আ.লীগ নেতাকে পেটালেন কাউন্সিলর
jugantor
আ.লীগ নেতাকে পেটালেন কাউন্সিলর
থানায় জিডি

  যুগান্তর প্রতিবেদন  

১৮ আগস্ট ২০২২, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

ঢাকা মহানগর ১৩ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক জসিম উদ্দিনকে পিটিয়ে আহত করেছেন ওই ওয়ার্ডের কাউন্সিলর এনামুল হক আবুল ও তার লোকজন।

মঙ্গলবার দিবাগত রাত ১২টার দিকে স্থানীয় একটি হোটেলে আটকে তাকে পেটানো হয়। জসিম উদ্দিনকে গুরুতর অবস্থায় ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

বুধবার পল্টন থানায় করা এ নিয়ে জিডি করেন জসিম উদ্দিনের মেয়ে পল্টন থানা মহিলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শিবা আক্তর যুথি। এ ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে বলে যুথি জানান।

যুথি জিডিতে বলেন, সম্প্রতি আমি পল্টন থানা মহিলা লীগের সাধারণ সম্পাদক নির্বাচত হই। এরপর থেকে আবুলের লোকজন সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে আমার সম্পর্কে আজেবাজে লেখালেখি করেন। আমি কাউন্সিলর আবুলের কাছে এসব লেখালেখির কারণ জানতে চাই।

এতে ক্ষিপ্ত হয়ে আবুল ও তার লোকজন আমার বাবাকে স্থানীয় হোয়াইট হাউজে বেধড়ক মারধর করে। গুরুতর আহত অবস্থায় রাতেই বাবাকে হাসপাতালে নেওয়া হয়। তার অবস্থা আশঙ্কাজনক।

এ বিষয়ে কাউন্সিলর এনামুল হক আবুল জানিয়েছেন, রাতে তিনি শান্তিনগর হোয়াইট হাউজে বসে মিটিং করছিলেন।

এ সময় জসিম সেখানে গিয়ে মিরন নামের যুবলীগ নেতাকে গালাগালি করেন। তাকে মারতে উদ্যত হন। এ সময় তিনি জসিমকে নিবৃত করার চেষ্টা করেন। ওই সময় জসিমের সঙ্গে মিরনের হাতাহাতি হয়। মারামারির ঘটনায় তার কোনো সম্পৃক্ততা নেই।

আ.লীগ নেতাকে পেটালেন কাউন্সিলর

থানায় জিডি
 যুগান্তর প্রতিবেদন 
১৮ আগস্ট ২০২২, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

ঢাকা মহানগর ১৩ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক জসিম উদ্দিনকে পিটিয়ে আহত করেছেন ওই ওয়ার্ডের কাউন্সিলর এনামুল হক আবুল ও তার লোকজন।

মঙ্গলবার দিবাগত রাত ১২টার দিকে স্থানীয় একটি হোটেলে আটকে তাকে পেটানো হয়। জসিম উদ্দিনকে গুরুতর অবস্থায় ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

বুধবার পল্টন থানায় করা এ নিয়ে জিডি করেন জসিম উদ্দিনের মেয়ে পল্টন থানা মহিলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শিবা আক্তর যুথি। এ ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে বলে যুথি জানান।

যুথি জিডিতে বলেন, সম্প্রতি আমি পল্টন থানা মহিলা লীগের সাধারণ সম্পাদক নির্বাচত হই। এরপর থেকে আবুলের লোকজন সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে আমার সম্পর্কে আজেবাজে লেখালেখি করেন। আমি কাউন্সিলর আবুলের কাছে এসব লেখালেখির কারণ জানতে চাই।

এতে ক্ষিপ্ত হয়ে আবুল ও তার লোকজন আমার বাবাকে স্থানীয় হোয়াইট হাউজে বেধড়ক মারধর করে। গুরুতর আহত অবস্থায় রাতেই বাবাকে হাসপাতালে নেওয়া হয়। তার অবস্থা আশঙ্কাজনক।

এ বিষয়ে কাউন্সিলর এনামুল হক আবুল জানিয়েছেন, রাতে তিনি শান্তিনগর হোয়াইট হাউজে বসে মিটিং করছিলেন।

এ সময় জসিম সেখানে গিয়ে মিরন নামের যুবলীগ নেতাকে গালাগালি করেন। তাকে মারতে উদ্যত হন। এ সময় তিনি জসিমকে নিবৃত করার চেষ্টা করেন। ওই সময় জসিমের সঙ্গে মিরনের হাতাহাতি হয়। মারামারির ঘটনায় তার কোনো সম্পৃক্ততা নেই।

 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন