পাঁচ আসামি ৭ দিন করে রিমান্ডে
jugantor
দুই জঙ্গি ছিনতাই
পাঁচ আসামি ৭ দিন করে রিমান্ডে

  আদালত প্রতিবেদক  

০৮ ডিসেম্বর ২০২২, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

ঢাকার চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত প্রাঙ্গণ থেকে দুই জঙ্গি ছিনিয়ে নেওয়ার মামলার এজাহারভুক্ত পাঁচ আসামির ৭ দিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত। রাজধানীর যাত্রাবাড়ী থানার ২০১৪ সালের সন্ত্রাসবিরোধী আইনের মামলায় এ রিমান্ড মঞ্জুর করা হয়।

ঢাকা মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট শফি উদ্দিনের আদালত বুধবার এ রিমান্ড মঞ্জুর করেন। আসামিরা হলেন- খাইরুল ইসলাম ওরফে জামিল, মোজাম্মেল হোসেন ওরফে সাইমন, আরাফাত রহমান ওরফে শামস, শেখ আব্দুল্লাহ ওরফে জুবায়ের ও সবুর ওরফে সাদ। এদিন দ্বিতীয় দফায় রিমান্ড শেষে আসামিদের আদালতে হাজির করে পুলিশ। এরপর মামলার তদন্ত শেষ না হওয়া পর্যন্ত তাদের কারাগারে আটক রাখার আবেদন করেন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা। আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে ঢাকা মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ জসিম তাদের কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন।

অন্যদিকে পাঁচ আসামিকে যাত্রাবাড়ী থানার মামলায় গ্রেফতার দেখানোর আবেদনসহ ১৫ দিনের রিমান্ডে নিতে আবেদন করেন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা সিটিটিসির উপ-পরিদর্শক মুহাম্মদ মুসাদ্দিমুল হক। আদালত তাদের গ্রেফতার দেখানোর আবেদন মঞ্জুর করে ৭ দিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেন। রিমান্ড আবেদনে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা সিটিটিসির উপ-পরিদর্শক মুসাদ্দিমূল হক উল্লেখ করেন, ২০ নভেম্বর ঢাকার সিএমএম আদালত থেকে জঙ্গি ছিনতাইয়ের ঘটনা ঘটে। মামলায় গ্রেফতার ও পলাতক আসামিরা কী উদ্দেশ্যে একত্রিত হয়েছিল তা জানতে ও পলাতক আসামিদের শনাক্ত এবং অর্থায়নের উৎস জানতে তাদের নিবিড় জিজ্ঞাসাবাদ প্রয়োজন। ২০ নভেম্বর দুপুরে ঢাকার চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত প্রাঙ্গণ থেকে মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত দুই আসামিকে ছিনিয়ে নিয়ে যায় জঙ্গিরা। এ সময় আসামি আরাফাত এবং সবুরকেও ছিনিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করে। পরে ঘটনাস্থল থেকে আটক করা হয় আরাফাত ও সবুরকে। এ ঘটনায় কোতোয়ালি থানায় কোর্ট পরিদর্শক জুলহাস ২০ জনের নামে একটি মামলা করেন। মামলায় আসামি করা হয় অজ্ঞাতনামা আরও সাত-আটজনকে।

দুই জঙ্গি ছিনতাই

পাঁচ আসামি ৭ দিন করে রিমান্ডে

 আদালত প্রতিবেদক 
০৮ ডিসেম্বর ২০২২, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

ঢাকার চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত প্রাঙ্গণ থেকে দুই জঙ্গি ছিনিয়ে নেওয়ার মামলার এজাহারভুক্ত পাঁচ আসামির ৭ দিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত। রাজধানীর যাত্রাবাড়ী থানার ২০১৪ সালের সন্ত্রাসবিরোধী আইনের মামলায় এ রিমান্ড মঞ্জুর করা হয়।

ঢাকা মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট শফি উদ্দিনের আদালত বুধবার এ রিমান্ড মঞ্জুর করেন। আসামিরা হলেন- খাইরুল ইসলাম ওরফে জামিল, মোজাম্মেল হোসেন ওরফে সাইমন, আরাফাত রহমান ওরফে শামস, শেখ আব্দুল্লাহ ওরফে জুবায়ের ও সবুর ওরফে সাদ। এদিন দ্বিতীয় দফায় রিমান্ড শেষে আসামিদের আদালতে হাজির করে পুলিশ। এরপর মামলার তদন্ত শেষ না হওয়া পর্যন্ত তাদের কারাগারে আটক রাখার আবেদন করেন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা। আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে ঢাকা মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ জসিম তাদের কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন।

অন্যদিকে পাঁচ আসামিকে যাত্রাবাড়ী থানার মামলায় গ্রেফতার দেখানোর আবেদনসহ ১৫ দিনের রিমান্ডে নিতে আবেদন করেন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা সিটিটিসির উপ-পরিদর্শক মুহাম্মদ মুসাদ্দিমুল হক। আদালত তাদের গ্রেফতার দেখানোর আবেদন মঞ্জুর করে ৭ দিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেন। রিমান্ড আবেদনে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা সিটিটিসির উপ-পরিদর্শক মুসাদ্দিমূল হক উল্লেখ করেন, ২০ নভেম্বর ঢাকার সিএমএম আদালত থেকে জঙ্গি ছিনতাইয়ের ঘটনা ঘটে। মামলায় গ্রেফতার ও পলাতক আসামিরা কী উদ্দেশ্যে একত্রিত হয়েছিল তা জানতে ও পলাতক আসামিদের শনাক্ত এবং অর্থায়নের উৎস জানতে তাদের নিবিড় জিজ্ঞাসাবাদ প্রয়োজন। ২০ নভেম্বর দুপুরে ঢাকার চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত প্রাঙ্গণ থেকে মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত দুই আসামিকে ছিনিয়ে নিয়ে যায় জঙ্গিরা। এ সময় আসামি আরাফাত এবং সবুরকেও ছিনিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করে। পরে ঘটনাস্থল থেকে আটক করা হয় আরাফাত ও সবুরকে। এ ঘটনায় কোতোয়ালি থানায় কোর্ট পরিদর্শক জুলহাস ২০ জনের নামে একটি মামলা করেন। মামলায় আসামি করা হয় অজ্ঞাতনামা আরও সাত-আটজনকে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন