বিএসএমএমইউ

তদবিরের চাপে স্থগিত চিকিৎসক নিয়োগ

  রাশেদ রাব্বি ২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

তদবিরের চাপে স্থগিত চিকিৎসক নিয়োগ
বিএসএমএসইউ

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বিএসএমএমইউ) চিকিৎসক নিয়োগ পরীক্ষা স্থগিত করেছে কর্তৃপক্ষ। অব্যাহত তদবিরের মুখে মঙ্গলবার বিশ্ববিদ্যালয়ের সিন্ডিকেট সভায় এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। ১৮০ মেডিকেল অফিসার ও ২০ ডেন্টাল সার্জন নিয়োগের লক্ষ্যে কাল এ নিয়োগের লিখিত পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল।

পরিচয় প্রকাশে অনিচ্ছুক বিশ্ববিদ্যালয়ের সিন্ডিকেটের একাধিক সদস্য টেলিফোনে যুগান্তরকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তারা জানান, বিশ্ববিদ্যালয়ে চিকিৎসক নিয়োগ প্রক্রিয়া শুরুর পর থেকে নানা জটিলতা শুরু হয়েছে। এত বেশি তদবির এসেছে যে, প্রশাসন বিব্রতকর অবস্থায় পড়েছে। পরিস্থিতি সামাল দিতে প্রশাসনকে হিমশিম খেতে হচ্ছে। পরিস্থিতি যেন আরও খারাপ না হয় সেজন্যই পরীক্ষা গ্রহণ আপাতত স্থগিত রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয়ের নীতিনির্ধারণী পর্যায়ের সর্বোচ্চ ফোরাম সিন্ডিকেট।

তদবিরের বিষয়ে জানতে চাইলে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের উচ্চ পর্যায়ে দায়িত্বপালনকারী এক অধ্যাপক যুগান্তরকে জানান, ২০ জন ডেন্টাল সার্জন নিয়োগে এ পর্যন্ত প্রায় কয়েকশ’ ভিআইপি তদবির এসেছে। এ থেকে সহজেই অনুমান করা যায়, বাকি ১৮০টি মেডিকেল অফিসার পদের জন্য কি পরিমাণ তদবির আসতে পারে।

তিনি বলেন, এ নিয়োগ প্রক্রিয়াকে কেন্দ্র করে বিশ্ববিদ্যালয়ের বর্তমান প্রশাসন বিব্রত, বিরক্ত এবং কিংকর্তব্য বিমূঢ়। তাই নিয়োগ পরীক্ষাকে কেন্দ্র করে সম্ভাব্য অনাকাক্সিক্ষত পরিস্থিতি এড়াতেই সিন্ডিকেট সভায় পরীক্ষা স্থগিতের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

পরে পরীক্ষা নেয়ার ক্ষেত্রে এ সমস্যা কিভাবে এড়ানো হবে- জানতে চাইলে ওই অধ্যাপক বলেন, দু-এক মাসের মধ্যেই সরকারিভাবে প্রায় ৭ হাজার চিকিৎসক নিয়োগ দেয়া হবে। আমরা আশা করছি, ওই নিয়োগটি সম্পন্ন হলে বিশ্ববিদ্যালয়ে নিয়োগের ক্ষেত্রে রাজনৈতিক চাপ ও তদবির অনেকটা প্রশমিত হবে।

এ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি ও সিন্ডিকেটের সভাপতি অধ্যাপক ডা. কনক কান্তি বড়–য়া যুগান্তরকে বলেন, সামগ্রিক পরিস্থিতি ও আইনগত দিক বিবেচনায় নিয়ে সিন্ডিকেট সর্বসম্মতভাবে এ সিদ্ধান্ত নিয়েছে। তবে এটা সাময়িক সময়ের জন্য। পরে এ পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। পরীক্ষা গ্রহণের তারিখ জানিয়ে দেয়া হবে।

গত বছরের সেপ্টেম্বরে বিভিন্ন মেডিকেল কলেজ থেকে এমবিবিএস পাস করা ছাত্রলীগের শিক্ষার্থীরা তৎকালীন ভিসি অধ্যাপক ডা. কামরুল হাসান খানকে বিশ্ববিদ্যালয়ে চিকিৎসক নিয়োগে চাপ দেন। দ্রুত ব্যবস্থা নেয়ার জন্য এমনকি তাকে কয়েক ঘণ্টা অবরুদ্ধ করে রাখে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে তিনি ব্যবস্থা নেয়ার আশ্বাস দেন। ওই বছরের ১৭ সেপ্টেম্বর স্বাধীনতা চিকিৎসক পরিষদের (স্বাচিপ) চাকরি প্রত্যাশী জুনিয়র চিকিৎসকদের সঙ্গে অধ্যাপক কামরুলের আলোচনা হয়।

এ সময় তিনি তাদের বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রয়োজনে প্রশাসনের সিদ্ধান্ত অনুসারে দু’শ চিকিৎসক নিয়োগের পূর্বসিদ্ধান্ত রয়েছে। এ লক্ষ্যে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি দেয়া হয়। তিনি চাকরিপ্রার্থীদের উদ্দেশে বলেন, তোমরা অনেকেই অনেক কথা বলতে পারো, কিন্তু এমন পরিবেশ সৃষ্টি করো না যাতে আমরা সবাই ক্ষতিগ্রস্ত হই। তোমাদের কাছে অনুরোধ, তোমরা কোনোরকম অস্থিতিশীলতা সৃষ্টি করো না। আমাদের পক্ষে যতগুলো পোস্ট বের করা সম্ভব আমরা বের করে দুই সপ্তাহের মধ্যে বিজ্ঞাপন দেব। সেই সময় এই আলোচনার একটি ভিডিও বিভিন্ন গণমাধ্যমে প্রকাশ করা হয়।

এরপর ১ অক্টোবর ২০০ মেডিকেল অফিসার চেয়ে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি দেয় বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। এতে মেডিকেল অফিসার পদে ১৮০ জন ও মেডিকেল অফিসার (ডেন্টাল সার্জারি) পদে ২০ জনকে নিয়োগের বিষয় উল্লেখ করা হয়। প্রকাশিত বিজ্ঞপ্তি অনুযায়ী, মেডিকেল অফিসার পদে আবেদন করতে হলে প্রার্থীদের বিএমডিসি স্বীকৃত ও নিবন্ধিত প্রতিষ্ঠান থেকে এমবিবিএস পাস হতে হবে। মেডিকেল অফিসার (ডেন্টাল সার্জারি) পদের প্রার্থীদের বিএমডিসি স্বীকৃত ও নিবন্ধিত প্রতিষ্ঠান থেকে বিডিএস উত্তীর্ণ হতে হবে। উভয় পদে ডিগ্রি অর্জনের পর ন্যূনতম এক বছরের বাস্তব অভিজ্ঞতা থাকতে হবে। বয়স ০১-১০-১৭ তারিখে সর্বোচ্চ ৩০ বছর। তবে মুক্তিযোদ্ধা কোটায় আবেদনকারীর বয়সসীমা ৩২ বছর পর্যন্ত শিথিলযোগ্য।

এর আগে ২০১৭ সালের জানুয়ারি মাসে বিশ্ববিদ্যালয়ের নার্স নিয়োগের ক্ষেত্রে জটিলতা সৃষ্টি হলে নিয়োগ বাতিল করা হয়।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter
×