চকবাজার ট্র্যাজেডি

বিয়ের এক মাস না যেতেই বিধবা হলেন আফরুজা

  যুগান্তর রিপোর্ট ২২ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

বিধবা

বিয়ের এক মাস না যেতেই বিধবা হলেন নববধূ আফরুজা। ২৮ জানুয়ারি ধুমধাম করে মেয়ে আফরুজা সুলতানা স্মৃতির বিয়ে দেন বাবা আবুল খায়ের। ভালোই চলছিল মেয়ের নতুন সংসার। কিন্তু বুধবার রাতের আচমকা আগুনে জামাতা মাহবুবুর রহমান রাজু ও তার ছোট ভাই মাসুদ রানা পুড়ে অঙ্গার হন।

রাজুর শ্বশুর আবুল খায়ের কান্নাজড়িত কণ্ঠে বলছিলেন, এ ছিল কপালে! কত আয়োজন করে বন্ধু সাহেব উল্লাহর ছেলের সঙ্গে বিয়ে দিয়েছিলাম। কিন্তু ভাগ্যের কী নির্মম পরিহাস, মাস না যেতেই মা (মেয়ে) আমার বিধবা হল। ওর সামনে আমি কী করে দাঁড়াব।

চকবাজারেই কাপড়ের ব্যবসা করেন তিনি। দেখেশুনেই মেয়েকে রাজুর সঙ্গে বিয়ে দিয়েছিলেন। তিনি বলেন, আগুনের খবর মোবাইল ফোনে পেয়ে ছুটে আসি। কিন্তু দোকানের কাছেই যেতে পারিনি। পরে শুনেছি ওরা আগুনের ভয়ে দোকানের সাটার বন্ধ করে দিয়েছিল। আর বের হতে পারেনি।

আবুল খায়ের বলেন, আগুন লাগার আধা ঘণ্টা আগেও রাজুর মা দেখা করে গেছে। বেয়াই (রাজুর বাবা) টাকা নিয়ে গেছেন। তিনি বলেন, সরকারের উচিত এসব বিষয় খেয়াল রাখা। যেখানে-সেখানে সিলিন্ডার বিস্ফোরণ ঘটবে আর মারা যাবে সাধারণ মানুষ, ক্ষতিগ্রস্ত হব আমরা। সিলিন্ডার ব্যবসা বন্ধ করা উচিত, কড়া নজরদারিতে রাখা উচিত আগুন বোমা। খোঁজ নিয়ে জানা যায়, রাজুরা তিন ভাই।

রানা টেলিকম নামে তাদের দোকান ছিল। সেখানে ফোন-ফ্যাক্সসহ মোবাইল অ্যাক্সেসরিজ বিক্রি করত তারা। ছোট্ট ভাইকে নিয়ে মা-বাবাসহ ঢাকাতেই চুড়িহাট্টার পাশের একটা ভবনে থাকতেন। রানা ও রাজুর বাবা সাহেব উল্লাহর বন্ধু নিজাম উদ্দিন ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গের সামনে কান্নাকাটি করে বলছিলেন, নিজের ছেলের মতো ওদের ভালোবাসি। কত স্মৃতি ওদের সঙ্গে। পরিশ্রমী ছেলে দু’টো এভাবে মারা যাবে, ভাবতে পারছি না। বন্ধু আমার ব্যবসা করত, এখন বয়স হয়েছে। রানা-রাজুই ছিল উপার্জনক্ষম। ছেলে দুটি মরে যাওয়ায় বন্ধুর বেঁচে থাকার মেরুদণ্ডই ভেঙে গেল।

--
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×