নৈরাজ্য করলে ছেড়ে কথা বলব না
jugantor
রাজশাহীতে আ.লীগের সমাবেশে লিটন
নৈরাজ্য করলে ছেড়ে কথা বলব না

  রাজশাহী ব্যুরো  

০২ ডিসেম্বর ২০২২, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

বিএনপির দেশবিরোধী ষড়যন্ত্রের প্রতিবাদে বৃহস্পতিবার বিকালে রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগের বিক্ষোভ ও প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। বিক্ষোভ মিছিলটি নগরীর কুমাপাড়ায় দলীয় কার্যালয়ে শুরু হয়ে সাহেব বাজার জিরোপয়েন্টসহ নগরীর সাতটি পয়েন্ট অতিক্রম জয়বাংলা চত্বরে গিয়ে শেষ হয়।

মিছিলের নেতৃত্ব দেন আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ও রাজশাহী সিটি করপোরেশনের মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন। সমাবেশে বিএনপির উদ্দেশে লিটন বলেন, দেশে নৈরাজ্য সৃষ্টির চেষ্টা করবেন না। রাজশাহীতে শান্তিপূর্ণ সমাবেশ করুন। নৈরাজ্য করলে আমরা ছেড়ে কথা বলব না।

এর আগে উন্নয়ন কার্যক্রম ব্যাহত ও বিএনপির দেশবিরোধী ষড়যন্ত্রের প্রতিবাদে রাজশাহীর কুমারপাড়ায় দলীয় কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করে রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগ। ৩ ডিসেম্বর বিএনপির রাজশাহী বিভাগীয় মহাসমাবেশ উপলক্ষ্যে এই সংবাদ সম্মেলন ডাকা হয়।

বিএনপি সংকট তৈরি করলে তাৎক্ষণিকভাবে কঠোর জবাব দেওয়ার ঘোষণা দেওয়া হয়েছে সংবাদ সম্মেলনে। সংবাদ সম্মেলনে আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী পরিষদের সদস্য বেগম আকতার জাহান, মহানগর আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মোহাম্মদ আলী কামাল, সহ-সভাপতি ও রাজশাহী জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মীর ইকবাল, সাধারণ সম্পাদক ডাবলু সরকার প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মোহাম্মদ আলী কামাল সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন। সমাবেশ পরিচালনা করেন মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ডাবলু সরকার। কর্মসূচিতে মহানগর আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের কয়েক হাজার নেতাকর্মী অংশগ্রহণ করেন।

সমাবেশে খায়রুজ্জামান লিটন বলেন, নির্বাচন করবেন তবে এখন বলছেন, তত্ত্বাবধায়ক সরকার ছাড়া নির্বাচন করবেন না, শেখ হাসিনার অধীনে নির্বাচন করবেন না। আপনাদের জন্য নির্বাচন থেমে থাকবে না। নির্বাচনে আসেন, কিছু আসন পেলেও পেতে পারেন।

তিনি আরও বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশে ব্যাপক উন্নয়ন দৃশ্যমান। বাংলাদেশে নদীর তল দিয়ে টানেল তৈরি হচ্ছে। ঈশ্বরদীতে পরমাণু বিদ্যুৎ কেন্দ্র হচ্ছে, যেখানে ২ হাজার ৪০০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদন হবে। বাংলাদেশকে কাঙ্ক্ষিত জায়গায় নিয়ে যাবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

বিএনপির উদ্দেশে খায়রুজ্জামান লিটন বলেন, সরকার অনুমতি দিয়েছে সমাবেশ করেন। ভদ্রভাবে করেন।

রাজশাহীতে আ.লীগের সমাবেশে লিটন

নৈরাজ্য করলে ছেড়ে কথা বলব না

 রাজশাহী ব্যুরো 
০২ ডিসেম্বর ২০২২, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

বিএনপির দেশবিরোধী ষড়যন্ত্রের প্রতিবাদে বৃহস্পতিবার বিকালে রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগের বিক্ষোভ ও প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। বিক্ষোভ মিছিলটি নগরীর কুমাপাড়ায় দলীয় কার্যালয়ে শুরু হয়ে সাহেব বাজার জিরোপয়েন্টসহ নগরীর সাতটি পয়েন্ট অতিক্রম জয়বাংলা চত্বরে গিয়ে শেষ হয়।

মিছিলের নেতৃত্ব দেন আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ও রাজশাহী সিটি করপোরেশনের মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন। সমাবেশে বিএনপির উদ্দেশে লিটন বলেন, দেশে নৈরাজ্য সৃষ্টির চেষ্টা করবেন না। রাজশাহীতে শান্তিপূর্ণ সমাবেশ করুন। নৈরাজ্য করলে আমরা ছেড়ে কথা বলব না।

এর আগে উন্নয়ন কার্যক্রম ব্যাহত ও বিএনপির দেশবিরোধী ষড়যন্ত্রের প্রতিবাদে রাজশাহীর কুমারপাড়ায় দলীয় কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করে রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগ। ৩ ডিসেম্বর বিএনপির রাজশাহী বিভাগীয় মহাসমাবেশ উপলক্ষ্যে এই সংবাদ সম্মেলন ডাকা হয়।

বিএনপি সংকট তৈরি করলে তাৎক্ষণিকভাবে কঠোর জবাব দেওয়ার ঘোষণা দেওয়া হয়েছে সংবাদ সম্মেলনে। সংবাদ সম্মেলনে আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী পরিষদের সদস্য বেগম আকতার জাহান, মহানগর আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মোহাম্মদ আলী কামাল, সহ-সভাপতি ও রাজশাহী জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মীর ইকবাল, সাধারণ সম্পাদক ডাবলু সরকার প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মোহাম্মদ আলী কামাল সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন। সমাবেশ পরিচালনা করেন মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ডাবলু সরকার। কর্মসূচিতে মহানগর আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের কয়েক হাজার নেতাকর্মী অংশগ্রহণ করেন।

সমাবেশে খায়রুজ্জামান লিটন বলেন, নির্বাচন করবেন তবে এখন বলছেন, তত্ত্বাবধায়ক সরকার ছাড়া নির্বাচন করবেন না, শেখ হাসিনার অধীনে নির্বাচন করবেন না। আপনাদের জন্য নির্বাচন থেমে থাকবে না। নির্বাচনে আসেন, কিছু আসন পেলেও পেতে পারেন।

তিনি আরও বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশে ব্যাপক উন্নয়ন দৃশ্যমান। বাংলাদেশে নদীর তল দিয়ে টানেল তৈরি হচ্ছে। ঈশ্বরদীতে পরমাণু বিদ্যুৎ কেন্দ্র হচ্ছে, যেখানে ২ হাজার ৪০০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদন হবে। বাংলাদেশকে কাঙ্ক্ষিত জায়গায় নিয়ে যাবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

বিএনপির উদ্দেশে খায়রুজ্জামান লিটন বলেন, সরকার অনুমতি দিয়েছে সমাবেশ করেন। ভদ্রভাবে করেন।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন