স্বরূপকাঠিতে চোর সন্দেহে রিকশা চালককে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ

  স্বরূপকাঠি (পিরোজপুর) প্রতিনিধি ১০ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

চোর সন্দেহে স্বরূপকাঠিতে মো. মোস্তফা চৌধুরী (৩৫) নামে এক রিকশাচালককে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ পাওয়া গেছে। বৃহস্পতিবার রাতে উপজেলার জলাবাড়ি ইউনিয়নের আরামকাঠি গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। নিহতের স্বজনরা জানিয়েছেন, স্থানীয় ইউপি সদস্য মো. নকিতুল্লাহ ও চৌকিদার মো. ইব্রাহীম শাহজাহান মোল্লা ও আখতার মিয়া মোস্তফাকে পিটিয়ে আহত করার পর তাদের (স্বজন) কাছ থেকে সাদা কাগজে স্বাক্ষর নেন। পরে হাসপাতালে মোস্তফার মৃত্যু হয়। নিহত মোস্তফার মা মঞ্জুয়ারা ও বাবা সোহরাব চৌধুরী জানান, বৃহস্পতিবার রাতে মোস্তফা বাজার থেকে বাড়ি ফেরার পথে প্রকৃতির কাজ সারতে রাস্তার পার্শ্ববর্তী বাগানে যান। এ সময় শাহজাহান মোল্লা চোর চোর বলে ডাক-চিৎকার দিয়ে মোস্তফাকে মারতে থাকেন। এ সময় মেম্বার নকিতুল্লাহসহ অন্যরাও এগিয়ে এসে মোস্তফাকে বেধড়ক মারধর করেন। মোস্তফার পরিবার খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে মারধর থামানোর জন্য নকিতুল্লার কাছে আকুতি-মিনতি করেন। পরে ইউপি সদস্য নকিতুল্লাহ একটি সাদা কাগজে তাদের সই-স্বাক্ষর রেখে মোস্তফাকে ছেড়ে দেন। রাত গভীর হওয়ায় গুরুতর আহত মোস্তফাকে হাসপাতালে নেয়া সম্ভব হয়নি। ভোরে তাকে স্বরূপকাঠি হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। হাসপাতালে আনার পর কর্তব্যরত ডাক্তার তাকে মৃত ঘোষণা করেন। মোস্তফাকে মারধর ও তার স্বজনদের কাছ থেকে সাদা কাগজে স্বাক্ষর নেয়ার কথা অস্বীকার করেন ইউপি সদস্য নকিতুল্লাহ। তিনি বলেন, ‘ঘটনার সময় আমি বরিশালে প্রধানমন্ত্রীর জনসভা থেকে বাড়ি ফিরছিলাম। মোস্তফাকে চোর সন্দেহে ধরে আমাকে ফোনে জানানো হয়। আমি বিষয়টি স্থানীয় চৌকিদারকে জানাতে বলে লাইন কেটে দিই। মারধরের ঘটনায় আমার কোনো সংশ্লিষ্টতা নেই। স্বরূপকাঠি থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. মনিরুল ইসলাম শুক্রবার বিকালে জানান, নিহতের গলা ও ডান চোখের নিচে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। এ ব্যাপারে নিহতের স্বজনরা মামলা দায়েরের প্রস্তুতি নিচ্ছেন। এ ঘটনায় মামলা দায়ের করার পর তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নিব। মোস্তফা পেশায় একজন রিকশাচালক। পরিবারে তার ছোট তিন ছেলেমেয়ে ও স্ত্রী রয়েছে।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

 

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৮৪১৯২১১-৫, রিপোর্টিং : ৮৪১৯২২৮, বিজ্ঞাপন : ৮৪১৯২১৬, ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৭, সার্কুলেশন : ৮৪১৯২২৯। ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৮, ৮৪১৯২১৯, ৮৪১৯২২০

E-mail: [email protected], [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter