খুলনায় ইট দিয়ে থেঁতলে মসজিদের খাদেমকে হত্যা

  খুলনা ব্যুরো ২১ জানুয়ারি ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

খুলনা মহানগরীর মিস্ত্রিপাড়া বাজারে মাসুদ গাজী নামে এক ব্যক্তিকে মাথায় ইট দিয়ে আঘাত করে ও শরীর থেঁতলে হত্যা করা হয়েছে। শনিবার রাত দেড়টার দিকে খুমেক হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান। এর আগে রাত ৯টার দিকে স্থানীয় বখাটেরা দু’দফায় তার ওপর হামলা করলে তিনি গুরুতর জখম হন।

মাসুদ গাজী মিস্ত্রিপাড়া বাজার মসজিদের খাদেম হিসেবে কর্মরত ছিলেন। একই সঙ্গে রং মিস্ত্রি ও বিদ্যুতের কাজও করতেন। তিনি নগরীর পূর্ব বানিয়াখামার লোহারগেট নবম গলির বাসিন্দা মুনসুর রহমান গাজীর ছেলে। রোববার ময়নাতদন্ত শেষে খুলনা মেডিকেল কলেজে (খুমেক) হাসপাতালের মর্গ থেকে তার লাশ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

পরিবার ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, মাসুদ গাজী শনিবার রাতে মিস্ত্রিপাড়া বাজার থেকে বাসায় ফিরছিলেন। পথে নাসির ও সোহানসহ ওই এলাকার ১০-১৫ বখাটের সঙ্গে কোনো একটি বিষয় নিয়ে তার বাকবিতণ্ডা হয়। এক পর্যায়ে বখাটেরা তাকে বেদম মারধর করে। তিনি আহত হয়ে বাসায় ফিরে যান। বাসায় গিয়ে ঘটনা বলার পর তার ভাই ইয়াসিন গাজীকে সঙ্গে নিয়ে পুনরায় ঘটনাস্থলে আসেন। এতে বখাটেরা ক্ষিপ্ত হয়ে স্থানীয় স্কুল গলির মুখে নিয়ে তার মাথায় ইট দিয়ে আঘাত করে মুখ ও বুকসহ শরীরের বিভিন্ন স্থান থেঁতলে দেয়। তার ভাই ইয়াসিন গাজী ঠেকাতে গেলে তাকেও মারধর করা হয়। এক পর্যায়ে মাসুদ গাজী অচেতন হয়ে পড়লে বখাটেরা পালিয়ে যায়। আশঙ্কাজনক অবস্থায় মাসুদ গাজীকে প্রথমে খুলনা জেনারেল হাসপাতাল এবং পরে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হয়। সেখানেই চিকিৎসাধীন অবস্থায় রাত দেড়টার দিকে তিনি মারা যান।

নিহতের ভাগ্নে মিজানুর রহমান বিপ্লব জানান, হামলার সময় নাসির ও সোহানসহ ১০-১৫ জন ছিল। এরা মাদক ব্যবসার সঙ্গে সম্পৃক্ত।

খুলনা থানার ওসি মো. হুমায়ূন কবির বলেন, মাসুদ গাজী দধি কিনে বাসায় ফেরার পথে কয়েকজন যুবক ডেকে বলে কি নিয়ে যাচ্ছিস, দধি বলে জবাব দিলে তারা বলে শুধু দধি কেন, মিষ্টি কই? এ সময় তাদের দিকে মাসুদ গাজীর বাঁকা দৃষ্টিতে তাকানো নিয়েও প্রশ্ন তোলা হয়। এভাবে বাকবিতণ্ডার পর তিনি বাসায় চলে যান। পরে মাসুদ গাজী তার ভাইকে নিয়ে ঘটনাস্থলে গেলে বখাটেরা ইট দিয়ে তার মাথায় আঘাত করলে তিনি গুরুতর আহত হন। পরে হাসপাতালে মারা যান।

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×