নিয়ম মানতে শিখুন

প্রকাশ : ১৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

  যুগান্তর ডেস্ক   

আমাদের দেশে নিয়ম বানানোর লোকের অভাব নেই; কিন্তু অভাব রয়েছে নিয়ম মানার লোকের। আইন প্রয়োগ করতে সবাই পারে, কিন্তু আইন মানার বেলায় কাউকে খুঁজে পাওয়া যায় না। আমরা প্রত্যেক মানুষই সামাজিক জীব। আবার আমরা একটি দেশে বাস করি।

আমরা যখন রাস্তায় হাঁটি তখন আমাদের হাঁটার জন্য একটা নির্দিষ্ট জায়গা থাকে। রাস্তা পার হওয়ার জন্য একটা নির্দিষ্ট জায়গা থাকে। সেসব জায়গা দিয়ে চলাচল করাই আমাদের দায়িত্ব। আমরা যখন গাড়ি বা কোনো যানবাহন চালাই সেগুলো ঠিকভাবে চলাচলের কিছু নিয়মকানুন আছে, যা সঠিকভাবে মানা উচিত। শুধু রাস্তায় চলাই নিয়ন মানার মধ্যে পড়ে না। আমাদের দেশীয় সম্পদ গ্যাস-বিদ্যুৎ-পানির অযথা অপচয় না করে সঠিকভাবে ব্যবহার করা উচিত। রাস্তায় যেখানে-সেখানে ময়লা না ফেলে ডাস্টবিনে ময়লা ফেলা অনেক বড় একটা কাজ। আমার পাশেই কোনো একজন বিপদে পড়েছে- যা দেখে আমি চুপ করে বসে থাকব, এই শিক্ষা মানবতার অনুশীলন নয়। মানবতার দৃষ্টান্ত হচ্ছে মানুষের বিপদে নির্দ্বিধায় এগিয়ে আসা, মানুষের কল্যাণে কাজ করা। ধনী-গরিবের শ্রেণীভেদ করাও বড় অপরাধ। মানুষকে মানুষ হিসেবে বিবেচনা করা উচিত, কোনো সম্পত্তি দিয়ে নয়। আমাদের আশপাশে যখন কোনো খারাপ কাজ হয় বা কোনো অসহায় মানুষের ওপর অন্যায়-অত্যাচার করা হয়, সেটা অনেকেই দেখেও না দেখার ভান করে। অর্থাৎ অনেকেই শুধু নিজের সমস্যাকে সমস্যা মনে করে, মানুষের সমস্যাকে কিছুই মনে হয় না। নিজের স্বার্থটুকু হাসিল হলেই দায়িত্ব শেষ হয় না, কাজ করতে হবে মানুষের জন্য।

অন্যায়কে যে প্রশ্রয় দেয় আর যে অন্যায় করে, দু’জনেই সমান অপরাধী। তাই অন্যায়ের বিরূদ্ধে দাঁড়ানো আমাদের কর্তব্য। কোথাও হানাহানি-মারামারি হলে তা বন্ধ করতে আমাদের নিজেদেরই এগিয়ে আসতে হবে। পুলিশ বা প্রশাসন সব কিছু করতে পারবে না। তারা পারবে অপরাধীকে শাস্তি প্রদানের ব্যবস্থা করতে; কিন্তু আত্মশুদ্ধি আর নিজেকে পরিষ্কার রাখার জন্য আমাদের প্রয়োজন সদিচ্ছা ও আত্মপ্রত্যয়।

মাহবুব নাহিদ

পটুয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়