চাঁদা না দেয়া

খুলনায় কলেজ শিক্ষার্থীকে পিটিয়েছে ছাত্রলীগ

  খুলনা ব্যুরো ০২ নভেম্বর ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

খুলনার হাজী মোহাম্মদ মুহসীন সরকারি কলেজের রোভার মেট নেতা আলমগীর হোসেনকে পিটিয়ে গুরুতর জখম করেছে ছাত্রলীগ নেতারা। চাঁদার টাকা পরিশোধ না করায় পেটানো হয়েছে বলে দাবি করেছেন ভুক্তভোগী আলমগীর। পরে পুলিশ তাকে উদ্ধার করে। আলমগীর ওই কলেজের অর্থনীতি বিভাগের স্নাতক (সম্মান) চতুর্থ বর্ষের ছাত্র।

শিক্ষক ও শিক্ষার্থীদের সূত্রে জানা গেছে, কলেজে বৃহস্পতিবার ছিল পরিচ্ছন্নতা অভিযান। কর্মসূচি ঘিরে শিক্ষার্থীরা কলেজে র‌্যালি ও আলোচনা সভার আয়োজন করে। অনুষ্ঠান শেষে শিক্ষার্থীরা ক্যাম্পাস থেকে বের হয়ে যাচ্ছিল। এ সময় কলেজের ছাত্রলীগ নেতা রওশন অন্তু ও সাজ্জাদের নেতৃত্বে একদল যুবক রোভার মেট নেতা আলমগীর হোসেনের ওপর চড়াও হয়। এ সময় তারা লাঠিসোটা নিয়ে তাকে এলোপাতাড়ি মারতে থাকে। একপর্যায়ে কলেজের শিক্ষক ও শিক্ষার্থীরা এগিয়ে গেলে ছাত্রলীগ নেতাকর্মীরা সেখান থেকে সটকে পড়ে।

মারধরের শিকার আলমগীর বলেন, কলেজের বাইরে তার একটি কোচিং সেন্টার রয়েছে। প্রতিমাসে ২৫ শতাংশ হারে টাকা দিতে হয় ছাত্রলীগ নেতা অন্তুকে। এ মাসে কোনো টাকা লাভ না হওয়ায় অন্তুকে টাকা দিতে পারিনি। কয়েকবার টাকা চাইলেও দিতে না পারায় তাকে মারধর করা হয়েছে।

তবে অভিযোগ অস্বীকার করে ছাত্রলীগ নেতা রওশন অন্তু বলেন, আলমগীর কলেজে শিবির করে। কোচিংয়ে পড়ানোর নামে সে ছাত্রদের শিবির করতে উদ্বুদ্ধ করত। এ নিয়ে কয়েকবার তাকে নিষেধ করা হয়েছে। এরপরও না শোনার কারণে বৃহস্পতিবার তাকে দলের ছেলেরা মারধর করে।

এ বিষয়ে কলেজ অধ্যক্ষ টিএম জাকির হোসেন বলেন, একটি ছেলেকে মারধর করা হয়েছে শুনেছি। আমি ক্যাম্পাসের বাইরে থাকায় এর বেশি কিছু বলতে পারছি না।

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×