পিইসি পরীক্ষা যথারীতি চলবে

তৃতীয় শ্রেণী পর্যন্ত পরীক্ষা বাতিল আগামী বছর থেকে

  যুগান্তর রিপোর্ট ২৫ মার্চ ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

তৃতীয় শ্রেণী পর্যন্ত পরীক্ষা বাতিল আগামী বছর থেকে

প্রাথমিক বিদ্যালয়ে তৃতীয় শ্রেণী পর্যন্ত আনুষ্ঠানিক পরীক্ষা তুলে দেয়ার চিন্তা বাস্তবায়ন করা হবে আগামী বছর থেকে।

এ বছরও বার্ষিকসহ আনুষ্ঠানিক তিন পরীক্ষা নেয়া হবে। আগামী বছর থেকে এই তিন শ্রেণীর শিক্ষার্থীদের ধারাবাহিক মূল্যায়নের (সিএ) অধীনে আনা হবে।

আনুষ্ঠানিক পরীক্ষা তুলে দেয়ার লক্ষ্যে প্রয়োজনীয় কার্যক্রম চলছে। রোববার সচিবালয়ে সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান প্রাথমিক ও গণশিক্ষামন্ত্রী মো. জাকির হোসেন। তিনি বলেন, শিক্ষার্থীদের স্বাভাবিক বিকাশ যাতে বিঘ্নিত না হয় সেজন্য এই পরীক্ষা তুলে দিতে প্রধানমন্ত্রী নির্দেশনা দিয়েছেন।

সে অনুযায়ী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে তৃতীয় শ্রেণী পর্যন্ত পরীক্ষা তুলে দিতে কাজ শুরু হয়েছে। এই পদ্ধতি চালু হলে বিশেষ মূল্যায়নের মাধ্যমে শিক্ষার্থীদের পরবর্তী ক্লাসে পদোন্নতি দেয়া হবে। আগামী বছর থেকে এটি বাস্তবায়ন করা হবে। এর আগে শিক্ষাবিদসহ বিশিষ্ট ব্যক্তিদের পরামর্শ নেয়া হবে।

প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনী (পিইসি) পরীক্ষার ভিত্তিতে শিক্ষার্থীদের দেয়া বৃত্তির ফল প্রকাশ উপলক্ষে ওই সংবাদ সম্মেলন আয়োজন করা হয়। এতে উপস্থিত মন্ত্রণালয়ের সচিব আকরাম-আল-হোসেন বলেন, তৃতীয় শ্রেণী পর্যন্ত পরীক্ষা না রাখার ব্যাপারে কাজ শুরু করেছি।

এ ব্যাপারে কোনো নির্দেশনা (চিঠি) এখন পর্যন্ত মাঠপর্যায়ে পাঠানো হয়নি। তবে সুপারিশ তৈরির জন্য জাতীয় পাঠ্যক্রম ও পাঠ্যপুস্তক বোর্ডকে (এনসিটিবি) বলা হয়েছে।

এনসিটিবি জানিয়েছে, তাদের একটি খসড়া তৈরিই আছে। এটা থাকায় আমাদের কাজ আরেকটু দ্রুত হবে। তবে বাস্তবায়ন এ বছর হবে কিনা সেটা এখনও সুনির্দিষ্টভাবে বলা যাচ্ছে না।

সুপারিশের চূড়ান্ত খসড়া পাওয়া গেলে পরবর্তীতে কর্মশালার আয়োজন করে সবার পরামর্শের ভিত্তিতে তা চূড়ান্ত করা হবে।

এক প্রশ্নের জবাবে সচিব বলেন, পিইসি পরীক্ষা বাতিলের ব্যাপারে এখনও কোনো সিদ্ধান্ত হয়নি। এ ব্যাপারে মন্ত্রিসভায় প্রস্তাব পাঠানো হয়েছিল। সেখান থেকে কোনো সিদ্ধান্ত পাওয়া যায়নি। তাই পরবর্তী সিদ্ধান্ত না হওয়া পর্যন্ত পিইসি পরীক্ষা চলবে। চতুর্থ ও পঞ্চম শ্রেণীর পরীক্ষা আগের মতো চলবে।

শিক্ষকদের বেতন বৈষম্য সংক্রান্ত প্রশ্নের জবাবে প্রতিমন্ত্রী বলেন, শিক্ষকদের বেতনের ব্যাপারে আওয়ামী লীগের নির্বাচনী ইশতেহারে বলা আছে। শিক্ষকদের বেতন বৈষম্য থাকলে তা নিরসন করা হবে। এ ব্যাপারে প্রক্রিয়া চলছে। আর সচিব আকরাম-আল-হোসেন বলেন, আজকে (রোববার) অর্থ মন্ত্রণালয়ে আগামী অর্থবছরের বাজেট নিয়ে আলোচনা ছিল। সেখানে আমরা শিক্ষকদের বেতন বৈষম্যের কথা তুলে ধরেছি। আগামী বছরের জন্য আমরা ১৮ শতাংশ বেশি বরাদ্দ পাব বলে আশা রাখছি। অর্থ পেলে অনেক সমস্যাই সমাধান হবে।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×