পররাষ্ট্রমন্ত্রী জনগণের সঙ্গে তামাশা করছেন: মির্জা ফখরুল
jugantor
পররাষ্ট্রমন্ত্রী জনগণের সঙ্গে তামাশা করছেন: মির্জা ফখরুল

  যুগান্তর প্রতিবেদন  

১৪ আগস্ট ২০২২, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

অন্য দেশের তুলনায় বাংলাদেশকে ‘বেহেশত’ উল্লেখ করে পররাষ্ট্রমন্ত্রী জনগণের সঙ্গে ‘তামাশা’ করছেন বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। জনদুর্ভোগের সময়ে পররাষ্ট্রমন্ত্রীর এমন বক্তব্য দেওয়ার অধিকার নেই উল্লেখ করে তিনি বলেন, পররাষ্ট্রমন্ত্রী এর আগেও এমন এমন সব উক্তি করেছেন যা দেশের মানুষের কাছে কিছুটা হাস্যকর ব্যাপার হয়ে দাঁড়িয়েছে।

শনিবার দুপুরে রাজধানীর গুলশানে বিএনপি চেয়ারপারসনের রাজনৈতিক কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব বলেন। এ প্রসঙ্গে বিএনপি মহাসচিব আরও বলেন, দেশের মানুষের যখন প্রতিমুহূর্তে জীবন দুর্বিষহ হচ্ছে, কষ্ট করছে সেই সময়ে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বললেন যে, বেহেশতে আছে। আমি দুঃখিত ব্যক্তিগত পর্যায়ে কথা বলছি। ইদানীংকালে পররাষ্ট্রমন্ত্রীর চেহারার মধ্যে ফুটে উঠেছে যে, তিনি স্ফীত হয়েছেন। বেশিরভাগ মন্ত্রীর একই অবস্থা। তার কারণটা হচ্ছে প্রচুর লুটপাট হচ্ছে। সেই লুটপাটের কারণে তারা জনগণের সঙ্গে পরিহাস, তামাশা শুরু করেছেন।

শুক্রবার সিলেট ওসমানী আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে ভূমি অধিগ্রহণ জটিলতা নিরসনসংক্রান্ত বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. একে আবদুল মোমেন বলেন, ‘বিশ্বের অন্য দেশের তুলনায় আমরা সুখে আাছি, বেহেশতে আছি। করোনার পর যুদ্ধে সারা বিশ্বে মন্দা ভাব আসছে। যুদ্ধের ফলে স্যাংশনের মুখে পড়তে হয়েছে। সাপ্লাই চেঞ্জে ব্যাঘাত হচ্ছে। যার ফলে বিভিন্ন দেশে মন্দা এসেছে। আমরা সেদিক থেকে অত্যন্ত ভালো অবস্থানে আছি।’

সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন-বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ইকবাল হাসান মাহমুদ টুকু ও চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা ইসমাইল জবিহউল্লাহ।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী দেশবাসীর কাছে কৌতুক অভিনেতায় পরিণত হয়েছেন-রিজভী : এদিকে শনিবার সকালে রাজধানীর নয়াপল্টনে এক আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিলে বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী বলেছেন, পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. একে আবদুল মোমেন দেশবাসীর কাছে কৌতুক অভিনেতায় পরিণত হয়েছেন। আরাফাত রহমান কোকোর ৫৩তম জন্মদিন উপলক্ষ্যে ওই সভার আয়োজন করে জিয়া মঞ্চ।

পররাষ্ট্রমন্ত্রীর উদ্দেশে রিজভী বলেন, বাংলাদেশের মানুষ নয়, সরকারের বশংবদরা বেহেশতে আছে। আওয়ামী লীগের ওয়ার্ডের নেতারা এখন কোটিপতি। লক্ষ কোটি টাকা লুটপাট করে যারা বিদেশে টাকা পাচার করেছে, যারা বিদেশে অট্টালিকা তৈরি করেছে, সেই টাকা পাচারকারীরা বেহেশতে আছেন। অচিরেই সেই বেহেশত ভেঙে খান খান হয়ে যাবে।

তিনি বলেন, পররাষ্ট্রমন্ত্রী আপনি তো বাজারে যান না, রিকশাওয়ালার কথা শোনেন না, গরিব মানুষের কথা শোনেন না। একটা ডিমের দাম এখন সাড়ে বারো টাকা, এক হালি ডিমের দাম পঞ্চাশ টাকা, এক কেজি ইলিশ কিনতে দুই হাজার টাকা লাগে। সবজি বাজারে এখন আগুন, মানুষ চাল-ডাল-সবজি কিনতে পারছে না। অভাবের তাড়নায় মানুষ সন্তান বিক্রি করছে। জনগণ আপনাদের তৈরি করা আগুনে জ্বলেপুড়ে মরছে।

জিয়া মঞ্চের সভাপতি আব্দুস সালামের সভাপতিত্বে আলোচনা ও দোয়া মাহফিলে আরও বক্তব্য দেন বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাডভোকেট আব্দুস সালাম আজাদ, স্বেচ্ছাসেবকবিষয়ক সম্পাদক মীর সরফত আলী সপু, কেন্দ্রীয় নেতা অধ্যাপক আমিনুল ইসলাম প্রমুখ।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী জনগণের সঙ্গে তামাশা করছেন: মির্জা ফখরুল

