদের উইকেট পেতে এত দীর্ঘ সময় বোলিংয়ের প্রয়োজন হয়নি।

আসিথার দাপটে শেষ পাঁচ উইকেট হারাতে বাংলাদেশ খেলেছে মাত্র ৭.২ ওভার। ছয় উইকেট তুলে নিয়েছেন এই লংকান পেসার। দিনের শুরুতে মুশফিুক রহিমের আত্মবিশ্বাসী রক্ষণাত্মক ব্যাটিং প্রত্যাশা বাড়িয়েছিল। শুরুতে কিছুটা নড়বড়ে ছিলেন লিটন। রাজিথাকে খেলতে গিয়ে সমস্যায় পড়েন মুশফিক। বল কিছুটা স্কিট করে লো হয়ে যায়। মিস করে বোল্ড হন মুশফিক।

প্রথম ইনিংসে চার উইকেট নেওয়া আসিথা ফার্নান্ডো দ্বিতীয় ইনিংসে ছয় উইকেট নেন ৫১ রান দিয়ে। ম্যাচে এই প্রথম ১০ উইকেট পেলেন তিনি। প্রায় চার সেশন খেলা না হওয়া ব্যাটিং সহায়ক উইকেটেও হেরে হতাশ করল বাংলাদেশ। তবে কি সত্যিই বাংলাদেশের দশদিন দুটি টেস্টে মাঠে থাকার সামর্থ্য নেই।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : বাংলাদেশ-শ্রীলংকা টেস্ট সিরিজ, ঢাকা ২০২২