বাস পুড়িয়ে বিএনপি আগুন সন্ত্রাসের জানান দিচ্ছে
jugantor
ঢাকা মহানগর ছাত্রলীগের সম্মেলনে সেতুমন্ত্রী
বাস পুড়িয়ে বিএনপি আগুন সন্ত্রাসের জানান দিচ্ছে
সোহরাওয়ার্দী উদ্যান বিএনপির অপছন্দ, কারণ ওখানে পাক হানাদার বাহিনী আত্মসমর্পণ করেছিল

  যুগান্তর প্রতিবেদন  

০৩ ডিসেম্বর ২০২২, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহণ ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, আগুন নিয়ে খেলা শুরু হয়ে গেছে। পরশু মতিঝিলে বিআরটিসি বাস পুড়িয়ে দেওয়া হয়েছে। তারা জানান দিয়েছে যে, আবার তারা ফিরে আসছে। শুক্রবার সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে ঢাকা মহানগর উত্তর ও দক্ষিণ ছাত্রলীগের যৌথ সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি একথা বলেন।

তিনি বলেন, ‘১০ ডিসেম্বর ঘিরে বিএনপি যেন কোনো সন্ত্রাসী কার্যক্রম চালাতে না পারে সেজন্য প্রতিটি ওয়ার্ডে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা সতর্ক পাহারা দেবে। তারা (বিএনপি) সন্ত্রাস করবে, আর আমাদের কর্মীরা ললিপপ খাবে? তাদের কোনো ধরনের সন্ত্রাসী কার্যক্রম করতে দেওয়া হবে না।’

বিএনপির উদ্দেশে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘আপনাদের সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে সমাবেশ করার অনুমতি দেওয়া হয়েছে। কিন্তু ওই স্থান আপনাদের পছন্দ নয়। কারণ ওখানে পাক হানাদার বাহিনী আত্মসমর্পণ করেছিল।’ তিনি বলেন, তারা (বিএনপি) এখন জঙ্গি-অস্ত্রবাজদের মাঠে নামিয়েছে। আমাদের কাছে খবর আছে, বস্তায় বস্তায় টাকা আসে দুবাই থেকে, হায়রে টাকা। পাচারের বিরুদ্ধে খেলা হবে উল্লেখ করে তিনি বলেন, তারেক সিঙ্গাপুরে টাকা পাচার করেছে। এখনও যারা পাচার করছে তাদের খবর আছে। শেখ হাসিনা কাউকে ক্ষমা করবেন না।

‘সরকার টাকা পাচার করেছে বাইরে’ গণফোরাম সভাপতি ড. কামাল হোসেনের এমন বক্তব্যের কঠোর সমালোচনা করেন ওবায়দুল কাদের। তিনি বলেন, বানরে সংগীত গায়, শিলা জলে ভাসে। কামাল হোসেন সাহেব রাজনীতির রহস্য পুরুষ। ১৯৭১ সালে বঙ্গবন্ধু যখন পকিস্তানিদের হাতে গ্রেফতার হন, তখন কামাল হোসেন ইন্টারকন্টিনেটাল হোটেলের সামনে গাড়ি থেকে নেমে হোটেলে ঢোকেন। তারপর তার আর খবর নেই। আমরা খবর পেলাম তিনি পকিস্তানে চলে গেছেন। পাকিস্তানে পলায়ন, ভাইরে আমরা পালাই নাই। আপনি পরে বঙ্গবন্ধুর দয়ায় সরকারের পররাষ্ট্রমন্ত্রী হয়েছিলেন। আজকে কামাল হোসেন অর্থ পাচারের কথা বলেন! তিনি বলেন, কামাল হোসেন সাহেব, আপনি কালো টাকা সাদা করেছেন। অর্থ পাচারকারী, তারেকের নাম বলেন না। নিজে অর্থ পাচার করেন, আপনার ইহুদি জামাতার মাধ্যমে শত কোটি টাকা পাচার করেছেন। কত টাকা পচার করেছেন দেশের মানুষ জানতে চায়। ড. কামাল হোসেন আপনি ট্যাক্স ফাঁকি দিয়েছেন। ট্যাক্স ফাঁকি দিয়ে আদালতে গিয়ে তারপর আদেশ নিয়ে ট্যাক্স জমা দিয়েছেন। এখন শেখ হাসিনাকে কটাক্ষ করে বড় বড় কথা বলেন।

আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, ১/১১-এ আপনাদের কী ভূমিকা ছিল? সেদিন জরুরি সরকারের সঙ্গে যোগসাজশ করে আপনারা এখানে বিশৃঙ্খল পরিস্থিতি সৃষ্টি করে সরকার গঠনের পরিকল্পনা করেছিলেন। সেই রঙিন খোয়াব রয়েই গেছে। আজও আবার তত্ত্বাবধায়কের নামে জরুরি সরকার চাইছেন? তত্ত্বাবধায়কের ভূত মাথা থেকে নামান।

