ফারমার্স ব্যাংকের ঋণ জালিয়াতি

সাবেক এমডি ও চিশতিসহ ৭ জনের বিরুদ্ধে আরও এক মামলা

  যুগান্তর রিপোর্ট ২৯ এপ্রিল ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

দুদক

ফারমার্স ব্যাংকের সাবেক ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) একেএম শামীম, সাবেক পরিচালক ও অডিট কমিটির চেয়ারম্যান বাবুল চিশতিসহ ৭ জনের বিরুদ্ধে আরও একটি মামলা করবে দুদক।

ব্যাংকের কাছে বন্ধকি জমির মূল্য হেরফের ও শর্ত ভঙ্গ করে ফারমার্স ব্যাংকের শেরপুর শাখা থেকে ৫৮ কোটি টাকা ঋণ দেয়ার ঘটনায় এ মামলা করতে যাচ্ছে দুদক। রোববার কমিশন সভায় এ সংক্রান্ত মামলার অনুমোদন দেয়া হয় বলে জানা গেছে। আজ-কালের মধ্যে মামলাটি শেরপুর সদর থানায় করা হবে।

মামলায় অন্য যাদের আসামি করা হচ্ছে তারা হলেন- শেরপুরের রোজবার্ক অটো রাইস মিলস লিমিটেডের মালিক ও স্থানীয় বিএনপি নেতা হযরত আলী, তার ভাই দোলোয়ার হোসেন, ফারমার্স ব্যাংক প্রধান কার্যালয়ের এসইভিপি ফয়সাল আহসান চৌধুরী, ব্যাংকটির শেরপুর শাখার ম্যানেজার উত্তম বড়–য়া ও ব্যাংকের প্যানেল সার্ভেয়ার সিটি সার্ভেয়ারের মালিক।

এর আগে বাবুল চিশতিসহ বেশ কয়েকজনের বিরুদ্ধে আরও দুটি মামলা করে দুদক। এর মধ্যে বাবুল চিশতি ও তার স্ত্রী-পুত্রের বিরুদ্ধে ১৫৯ কোটি টাকা মানি লন্ডারিংয়ের মামলা করা হয়। এ ছাড়া চট্টগ্রামের ব্যবসায়ী এসএ গ্রুপের মালিক শাহাবুদ্দিন চৌধুরীর প্রতিষ্ঠানের নামে জালিয়াতির মাধ্যমে ৩৮ কোটি টাকার ঋণের ঘটনায় অপর মামলাটি করে দুদক। এ মামলায় চিশতিকেও আসামি করা হয়। দুই মামলার আসামি হিসেবে তিনি এখন জেলে আছেন। এ ছাড়া চিশতির অবৈধ সম্পদের অনুসন্ধানও করছে দুদক।

শেরপুর শাখার ঋণ জালিয়াতির ঘটনা ও অভিযোগের বিষয়ে জানা যায়, এ শাখা থেকে ঋণ নেয়ার আগে রোজবার্ক অটো রাইস মিলসের পক্ষ থেকে যে জমি বন্ধক রাখা হয়, সার্ভেয়া ওই জমির মূল্য দেখিয়েছেন ৬০ কোটি টাকা। কিন্তু দুদক অনুসন্ধান করে জানতে পারে, ওই জমির মূল্য আসলে ৫ থেকে ৬ কোটি টাকা। এ ছাড়া ঋণ প্রদানের আগে এ সংক্রান্ত শর্ত মানা হয়নি। বাবুল চিশতি ক্ষমতার অপব্যবহার করে ব্যাংকের সাবেক এমডির সঙ্গে যোগসাজশে এ ঋণ মঞ্জুর করেন বলে মামলায় অভিযোগ আনা হয়। মামলায় ৫৮ কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগও করা হয়।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×