প্রথম স্মার্ট ক্লাসরুমের উদ্বোধন

সার্বক্ষণিক শিক্ষার্থীদের মঙ্গলের কথা চিন্তা করুন : গণশিক্ষামন্ত্রী

  যুগান্তর রিপোর্ট ১২ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

প্রাথমিক শিক্ষায় ডিজিটাল প্রযুক্তির ছোঁয়া আরও এক ধাপ বাড়ছে। মাল্টিমিডিয়া ক্লাসরুমের পর এবার প্রত্যেক স্কুলে একটি করে স্মার্ট ক্লাসরুম তৈরির উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। এই ক্লাসরুমে শিক্ষার্থীকে পাঠের বিষয় অ্যানিমেশন কার্টুন ও ছবি- এমনকি অনলাইনে তাৎক্ষণিক ছবি ডাউনলোড করে দৃষ্টান্ত দিয়ে দেখানো হবে।

বাংলাদেশ টেলিফোন শিল্প সংস্থার (টেশিস) সহায়তায় প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় এই উদ্যোগ বাস্তবায়ন করছে। উদ্যোগের যথার্থতা এবং ভুল-ত্রুটি নিরূপণের লক্ষ্যে রোববার ডিজিটাল স্মার্ট ক্লাসরুমের পরীক্ষামূলক কার্যক্রম শুরু করেছে। রাজধানীর মতিঝিলে আইডিয়াল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে পরীক্ষামূলক ওই ক্লাস কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন প্রাথমিক ও গণশিক্ষামন্ত্রী অ্যাডভোকেট মোস্তাফিজুর রহমান ফিজার। এ উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে একই মন্ত্রণালয়ের সচিব মোহাম্মদ আসিফ-উজ-জামান এবং স্কুলের প্রধান শিক্ষক মাকসুদা বেগম বক্তৃতা করেন।

অনুষ্ঠানে প্রাথমিক ও গণশিক্ষামন্ত্রী বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার লক্ষ্যে একনিষ্ঠভাবে কাজ করছেন। তার সেই কার্যক্রমের ছোঁয়ার বাইরে নয় প্রাথমিক শিক্ষা। প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনায় আমরা ইতিমধ্যে প্রাথমিক বিদ্যালয়গুলোতে মাল্টিমিডিয়া ক্লাসরুম তৈরি করেছি। ৫০৮টি মডেল স্কুলে আছে ওইসব ক্লাসরুম। এছাড়া পিটিআই সংলগ্ন ৫৫টি প্রাথমিক বিদ্যালয়ও আধুনিক তথ্যপ্রযুক্তির ছোঁয়ায় সুশোভিত। তিনি বলেন, আমরা ইতিমধ্যে ৫০ হাজার স্কুলে ল্যাপটপ দিয়েছি। বাকি স্কুলগুলোতেও পর্যায়ক্রমে ল্যাপটপ দেয়া হবে। পর্যায়ক্রমে প্রত্যেক স্কুলে মাল্টিমিডিয়া ও স্মার্ট ক্লাসরুম তৈরি করা হবে। এজন্য প্রত্যেক স্কুলেই বিদ্যুৎ সংযোগ দরকার। সে বিষয়টি মাথায় রেখে প্রত্যেক স্কুলে বিদ্যুতের সংযোগ দেয়ার কাজও হাতে নেয়া হয়েছে। তিনি স্মার্ট ক্লাসরুমের সঙ্গে স্কুলের শিক্ষক, পরিচালনা কমিটির সদস্য এবং শিক্ষার্থীদেরও স্মার্ট হওয়ার আহ্বান জানান। পাশাপাশি ছাত্রছাত্রীদের সার্বিক মঙ্গল সাধনে শিক্ষকদের সার্বক্ষণিক চিন্তা করার পরামর্শ দেন।

সচিব আসিফ-উজ-জামান বলেন, আমি এ স্কুলে এসে আবেগাপ্লুত হয়ে গিয়েছি। কেননা আমি আইডিয়াল হাইস্কুলের ছাত্র ছিলাম। তখন এই স্কুলটিও হাইস্কুলের সঙ্গে একীভূত ছিল। পরবর্তীকালে এটি আলাদা হয়ে এখানে প্রতিষ্ঠিত হয়। সেই হিসেবে আমি এই স্কুলেরই ছাত্র। তিনি বলেন, এই স্কুলে আজকে একটি ঐতিহাসিক ঘটনা ঘটল। তা হচ্ছে, এখানে দেশের প্রথম স্মার্ট ক্লাসরুম তৈরি হল। আমি এই ইতিহাসের অংশ হয়ে নিজেকে গর্বিত মনে করছি। নতুন তথ্যপ্রযুক্তির সঙ্গে নিজেদের দ্রুত খাপ খাইয়ে নিতে তিনি শিক্ষকদের পরামর্শ দেন।

 

 

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter
.