 যুগান্তর প্রতিবেদন 
১৪ আগস্ট ২০২২, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

অন্য দেশের তুলনায় বাংলাদেশকে ‘বেহেশত’ উল্লেখ করে পররাষ্ট্রমন্ত্রী জনগণের সঙ্গে ‘তামাশা’ করছেন বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। জনদুর্ভোগের সময়ে পররাষ্ট্রমন্ত্রীর এমন বক্তব্য দেওয়ার অধিকার নেই উল্লেখ করে তিনি বলেন, পররাষ্ট্রমন্ত্রী এর আগেও এমন এমন সব উক্তি করেছেন যা দেশের মানুষের কাছে কিছুটা হাস্যকর ব্যাপার হয়ে দাঁড়িয়েছে।

শনিবার দুপুরে রাজধানীর গুলশানে বিএনপি চেয়ারপারসনের রাজনৈতিক কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব বলেন। এ প্রসঙ্গে বিএনপি মহাসচিব আরও বলেন, দেশের মানুষের যখন প্রতিমুহূর্তে জীবন দুর্বিষহ হচ্ছে, কষ্ট করছে সেই সময়ে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বললেন যে, বেহেশতে আছে। আমি দুঃখিত ব্যক্তিগত পর্যায়ে কথা বলছি। ইদানীংকালে পররাষ্ট্রমন্ত্রীর চেহারার মধ্যে ফুটে উঠেছে যে, তিনি স্ফীত হয়েছেন। বেশিরভাগ মন্ত্রীর একই অবস্থা। তার কারণটা হচ্ছে প্রচুর লুটপাট হচ্ছে। সেই লুটপাটের কারণে তারা জনগণের সঙ্গে পরিহাস, তামাশা শুরু করেছেন।

শুক্রবার সিলেট ওসমানী আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে ভূমি অধিগ্রহণ জটিলতা নিরসনসংক্রান্ত বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. একে আবদুল মোমেন বলেন, ‘বিশ্বের অন্য দেশের তুলনায় আমরা সুখে আাছি, বেহেশতে আছি। করোনার পর যুদ্ধে সারা বিশ্বে মন্দা ভাব আসছে। যুদ্ধের ফলে স্যাংশনের মুখে পড়তে হয়েছে। সাপ্লাই চেঞ্জে ব্যাঘাত হচ্ছে। যার ফলে বিভিন্ন দেশে মন্দা এসেছে। আমরা সেদিক থেকে অত্যন্ত ভালো অবস্থানে আছি।’

সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন-বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ইকবাল হাসান মাহমুদ টুকু ও চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা ইসমাইল জবিহউল্লাহ।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী দেশবাসীর কাছে কৌতুক অভিনেতায় পরিণত হয়েছেন-রিজভী : এদিকে শনিবার সকালে রাজধানীর নয়াপল্টনে এক আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিলে বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী বলেছেন, পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. একে আবদুল মোমেন দেশবাসীর কাছে কৌতুক অভিনেতায় পরিণত হয়েছেন। আরাফাত রহমান কোকোর ৫৩তম জন্মদিন উপলক্ষ্যে ওই সভার আয়োজন করে জিয়া মঞ্চ।

পররাষ্ট্রমন্ত্রীর উদ্দেশে রিজভী বলেন, বাংলাদেশের মানুষ নয়, সরকারের বশংবদরা বেহেশতে আছে। আওয়ামী লীগের ওয়ার্ডের নেতারা এখন কোটিপতি। লক্ষ কোটি টাকা লুটপাট করে যারা বিদেশে টাকা পাচার করেছে, যারা বিদেশে অট্টালিকা তৈরি করেছে, সেই টাকা পাচারকারীরা বেহেশতে আছেন। অচিরেই সেই বেহেশত ভেঙে খান খান হয়ে যাবে।

তিনি বলেন, পররাষ্ট্রমন্ত্রী আপনি তো বাজারে যান না, রিকশাওয়ালার কথা শোনেন না, গরিব মানুষের কথা শোনেন না। একটা ডিমের দাম এখন সাড়ে বারো টাকা, এক হালি ডিমের দাম পঞ্চাশ টাকা, এক কেজি ইলিশ কিনতে দুই হাজার টাকা লাগে। সবজি বাজারে এখন আগুন, মানুষ চাল-ডাল-সবজি কিনতে পারছে না। অভাবের তাড়নায় মানুষ সন্তান বিক্রি করছে। জনগণ আপনাদের তৈরি করা আগুনে জ্বলেপুড়ে মরছে।

জিয়া মঞ্চের সভাপতি আব্দুস সালামের সভাপতিত্বে আলোচনা ও দোয়া মাহফিলে আরও বক্তব্য দেন বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাডভোকেট আব্দুস সালাম আজাদ, স্বেচ্ছাসেবকবিষয়ক সম্পাদক মীর সরফত আলী সপু, কেন্দ্রীয় নেতা অধ্যাপক আমিনুল ইসলাম প্রমুখ।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন