জাতীয় ফল প্রদর্শনী শুরু

নিরাপদ ও পুষ্টিমানের খাবার নিশ্চিতে ফল ভূমিকা রাখবে

কৃষিমন্ত্রী

  যুগান্তর রিপোর্ট ১৭ জুন ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

কৃষিমন্ত্রী ড. মো. আবদুর রাজ্জাক বলেছেন, বিশ্বের অর্থনীতিবিদদের অনুমানকে মিথ্যা প্রমাণ করে শুধু স্বয়ংসম্পূর্ণই নয়, খাদ্যে উদ্বৃত্ত হয়েছে বাংলাদেশ। এখন দরকার জনগণের জন্য নিরাপদ ও পুষ্টিমানের খাবার। আর এ নিরাপদ ও পুষ্টিমানের খাবার নিশ্চিতে ফল বিরাট ভূমিকা রাখবে।

রোববার রাজধানীতে তিন দিনব্যাপী জাতীয় ফল প্রদর্শনী ২০১৯-এর উদ্বোধন শেষে সেমিনারে কৃষিমন্ত্রী এ কথা বলেন। ফার্মগেট খামার বাড়ি আ. কা. মু. গিয়াস উদ্দীন মিলকী অডিটরিয়াম চত্বরে এ প্রদর্শনী চলবে আগামীকাল পর্যন্ত। মেলায় সাতটি সরকারি ও ৫৭টি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের ৮৪টি স্টল রয়েছে। মেলা প্রতিদিন সকাল ৯টা থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত সবার জন্য উন্মুক্ত থাকবে।

ফল মেলার উদ্বোধন শেষে কৃষিমন্ত্রী বিভিন্ন স্টল ঘুরে দেখেন। পরে এ দিন কৃষিবিদ ইন্সটিটিউশন বাংলাদেশ অডিটোরিয়ামে ফলদ বৃক্ষরোপণ পক্ষ ও জাতীয় ফল প্রদর্শনী ২০১৯ উপলক্ষে ‘পরিকল্পিত ফল চাষ জোগাবে পুষ্টিসম্মত খাবার’ শীর্ষক সেমিনারে তিনি প্রধান অতিথি ছিলেন। উপস্থিত ছিলেন, কৃষি মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য কৃষিবিদ আবদুল মান্নান এমপি, চ্যানেল আইর পরিচালক ও বার্তা প্রধান শাইখ সিরাজ, কৃষি মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. নাসিরুজ্জামান, কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতরের মহাপরিচালক মীর নূরুল আলম, কৃষি গবেষণা ইন্সটিটিউটের সেবা ও সরবরাহ বিভাগের পরিচালক মদন গোলাপ সাহা প্রমুখ।

সেমিনারে ফল মেলার বিষয় উল্লেখ করে কৃষিমন্ত্রী ড. আবদুর রাজ্জাক বলেন, ফল উৎপাদনে আমরা অনেক এগিয়ে গেছি। অনেক ফল আছে যেগুলো সারা বছর ধরে চাষ করা হচ্ছে। পাশাপাশি বিভিন্ন ধরনের বিদেশি ফলও চাষ হচ্ছে। আমাদের দেশের আম বিদেশিরা খেয়ে খুবই সুস্বাদু বলছে। তাছাড়া আমাদের দেশি ফলের পুষ্টিমান যেমন রয়েছে, তেমনি সবার কাছেও সমাদৃত।

তিনি আরও বলেন, কৃষির জন্য টাকা কোনো সমস্যা হবে না। ৯ হাজার কোটি টাকা বরাদ্দ দেয়া হয়েছে। দরকার হলে আরও টাকা দেয়া হবে। কৃষকদের জন্য আরও কমানো হবে সারের দাম। তাছাড়া কৃষি উন্নয়নে যা যা করণীয় তা করা হবে। আমরা কৃষি পণ্য রফতানিতে শতকরা ২০ ভাগ ভর্তুকি দিচ্ছি। চাল আমদানিকে নিরুৎসাহিত করা হচ্ছে। করের পরিমাণও বাড়ানো হয়েছে। এছাড়া ফিলিপাইনের সঙ্গে দেশি ব্যবসায়ীদের আলোচনা হয়েছে। ২-৩ লাখ টন চাল রফতানি করার কথা হচ্ছে।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×