কাহারোলে সারের দাবিতে কৃষকদের সড়ক অবরোধ
jugantor
কাহারোলে সারের দাবিতে কৃষকদের সড়ক অবরোধ

  বীরগঞ্জ (দিনাজপুর) প্রতিনিধি  

২০ আগস্ট ২০২২, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

সারের দাবিতে দিনাজপুরের কাহারোলে সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ হয়েছে। শুক্রবার দুপুর ১২টা থেকে সাড়ে ১২টা পর্যন্ত উচিৎপুর নামক স্থানে কৃষকরা সড়ক অবারোধ করে রাখেন। খবর পেয়ে কাহারোল উপজেলা নির্বাহী অফিসার মনিরুল হাসান ও উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা আবু জাফর মো. সাদেক ঘটনাস্থলে গিয়ে তালিকা তৈরি করে সার বিতরণের আশ্বাস দিলে কৃষকরা সড়ক অবরোধ তুলে নেন।

জানা যায়, সকালে কাহারোল বাজারের বিভিন্ন দোকানে সার কেনার জন্য লাইনে দাঁড়ান কৃষকরা। দীর্ঘ সময় দাঁড়িয়ে সার না পেয়ে ক্ষুব্ধ হয়ে তারা সড়ক অবরোধ করেন।

কৃষকদের অভিযোগ, সরকার ইউরিয়া ও টিএসপি সারের মূল্য নির্ধারণ করেছে বস্তা ১ হাজার ১০০ টাকা, এমওপি ৭৫০ টাকা ও ড্যাপ ৮০০ টাকা। কিন্তু ডিলাররা সব সারে বস্তাপ্রতি ১০০-২০০ টাকা বেশি রাখছেন। শুধু তাই নয় সাধারণ কৃষকদের চাহিদামাফিক সার না দিয়ে ডিলাররা তাদের মনোনীত লোকজন ও আধিয়ারদের সার সরবরাহ করছেন।

আনোয়ার হোসেন নামে এক কৃষক জানান, গত কয়েকদিন বিভিন্ন জায়গায় ধরনা দিয়েও কৃষকরা সার পাচ্ছেন না। কিছু জায়গায় সার পাওয়া গেলেও দাম বস্তাতে ১০০ টাকা থেকে ২০০ টাকা বেশি নেওয়া হচ্ছে। বিষয়টি জানার পর বৃহস্পতিবার বিকাল থেকে সার বিক্রি বন্ধ করে দেয় উপজেলা প্রশাসন। আজ (শুক্রবার) সকাল থেকে বিক্রি করার কথা থাকলেও কোথাও সার পাওয়া যায়নি। তাই বাধ্য হয়ে সড়ক অবরোধ করেছি।

উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা আবু জাফর মো. সাদেক বলেন, উপজেলায় বিএডিসির ১৭ জন এবং বিসিআইসির ১০ জন ডিলার রয়েছে। সার বিতরণে ডিলারদের বিরুদ্ধে কয়েকজন কৃষক অনিয়মের অভিযোগ তুলেছেন। কৃষকদের মাঝে সুষ্ঠুভাবে সার বিতরণ করার কথা বিবেচনায় নিয়ে উপজেলায় ১০ জন বিসিআইসি ও বিএডিসির ডিলারের গোডাউন সিলগালা করা হয়েছে। শুক্রবার সকাল থেকে কৃষি বিভাগের কর্মকর্তাদের উপস্থিতিতে সার বিতরণ করা কথা ছিল। কিন্তু কৃষকরা সার না পেয়ে তারা সড়ক অবরোধ করেন।

এ বিষয়ে কাহারোল উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মনিরুল হাসান বলেন, সার বিতরণে কোনো ধরনের অনিয়ম বরদাস্ত করা হবে না। মনিটরিং কার্যক্রম বাড়ানো হবে। তালিকা তৈরি করে কৃষকদের সার দেওয়া হবে।

কাহারোলে সারের দাবিতে কৃষকদের সড়ক অবরোধ

 বীরগঞ্জ (দিনাজপুর) প্রতিনিধি 
২০ আগস্ট ২০২২, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

সারের দাবিতে দিনাজপুরের কাহারোলে সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ হয়েছে। শুক্রবার দুপুর ১২টা থেকে সাড়ে ১২টা পর্যন্ত উচিৎপুর নামক স্থানে কৃষকরা সড়ক অবারোধ করে রাখেন। খবর পেয়ে কাহারোল উপজেলা নির্বাহী অফিসার মনিরুল হাসান ও উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা আবু জাফর মো. সাদেক ঘটনাস্থলে গিয়ে তালিকা তৈরি করে সার বিতরণের আশ্বাস দিলে কৃষকরা সড়ক অবরোধ তুলে নেন।

জানা যায়, সকালে কাহারোল বাজারের বিভিন্ন দোকানে সার কেনার জন্য লাইনে দাঁড়ান কৃষকরা। দীর্ঘ সময় দাঁড়িয়ে সার না পেয়ে ক্ষুব্ধ হয়ে তারা সড়ক অবরোধ করেন।

কৃষকদের অভিযোগ, সরকার ইউরিয়া ও টিএসপি সারের মূল্য নির্ধারণ করেছে বস্তা ১ হাজার ১০০ টাকা, এমওপি ৭৫০ টাকা ও ড্যাপ ৮০০ টাকা। কিন্তু ডিলাররা সব সারে বস্তাপ্রতি ১০০-২০০ টাকা বেশি রাখছেন। শুধু তাই নয় সাধারণ কৃষকদের চাহিদামাফিক সার না দিয়ে ডিলাররা তাদের মনোনীত লোকজন ও আধিয়ারদের সার সরবরাহ করছেন।

আনোয়ার হোসেন নামে এক কৃষক জানান, গত কয়েকদিন বিভিন্ন জায়গায় ধরনা দিয়েও কৃষকরা সার পাচ্ছেন না। কিছু জায়গায় সার পাওয়া গেলেও দাম বস্তাতে ১০০ টাকা থেকে ২০০ টাকা বেশি নেওয়া হচ্ছে। বিষয়টি জানার পর বৃহস্পতিবার বিকাল থেকে সার বিক্রি বন্ধ করে দেয় উপজেলা প্রশাসন। আজ (শুক্রবার) সকাল থেকে বিক্রি করার কথা থাকলেও কোথাও সার পাওয়া যায়নি। তাই বাধ্য হয়ে সড়ক অবরোধ করেছি।

উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা আবু জাফর মো. সাদেক বলেন, উপজেলায় বিএডিসির ১৭ জন এবং বিসিআইসির ১০ জন ডিলার রয়েছে। সার বিতরণে ডিলারদের বিরুদ্ধে কয়েকজন কৃষক অনিয়মের অভিযোগ তুলেছেন। কৃষকদের মাঝে সুষ্ঠুভাবে সার বিতরণ করার কথা বিবেচনায় নিয়ে উপজেলায় ১০ জন বিসিআইসি ও বিএডিসির ডিলারের গোডাউন সিলগালা করা হয়েছে। শুক্রবার সকাল থেকে কৃষি বিভাগের কর্মকর্তাদের উপস্থিতিতে সার বিতরণ করা কথা ছিল। কিন্তু কৃষকরা সার না পেয়ে তারা সড়ক অবরোধ করেন।

এ বিষয়ে কাহারোল উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মনিরুল হাসান বলেন, সার বিতরণে কোনো ধরনের অনিয়ম বরদাস্ত করা হবে না। মনিটরিং কার্যক্রম বাড়ানো হবে। তালিকা তৈরি করে কৃষকদের সার দেওয়া হবে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন