ইভিএম রেখে সংসদে উঠছে আরপিও সংশোধন

কবিতা খানম

  যুগান্তর রিপোর্ট ২০ আগস্ট ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিন (ইভিএম) ব্যবহার করার বিষয়টি যুক্ত করে গণপ্রতিনিধিত্ব আদেশ (আরপিও) সংশোধন করতে যাচ্ছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। জাতীয় সংসদের আগামী অধিবেশনে আরপিও পাস করতে সংসদে তোলার জন্য কাজ চলছে বলে জানিয়েছেন নির্বাচন কমিশনার কবিতা খানম। রোববার নিজ কার্যালয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি এ তথ্য জানান।

এদিকে রাজনৈতিক দল ঐক্যবদ্ধ নাগরিক আন্দোলনের নিবন্ধন বাতিল হওয়ার ওপর রোববার শুনানি অনুষ্ঠিত হয়। পুরো কমিশনের উপস্থিতিতে শুনানিতে ১৬ সেপ্টেম্বরের মধ্যে প্রয়োজনীয় তথ্য-উপাত্ত ইসিতে জমা দিতে নির্দেশ দিয়েছে কমিশন।

অক্টোবরের শেষ বা নভেম্বরের শুরুতে জাতীয় সংসদ নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করতে যাচ্ছে ইসি। ডিসেম্বরের শেষদিকে জাতীয় নির্বাচন অনুষ্ঠিত হতে পারে।

জাতীয় নির্বাচন সামনে রেখে প্রস্তুতিমূলক কাজ চলছে বলে জানান কবিতা খানম। তিনি বলেন, আরপিও সংশোধনের কাজও এগিয়ে চলছে। এটি নিয়ে দুটি কমিশন বৈঠকও হয়েছে। সেখানে কিছু সংশোধন বা আরও কিছু প্রস্তাব এসেছে। এখন কমিশন বৈঠকে এটি চূড়ান্ত সংশোধন করা হবে। আরপিও সংশোধনের পাশাপাশি জাতীয় নির্বাচনের আচরণ বিধিমালা সংশোধন হতে পারে বলেও জানান তিনি। এ কমিশনার বলেন, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম নিয়ন্ত্রণের পরিকল্পনা থেকে সরে এসেছে ইসি।

আরপিও সংশোধন বিষয়ে কবিতা খানম আরও বলেন, ‘আরপিও তো আমরা পাস করতে পারব না। আগামী সংসদ অধিবেশনে এটি পাঠাতে আমরা কাজ করছি। কমিশনে সিদ্ধান্ত হলে তারপর সংসদে পাঠানো হবে।’ আগামী সংসদ নির্বাচনে ইভিএম ব্যবহার হবে কি না বা করলেও কী পরিমাণ ব্যবহার করা হবে- এ বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ইভিএম ব্যবহার করতে হলে আরপিও সংশোধন করতে হবে। আরপিও সংশোধন করার পর দেখতে হবে ইভিএম নিয়ে যারা কাজ করবে তাদের কী অবস্থা। সবদিক বিবেচনা করে কমিশন সিদ্ধান্ত দেবে।

আসছে সংসদ নির্বাচনে ডিসিদের পাশাপাশি নির্বাচন কমিশনের নিজস্ব কর্মকর্তাদের রিটার্নিং কর্মকর্তা হিসেবে নিয়োগ দেয়া হবে কি না? এ বিষয়ে কবিতা খানম বলেন, নিজস্ব কর্মকর্তাদের রিটার্নিং কর্মকর্তা হিসেবে নিয়োগ দেয়া হবে কি না, এটি কমিশন সিদ্ধান্ত নেবে। আর সবাইকে প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করা হবে।

নাগরিক আন্দোলনের নিবন্ধন শুনানি : ঐক্যবদ্ধ নাগরিক আন্দোলনের আবেদনের ওপর শুনানিতে প্রধান নির্বাচন কমিশনারসহ তিনজন নির্বাচন কমিশনার ও ইসি সচিব উপস্থিত ছিলেন। অপরদিকে ঐক্যবদ্ধ নাগরিক আন্দোলনের ৭ জন শুনানিতে অংশ নেন। পরে কমিশন ১৬ সেপ্টম্বরের মধ্যে দলটির প্রয়োজনীয় তথ্য-উপাত্ত জমা দেয়ার নির্দেশ দেন।

এর আগে নির্বাচন কমিশনের ৩১তম সভায় এ দলটির নিবন্ধন বাতিলের সিদ্ধান্ত নেয় কমিশন। ওই বাতিলের বিরুদ্ধে আপিল করলে কমিশন এ শুনানির আয়োজন করে। শুনানিতে অংশ নেয়া দলটির নেতারা হলেন- ভাইস প্রেসিডেন্ট মোহাম্মদ আলী চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক আবদুস সামাদ পিন্টু, কোষাধ্যক্ষ মতিউর রহমান, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আফজাল হোসেন ভূঁইয়া ও সাঈদ আহমেদ, কার্যকরী সদস্য রাব্বি ও কাজল।

 

 

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter