বই আলোচনা

উত্তরাধুনিক চিন্তার কবিতা

  যুগান্তর ডেস্ক    ১৯ এপ্রিল ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

সবারই স্বভাব কবি। কেবল কেউ কেউ যান তার উপরের ধাপে। পাপে-তাপে-সুখে-সন্তাপে লিখে নেন কালের অক্ষর। ক্ষয়ে যায় সব শুধু থেকে যায় পঙ্তি আর পঙ্তি। এই তো এভাবে রচিত হয় কবিরই জীবনী। এমনি আয়না তা তুলে ধরে সামাজিক যাবতীয় চিত্রাবলী। এখানে অসুখ থাকে। থাকে অনুযোগ। যাপন-উদযাপন, দ্রোহ-বিদ্রোহ, মিলন-বিচ্ছেদ, ব্যক্তি-সমষ্টি, রাজা-প্রজা আর যা যা জীবনের সঙ্গ- সবই প্রতিফলিত কবিতায় কবিতায়। আসলে সবই?

‘বিদগ্ধ বিবেকের ধুলো পড়ে থাকে রহস্যময় অন্ধকারের হয়ে,

বড় অচেনা লাগে এখনের কাল,

বড় আপন করে পড়ে থাকে।

হাওয়ায় উড়ে চলে কাব্যের ক্ষণদীপ্ত অনুষঙ্গ,

ঢাকার টকটকে লাল গোলাপ।’

[ঢাকার টকটকে লাল গোলাপ]

প্রথমে প্রশ্ন। তারপরে কবিতার ভেতরেই অনেকখানি তার উত্তর। সব সময়ে সব আসলে বলা যায় না। স্থান-কাল-পাত্র মেপেই থাকতে হবে। কিন্তু কবিতা ঠিকই পরোক্ষে কবিকে দিয়ে বলিয়ে নেয়। নিজের কবিতার এই আখর কী করে অস্বীকার করবেন কবি আবদুল্লাহ শুভ্র? শিল্পের ছলনায় বলে নেয়া যায় নিজের ভেতরের সবকিছু। ইশারা-ইঙ্গিতে কবিতার চেয়ে ধারালো আর কিছুই নেই। কবি শুভ্রর নতুন কাব্যগ্রন্থ ‘কালো জোছনায় লাল তারা’ সেই পরিচয় নিয়ে এবারের অমর একুশে গ্রন্থমেলায় অন্বেষা প্রকাশনের পাঠকের দরবারে পেশ হয়েছে।

‘কত শব্দ ওড়ে

খপ করে শব্দ ধরি,

সাদা জমিন খুঁড়ে শব্দ ভরি

কবিতা হয় না।’

[কালো জোছনায় লাল তারা]

স্বভাব কবিতার ঘেরাটোপ থেকে মুক্ত হয়ে কবি হতে পারেন যারা, তাদের সংখ্যা বিরল। আবার কবি যা রচনা করেন, তার সব হয় না কবিতা। সব পায় না শুভ্রতার দেখা। কবি আবদুল্লাহ শুভ্র সেই কথা বলতে চেয়েছেন, আমরা জানতে পারি উদ্ধৃত কবিতাংশে।

কবিতা এক সমাজচিত্র। রাজনীতির কথা বলে কবিতা। বলে অর্থনীতির কথা। নীতি ও দুর্নীতির প্রতিফলনও হয় কবিতায় কবিতায়। নেতার কথা বলে কবিতা। বলে কর্মীরও কথা। জীবনের জয়গান গাইতে পারে কবিতা। তুলে ধরতে পারে জীবনদর্শন। কাব্য আসলে বহুদর্শী, বহুরৈখিক। শীতলতা বলুন, উষ্ণতা বলুন- সবই পাবেন পঙ্তিতে পঙ্তিতে। মরণেও মিলনের দিশা পায় কবিতা। তাই রবিঠাকুর বলেছেন, ‘মরণরে, তুহুঁ মম শ্যাম সমান!’ এখানে ভিন্ন এক দর্শন নিয়ে হাজির হন এই প্রজন্মের কবি আবদুল্লাহ শুভ্র।

তার কাব্যাংশ :

‘শীতের কবি

কবিতা তোলে, কাফনের সাদায়,

বহু নরকঙ্কালের কফিন

এবং মরতে মরতে বেঁচে থাকা সময়ের গুটিকয়েক ম্লান অবয়ব।’

[শীতের কবি]

এখানেই উত্তরাধুনিক চিন্তার উত্তরসূরি কবি আবদুল্লাহ শুভ্র। আসুন আপন আপন পাতে তুলে নিই তার এ ধারার সমস্ত কবিতা। পাঠকমহলের লীলায় মহিমান্বিত করি তার ‘কালো জোছনায় লাল তারা।’

কালো জোছনায় লাল তারা আবদুল্লাহ শুভ্র

প্রচ্ছদ সোহেল আনাম দাম ২০০ টাকা

প্রকাশক অন্বেষা

মোর্শেদ আলম

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×