বিএনপি জঙ্গি পৃষ্ঠপোষকতার বিশ্বস্ত ঠিকানা : কোম্পানীগঞ্জ (নোয়াখালী) প্রতিনিধি জানান, এদিন বিকালে কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার বসুরহাট এএইচসি উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে উপজেলা আওয়ামী লীগের ত্রিবার্ষিক সম্মেলন হয়। সেখানে ভার্চুয়ালি যুক্ত হয়ে প্রধান অতিথির বক্তব্যে ওবায়দুল কাদের বলেন, বিএনপি জঙ্গিবাদের পৃষ্ঠপোষক ও সাম্প্রদায়িকতার বিশ্বস্ত ঠিকানা। কয়েকদিন আগে কাঁচপুরে ঢাকা-সিলেট সড়কের ভিত্তিপ্রস্তর রাতের অন্ধকারে গুঁড়িয়ে দেওয়া হয়েছে। বুধবার রাতে রাজধানীর মতিঝিলে বিআরটিসির দোতলা বাসে আগুন দেওয়া হয়েছে। এগুলো করে বিএনপি আগুন সন্ত্রাসের জানান দিচ্ছে।

বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের সমালোচনা করে মন্ত্রী বলেন, তারেক রহমান রাজনীতির সভ্যতাও বুঝে না। আমরা বেগম খালেদা জিয়া বলি। আর পলাতক সাজাপ্রাপ্ত এ নেতা প্রধানমন্ত্রী বঙ্গবন্ধুকন্যার নামটাও সুন্দরভাবে বলে না। তারেক রহমানই তো ২০০৮ সাল থেকে পালিয়ে আছে। গ্রেফতারের ভয়ে দেশে আসে না।

কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা খিজির হায়াত খানের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক নুর নবী চৌধুরীর সঞ্চালনায় সম্মেলনে আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও জাতীয় সংসদের হুইপ আবু সাঈদ আল মাহমুদ স্বপন এমপি, সাংগঠনিক সম্পাদক এসএম কামাল হোসেন, কৃষি ও সমবায় বিষয়ক সম্পাদক বেগম ফরিদুন্নাহার লাইলী, ত্রাণ ও সমাজ কল্যাণ বিষয় সম্পাদক বাবু সুজিৎ রায় নন্দী, নোয়াখালী জেলা আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক অধ্যক্ষ এএইচএম খায়রুল আনম চৌধুরী সেলিম, যুগ্ম আহ্বায়ক অ্যাডভোকেট শিহাব উদ্দিন শাহীন, নোয়াখালী পৌরসভার মেয়র সহিদ উল্যাহ খান সোহেল প্রমুখ বক্তব্য দেন।

ঢাকা মহানগর ছাত্রলীগের সম্মেলনে সেতুমন্ত্রী

বাস পুড়িয়ে বিএনপি আগুন সন্ত্রাসের জানান দিচ্ছে

সোহরাওয়ার্দী উদ্যান বিএনপির অপছন্দ, কারণ ওখানে পাক হানাদার বাহিনী আত্মসমর্পণ করেছিল
 যুগান্তর প্রতিবেদন 
০৩ ডিসেম্বর ২০২২, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহণ ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, আগুন নিয়ে খেলা শুরু হয়ে গেছে। পরশু মতিঝিলে বিআরটিসি বাস পুড়িয়ে দেওয়া হয়েছে। তারা জানান দিয়েছে যে, আবার তারা ফিরে আসছে। শুক্রবার সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে ঢাকা মহানগর উত্তর ও দক্ষিণ ছাত্রলীগের যৌথ সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি একথা বলেন।

তিনি বলেন, ‘১০ ডিসেম্বর ঘিরে বিএনপি যেন কোনো সন্ত্রাসী কার্যক্রম চালাতে না পারে সেজন্য প্রতিটি ওয়ার্ডে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা সতর্ক পাহারা দেবে। তারা (বিএনপি) সন্ত্রাস করবে, আর আমাদের কর্মীরা ললিপপ খাবে? তাদের কোনো ধরনের সন্ত্রাসী কার্যক্রম করতে দেওয়া হবে না।’

বিএনপির উদ্দেশে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘আপনাদের সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে সমাবেশ করার অনুমতি দেওয়া হয়েছে। কিন্তু ওই স্থান আপনাদের পছন্দ নয়। কারণ ওখানে পাক হানাদার বাহিনী আত্মসমর্পণ করেছিল।’ তিনি বলেন, তারা (বিএনপি) এখন জঙ্গি-অস্ত্রবাজদের মাঠে নামিয়েছে। আমাদের কাছে খবর আছে, বস্তায় বস্তায় টাকা আসে দুবাই থেকে, হায়রে টাকা। পাচারের বিরুদ্ধে খেলা হবে উল্লেখ করে তিনি বলেন, তারেক সিঙ্গাপুরে টাকা পাচার করেছে। এখনও যারা পাচার করছে তাদের খবর আছে। শেখ হাসিনা কাউকে ক্ষমা করবেন না।

‘সরকার টাকা পাচার করেছে বাইরে’ গণফোরাম সভাপতি ড. কামাল হোসেনের এমন বক্তব্যের কঠোর সমালোচনা করেন ওবায়দুল কাদের। তিনি বলেন, বানরে সংগীত গায়, শিলা জলে ভাসে। কামাল হোসেন সাহেব রাজনীতির রহস্য পুরুষ। ১৯৭১ সালে বঙ্গবন্ধু যখন পকিস্তানিদের হাতে গ্রেফতার হন, তখন কামাল হোসেন ইন্টারকন্টিনেটাল হোটেলের সামনে গাড়ি থেকে নেমে হোটেলে ঢোকেন। তারপর তার আর খবর নেই। আমরা খবর পেলাম তিনি পকিস্তানে চলে গেছেন। পাকিস্তানে পলায়ন, ভাইরে আমরা পালাই নাই। আপনি পরে বঙ্গবন্ধুর দয়ায় সরকারের পররাষ্ট্রমন্ত্রী হয়েছিলেন। আজকে কামাল হোসেন অর্থ পাচারের কথা বলেন! তিনি বলেন, কামাল হোসেন সাহেব, আপনি কালো টাকা সাদা করেছেন। অর্থ পাচারকারী, তারেকের নাম বলেন না। নিজে অর্থ পাচার করেন, আপনার ইহুদি জামাতার মাধ্যমে শত কোটি টাকা পাচার করেছেন। কত টাকা পচার করেছেন দেশের মানুষ জানতে চায়। ড. কামাল হোসেন আপনি ট্যাক্স ফাঁকি দিয়েছেন। ট্যাক্স ফাঁকি দিয়ে আদালতে গিয়ে তারপর আদেশ নিয়ে ট্যাক্স জমা দিয়েছেন। এখন শেখ হাসিনাকে কটাক্ষ করে বড় বড় কথা বলেন।

আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, ১/১১-এ আপনাদের কী ভূমিকা ছিল? সেদিন জরুরি সরকারের সঙ্গে যোগসাজশ করে আপনারা এখানে বিশৃঙ্খল পরিস্থিতি সৃষ্টি করে সরকার গঠনের পরিকল্পনা করেছিলেন। সেই রঙিন খোয়াব রয়েই গেছে। আজও আবার তত্ত্বাবধায়কের নামে জরুরি সরকার চাইছেন? তত্ত্বাবধায়কের ভূত মাথা থেকে নামান।

বিএনপি জঙ্গি পৃষ্ঠপোষকতার বিশ্বস্ত ঠিকানা : কোম্পানীগঞ্জ (নোয়াখালী) প্রতিনিধি জানান, এদিন বিকালে কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার বসুরহাট এএইচসি উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে উপজেলা আওয়ামী লীগের ত্রিবার্ষিক সম্মেলন হয়। সেখানে ভার্চুয়ালি যুক্ত হয়ে প্রধান অতিথির বক্তব্যে ওবায়দুল কাদের বলেন, বিএনপি জঙ্গিবাদের পৃষ্ঠপোষক ও সাম্প্রদায়িকতার বিশ্বস্ত ঠিকানা। কয়েকদিন আগে কাঁচপুরে ঢাকা-সিলেট সড়কের ভিত্তিপ্রস্তর রাতের অন্ধকারে গুঁড়িয়ে দেওয়া হয়েছে। বুধবার রাতে রাজধানীর মতিঝিলে বিআরটিসির দোতলা বাসে আগুন দেওয়া হয়েছে। এগুলো করে বিএনপি আগুন সন্ত্রাসের জানান দিচ্ছে।

বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের সমালোচনা করে মন্ত্রী বলেন, তারেক রহমান রাজনীতির সভ্যতাও বুঝে না। আমরা বেগম খালেদা জিয়া বলি। আর পলাতক সাজাপ্রাপ্ত এ নেতা প্রধানমন্ত্রী বঙ্গবন্ধুকন্যার নামটাও সুন্দরভাবে বলে না। তারেক রহমানই তো ২০০৮ সাল থেকে পালিয়ে আছে। গ্রেফতারের ভয়ে দেশে আসে না।

কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা খিজির হায়াত খানের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক নুর নবী চৌধুরীর সঞ্চালনায় সম্মেলনে আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও জাতীয় সংসদের হুইপ আবু সাঈদ আল মাহমুদ স্বপন এমপি, সাংগঠনিক সম্পাদক এসএম কামাল হোসেন, কৃষি ও সমবায় বিষয়ক সম্পাদক বেগম ফরিদুন্নাহার লাইলী, ত্রাণ ও সমাজ কল্যাণ বিষয় সম্পাদক বাবু সুজিৎ রায় নন্দী, নোয়াখালী জেলা আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক অধ্যক্ষ এএইচএম খায়রুল আনম চৌধুরী সেলিম, যুগ্ম আহ্বায়ক অ্যাডভোকেট শিহাব উদ্দিন শাহীন, নোয়াখালী পৌরসভার মেয়র সহিদ উল্যাহ খান সোহেল প্রমুখ বক্তব্য দেন।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন