সেই খালে সেতু নির্মাণের প্রস্তাব দেবে এলজিইডি
jugantor
যুগান্তরে সংবাদ প্রকাশ
সেই খালে সেতু নির্মাণের প্রস্তাব দেবে এলজিইডি
স্কুলে যেতে নৌকা পাবে শিশুরা

  যুগান্তর প্রতিবেদন, রাঙ্গাবালী (পটুয়াখালী)  

০৮ ডিসেম্বর ২০২২, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

খাল সাঁতরে স্কুলে যাওয়া চরের শিশুদের নিয়ে যুগান্তরে সংবাদ প্রকাশের পর পটুয়াখালীর রাঙ্গাবালী উপজেলার চরমোন্তাজ ইউনিয়নের সেই খালে সেতু নির্মাণের প্রস্তাবনা দেবে স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর (এলজিইডি)।

উপজেলা পরিষদের মাসিক সমন্বয় সভায় বুধবার বিষয়টি নিয়ে আলোচনার পর এলজিইডির উপজেলা প্রকৌশলী মিজানুল কবির এটি নিশ্চিত করেন।

তিনি বলেন, ‘শিশু শিক্ষার্থী এবং জনস্বার্থে ওই খালের ওপর ব্রিজ (সেতু) নির্মাণ জরুরি। আমরা ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের কাছে এ বিষয়ে প্রস্তাবনা পাঠাব। বৃহস্পতিবার (আজ) বিষয়টি নিয়ে আমি ব্রিজ প্রকল্পের পিডি (প্রকল্প পরিচালক) স্যারের সঙ্গে কথা বলব।’

এর আগে ওই ইউনিয়নের দিয়ারচর ও উত্তর চরমোন্তাজ গ্রামের দক্ষিণ অংশের শিশু শিক্ষার্থীরা সেতুর অভাবে পাতিল নিয়ে বাইলাবুনিয়া নামক খাল সাঁতরে স্কুলে যাওয়া নিয়ে মঙ্গলবার যুগান্তরের প্রথম পাতায় ‘জীবনবাজির শিক্ষা : খাল সাঁতরে স্কুলে যায় ওরা’ শিরোনামে সচিত্র একটি প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়, যা নিয়ে বুধবার ‘জীবনবাজি রেখে স্কুলে যাওয়া’ শিরোনামে যুগান্তরে সম্পাদকীয় ছাপা হয়। এরপরই বিষয়টি নিয়ে আলোচনা শুরু হয়। টনক নড়ে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের।

সংবাদটি নজরে এলে সেতু নির্মাণের আগে শিশু শিক্ষার্থীদের নির্বিঘ্নে স্কুলে আসা-যাওয়ার জন্য একটি নৌকা উপহার দেবে বলে জানিয়েছে বেসরকারি সংস্থা ‘জাগো নারী’। জাগো নারীর পরিচালক (যোগাযোগ) মো. ডিউক ইবনে আমিন বুধবার বলেন, ‘জাগো নারীর উদ্যোগে একটি টেকসই নৌকা শিগগিরই আনুষ্ঠানিকভাবে শিশু শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের হাতে তুলে দেওয়া হবে।’

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ভারপ্রাপ্ত) সালেক মূহিদ বলেন, ‘এলজিইডি সরেজমিনে খাল পরিদর্শন করবে এবং ব্রিজের প্রস্তাব দেবে। আপাতত শিশুদের পারাপারের জন্য নৌকা দেওয়া হবে।’

যুগান্তরে সংবাদ প্রকাশ

সেই খালে সেতু নির্মাণের প্রস্তাব দেবে এলজিইডি

স্কুলে যেতে নৌকা পাবে শিশুরা
 যুগান্তর প্রতিবেদন, রাঙ্গাবালী (পটুয়াখালী) 
০৮ ডিসেম্বর ২০২২, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

খাল সাঁতরে স্কুলে যাওয়া চরের শিশুদের নিয়ে যুগান্তরে সংবাদ প্রকাশের পর পটুয়াখালীর রাঙ্গাবালী উপজেলার চরমোন্তাজ ইউনিয়নের সেই খালে সেতু নির্মাণের প্রস্তাবনা দেবে স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর (এলজিইডি)।

উপজেলা পরিষদের মাসিক সমন্বয় সভায় বুধবার বিষয়টি নিয়ে আলোচনার পর এলজিইডির উপজেলা প্রকৌশলী মিজানুল কবির এটি নিশ্চিত করেন।

তিনি বলেন, ‘শিশু শিক্ষার্থী এবং জনস্বার্থে ওই খালের ওপর ব্রিজ (সেতু) নির্মাণ জরুরি। আমরা ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের কাছে এ বিষয়ে প্রস্তাবনা পাঠাব। বৃহস্পতিবার (আজ) বিষয়টি নিয়ে আমি ব্রিজ প্রকল্পের পিডি (প্রকল্প পরিচালক) স্যারের সঙ্গে কথা বলব।’

এর আগে ওই ইউনিয়নের দিয়ারচর ও উত্তর চরমোন্তাজ গ্রামের দক্ষিণ অংশের শিশু শিক্ষার্থীরা সেতুর অভাবে পাতিল নিয়ে বাইলাবুনিয়া নামক খাল সাঁতরে স্কুলে যাওয়া নিয়ে মঙ্গলবার যুগান্তরের প্রথম পাতায় ‘জীবনবাজির শিক্ষা : খাল সাঁতরে স্কুলে যায় ওরা’ শিরোনামে সচিত্র একটি প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়, যা নিয়ে বুধবার ‘জীবনবাজি রেখে স্কুলে যাওয়া’ শিরোনামে যুগান্তরে সম্পাদকীয় ছাপা হয়। এরপরই বিষয়টি নিয়ে আলোচনা শুরু হয়। টনক নড়ে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের।

সংবাদটি নজরে এলে সেতু নির্মাণের আগে শিশু শিক্ষার্থীদের নির্বিঘ্নে স্কুলে আসা-যাওয়ার জন্য একটি নৌকা উপহার দেবে বলে জানিয়েছে বেসরকারি সংস্থা ‘জাগো নারী’। জাগো নারীর পরিচালক (যোগাযোগ) মো. ডিউক ইবনে আমিন বুধবার বলেন, ‘জাগো নারীর উদ্যোগে একটি টেকসই নৌকা শিগগিরই আনুষ্ঠানিকভাবে শিশু শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের হাতে তুলে দেওয়া হবে।’

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ভারপ্রাপ্ত) সালেক মূহিদ বলেন, ‘এলজিইডি সরেজমিনে খাল পরিদর্শন করবে এবং ব্রিজের প্রস্তাব দেবে। আপাতত শিশুদের পারাপারের জন্য নৌকা দেওয়া হবে।’

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন