নির্বাচনী হাওয়া ব্যাংকের পরিচালন মুনাফায়

উচ্চ ঋণ খেলাপি ও আয়কর প্রদানের কারণে কমবে নিট মুনাফা

  হামিদ বিশ্বাস ৩০ ডিসেম্বর ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

নির্বাচনী হাওয়া

নির্বাচনী হাওয়া লেগেছে সরকারি-বেসরকারি ব্যাংকগুলোর পরিচালন মুনাফায়। দু-একটি ব্যাংক বাদে সব ব্যাংকেই পরিচালন মুনাফা বেড়েছে। যদিও এটি প্রকৃত মুনাফা নয়। সংশ্লিষ্টদের মতে, বিপুল অঙ্কের খেলাপি ঋণের বিপরীতে নিরাপত্তা সঞ্চিতি বা প্রভিশন সংরক্ষণ এবং আয়কর প্রদান পরবর্তী নিট মুনাফা অনেক কমে যাবে।

সূত্র জানায়, স্বাভাবিক সময়ে প্রতিবছরের ৩০ ডিসেম্বর বার্ষিক হিসাব চূড়ান্ত করে ব্যাংক। এ বছর ৩০ ডিসেম্বর একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের তারিখ নির্ধারিত হওয়ায় ব্যাংকগুলোর বার্ষিক হিসাব চূড়ান্তের সময় তিন দিন এগিয়ে আনে বাংলাদেশ ব্যাংক। সে হিসেবে ২৭ ডিসেম্বর ছিল ব্যাংকগুলোর হিসাব চূড়ান্তের দিন। যদিও নির্ধারিত দিনে দেশের বেশিরভাগ ব্যাংকই বার্ষিক হিসাব চূড়ান্ত করতে পারেনি। কোনো কোনো ব্যাংক ৩১ ডিসেম্বর হিসাব চূড়ান্ত করবে।

আয় থেকে ব্যয় বাদ দিয়ে যে মুনাফা থাকে, সেটিই কোনো ব্যাংকের পরিচালন মুনাফা। পরিচালন মুনাফা থেকে খেলাপি ঋণ ও অন্যান্য সম্পদের বিপরীতে প্রভিশন (নিরাপত্তা সঞ্চিতি) এবং সরকারকে কর প্রদান করতে হয়। প্রভিশন ও কর-পরবর্তী এ মুনাফাই হলো একটি ব্যাংকের প্রকৃত বা নিট মুনাফা।

সূত্র জানায়, দেশের বেশিরভাগ বেসরকারি ব্যাংকের পরিচালন মুনাফা বেড়েছে। প্রথমবারের মতো ১ হাজার কোটি টাকার বেশি পরিচালন মুনাফা পেয়েছে সাউথইস্ট ব্যাংক। ২০১৭ সালে ব্যাংকটির পরিচালন মুনাফা ছিল ৯০৬ কোটি টাকা।

পরিচালন মুনাফায় ভালো প্রবৃদ্ধি এসেছে শাহজালাল ইসলামী ব্যাংকেরও। ব্যাংকটি প্রায় ৪৭৫ কোটি টাকা পরিচালন মুনাফা পেয়েছে। ২০১৭ সালে শাহজালাল ইসলামী ব্যাংকের পরিচালন মুনাফা ছিল ৩৫৮ কোটি টাকা। ৭০৫ কোটি টাকা পরিচালন মুনাফা পেয়েছে এক্সিম ব্যাংক। ২০১৭ সালে ব্যাংকটি ৬৫০ কোটি টাকার পরিচালন মুনাফা করেছিল। মিউচুয়াল ট্রাস্ট ব্যাংক ২০১৭ সালে পরিচালন মুনাফা ৪১৬ কোটি টাকা পেলেও এবার পেয়েছে ৫১৫ কোটি টাকা। এনসিসি ব্যাংক ২০১৭ সালে পরিচালন মুনাফা ৫৩৫ কোটি টাকা পেলেও এবার পেয়েছে ৬৫৫ কোটি টাকা।

ফারমার্স ব্যাংক ছাড়া ভালো পরিচালন মুনাফা পেয়েছে নতুন প্রজন্মের ব্যাংকগুলোও। ২০১৭ সালে ১৪৬ কোটি টাকা পরিচালন মুনাফা পাওয়া মধুমতি ব্যাংক চলতি বছর ২০০ কোটি টাকার বেশি মুনাফা করেছে। এ ছাড়া ২০১৭ সালে ২০০ কোটি টাকা পরিচালন মুনাফা পাওয়া এনআরবি কমার্শিয়াল ব্যাংক চলতি বছর ২০৩ কোটি টাকা মুনাফা করেছে।

২০১৭ সালের তুলনায় চলতি বছর পরিস্থিতি আরো বেশি খারাপ হয়েছে বেসিক ব্যাংকের। লুটপাটের শিকার ব্যাংকটি চলতি বছর বড় অঙ্কের পরিচালন লোকসান গুনেছে। তবে খেলাপি ঋণ থেকে আদায় বাড়ায় ভালো করেছে হলমার্ক কেলেঙ্কারিতে বিপর্যস্ত সোনালী ব্যাংক। ২০১৮ সালে ব্যাংকটি প্রায় ১ হাজার ৯০০ কোটি টাকা পরিচালন মুনাফা করেছে। ২০১৭ সালে সোনালী ব্যাংকের পরিচালন মুনাফা ছিল ১ হাজার ২০৬ কোটি টাকা। বছরব্যাপী আমানত নিয়ে অস্থিরতাও ব্যাংকটির জন্য আশীর্বাদ ছিল। অলস পড়ে থাকা প্রায় ৫০ হাজার কোটি টাকার আমানত উচ্চ সুদে কলমানি এবং বিভিন্ন ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানের কাছে ধার দিয়ে ভালো মুনাফা করেছে সোনালী ব্যাংক।

রাষ্ট্রায়ত্ত অগ্রণী ব্যাংক চলতি বছর প্রায় ৯০০ কোটি টাকার পরিচালন মুনাফা পেয়েছে। ২০১৭ সালে ব্যাংকটির পরিচালন মুনাফা ছিল ৭১৭ কোটি টাকা। প্রায় সাড়ে ৩০০ কোটি টাকা পরিচালন মুনাফা পেয়েছে রাষ্ট্রায়ত্ত রূপালী ব্যাংক। তবে ২০১৭ সালে মুনাফা ছিল ৫৪২ কোটি টাকা। অবশ্য এ সময় ব্যাংকটি লোকসানি শাখা ৩৩টি থেকে কমিয়ে আটটিতে নামিয়ে এনেছে।

বাংলাদেশ ডেভেলপমেন্ট ব্যাংক লিমিটেড (বিডিবিএল) পরিচালন মুনাফা পেয়েছে ১১৬ কোটি ৬০ লাখ টাকা। এ ছাড়া বেসরকারি খাতের বেশিরভাগ ব্যাংকেরই পরিচালন মুনাফায় ভালো প্রবৃদ্ধি হয়েছে বলে সংশ্লিষ্ট ব্যাংক সূত্রে জানা গেছে।

ঘটনাপ্রবাহ : একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন

আরও
আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×