রূপগঞ্জে র‌্যাবের ওপর হামলায় মামলা
jugantor
রূপগঞ্জে র‌্যাবের ওপর হামলায় মামলা
বজলুসহ আসামি ৩১ গ্রেফতার ১১

  রূপগঞ্জ (নারায়ণগঞ্জ) প্রতিনিধি  

৩০ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জে মাদক উদ্ধার অভিযানে র‌্যাবের ওপর হামলার ঘটনায় মামলা হয়েছে। বৃহস্পতিবার সকালে ইউপি সদস্য বজলুর রহমান বজলুসহ ৩১ জনের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাতনামা ৪০০ থেকে ৫০০ জনকে আসামি করে রূপগঞ্জ থানায় তিনটি মামলা করা হয়। এ ঘটনায় বুধ ও বৃহস্পতিবার আরও ১১ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

গ্রেফতার ব্যক্তিরা হলেন চনপাড়া পুনর্বাসন কেন্দ্র এলাকার পারভিন বেগম, রিপন মিয়া, রাজু আহাম্মেদ রাজা, চনপাড়া ৯নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য বজলুর রহমান বজলুর ভাই হাসান, তপু মিয়া, জসিম বেপারী, বাবু, আমিন, রাসেল হোসেন, নাজমুল হোসেন রায়হান ও সুজন। পলাতক আসামিরা হলেন একই এলাকার ইউপি সদস্য বজলুর রহমান বজলু, শাওন, মোস্তফা, শিল্পী বেগম, মোবারক, ফাইজউদ্দিন, শাহ আলম, সোহাগ মাঝি, মিঠু, সিরাজুল, সাদ্দাম, মুন্না, পিয়াস, ওমর, মহসিন, বিল্লাল, আরাফাত, সম্রাট, বিকাশ ও মাল্টা রনিসহ অজ্ঞাতনামা আসামিরা।

এজাহারের বরাত দিয়ে রূপগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এএফএম সায়েদ বলেন, মঙ্গলবার রাতে র‌্যাব-১ এর সদস্যরা রূপগঞ্জ উপজেলার চনপাড়া পুনর্বাসন কেন্দ্র এলাকায় অভিযান চালায়। ওই সময় মাদক ও অস্ত্র উদ্ধারসহ পাঁচজনকে গ্রেফতার করা হয়। আসামিদের গাড়িতে উঠানোর সময় এজাহারনামীয় ও অজ্ঞাতনামা পলাতক আসামিরা র‌্যাবের ওপর হামলা চালায়। তারা গুলি ছোড়ে এবং ইটপাটকেল নিক্ষেপ করে। আসামিদের ছিনিয়ে নেওয়ার উদ্দেশ্যে রাস্তায় টায়ারে আগুন ধরিয়ে অবরোধ করে। ইটপাটকেলের আঘাতে র‌্যাব সদস্য নাঈম ইসলাম, খন্দকার কামরুজ্জামান ইমন আহত হন। হামলাকারীরা র‌্যাবের সরকারী গাড়িও ভাঙচুর করে।

ওসি জানান, ওই সময় তিন কেজি ৮৫০ গ্রাম গাঁজা, মাদক বিক্রির ২৮ হাজার ৪০০ টাকা, ১৫ গ্রাম হেরোইন ও ম্যাগাজিনসহ একটি বিদেশি পিস্তল উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় র‌্যাব-১, সিপিসি-১ এর নায়েব সুবেদার তৌফিকুল ইসলাম বাদী হয়ে মামলা তিনটি করেন।

রূপগঞ্জে র‌্যাবের ওপর হামলায় মামলা

বজলুসহ আসামি ৩১ গ্রেফতার ১১
 রূপগঞ্জ (নারায়ণগঞ্জ) প্রতিনিধি 
৩০ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জে মাদক উদ্ধার অভিযানে র‌্যাবের ওপর হামলার ঘটনায় মামলা হয়েছে। বৃহস্পতিবার সকালে ইউপি সদস্য বজলুর রহমান বজলুসহ ৩১ জনের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাতনামা ৪০০ থেকে ৫০০ জনকে আসামি করে রূপগঞ্জ থানায় তিনটি মামলা করা হয়। এ ঘটনায় বুধ ও বৃহস্পতিবার আরও ১১ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

গ্রেফতার ব্যক্তিরা হলেন চনপাড়া পুনর্বাসন কেন্দ্র এলাকার পারভিন বেগম, রিপন মিয়া, রাজু আহাম্মেদ রাজা, চনপাড়া ৯নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য বজলুর রহমান বজলুর ভাই হাসান, তপু মিয়া, জসিম বেপারী, বাবু, আমিন, রাসেল হোসেন, নাজমুল হোসেন রায়হান ও সুজন। পলাতক আসামিরা হলেন একই এলাকার ইউপি সদস্য বজলুর রহমান বজলু, শাওন, মোস্তফা, শিল্পী বেগম, মোবারক, ফাইজউদ্দিন, শাহ আলম, সোহাগ মাঝি, মিঠু, সিরাজুল, সাদ্দাম, মুন্না, পিয়াস, ওমর, মহসিন, বিল্লাল, আরাফাত, সম্রাট, বিকাশ ও মাল্টা রনিসহ অজ্ঞাতনামা আসামিরা।

এজাহারের বরাত দিয়ে রূপগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এএফএম সায়েদ বলেন, মঙ্গলবার রাতে র‌্যাব-১ এর সদস্যরা রূপগঞ্জ উপজেলার চনপাড়া পুনর্বাসন কেন্দ্র এলাকায় অভিযান চালায়। ওই সময় মাদক ও অস্ত্র উদ্ধারসহ পাঁচজনকে গ্রেফতার করা হয়। আসামিদের গাড়িতে উঠানোর সময় এজাহারনামীয় ও অজ্ঞাতনামা পলাতক আসামিরা র‌্যাবের ওপর হামলা চালায়। তারা গুলি ছোড়ে এবং ইটপাটকেল নিক্ষেপ করে। আসামিদের ছিনিয়ে নেওয়ার উদ্দেশ্যে রাস্তায় টায়ারে আগুন ধরিয়ে অবরোধ করে। ইটপাটকেলের আঘাতে র‌্যাব সদস্য নাঈম ইসলাম, খন্দকার কামরুজ্জামান ইমন আহত হন। হামলাকারীরা র‌্যাবের সরকারী গাড়িও ভাঙচুর করে।

ওসি জানান, ওই সময় তিন কেজি ৮৫০ গ্রাম গাঁজা, মাদক বিক্রির ২৮ হাজার ৪০০ টাকা, ১৫ গ্রাম হেরোইন ও ম্যাগাজিনসহ একটি বিদেশি পিস্তল উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় র‌্যাব-১, সিপিসি-১ এর নায়েব সুবেদার তৌফিকুল ইসলাম বাদী হয়ে মামলা তিনটি করেন।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন