আয়ুর গোলক

প্রকাশ : ২৮ জুন ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

  মুহাম্মাদ আমানুল্লাহ

দোয়েলের ডাক শুনে ছোটে যাযাবর প্রত্যহ সুবহে শাম; শৈশব সৌরভে যায়- দুপুর গড়াতে গেলে বিবশ চোখের কোণে জাগে মায়ানদী, দূরের বন্দর;

কিছু নেই, কেউ নেই আঁধার রাতের কোলে পৃথিবী বদলে যায় মানুষ বোঝে না; হাতের দুমুঠো হতে অনায়াসে ঝরে পড়ে কবরের মাটি- অন্তিম আশ্রয়। যেতে যেতে যে পথিক নিজেকে চেনে না, দেখেও দেখে না সন্ধ্যা সমাগত- ছায়া তার ছবি আঁকে, কাঁদে অবিরত- বিলুপ্ত পথের মায়া শূন্যতাসুন্দর; মাটির ইশারা হাসে।

শহরে সে দীর্ঘশ্বাস জমা রাখে- ইসটিশনে শপিংমলে ফুটপাতে মোড়ে; জাহাজের ভেঁপু, সাগর ও বনভূমি নিমিষে পেছনে ফেলে পাহাড়-চূড়োয়; চোখের আরশিজুড়ে জিগীষা ও জিজীবিষা- অসীম আকাশ আর সাগরের ঢেউ- অশরীরী সুরে নাচে ময়ূখপেখম; ছায়ার পাঁচিল ভেঙে সহসা উড়াল দেয় আয়ুর গোলক রথে।